বিকাশ একাউন্ট কার আইডি দিয়ে খোলা-2022। Bkash Account

আমাদের ওয়েবসাইট থেকে বিকাশ অ্যাকাউন্টের মালিক কে তা খুঁজে বের করুন। আপনাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা বিকাশ একাউন্টের নাম জানেন না। অথবা আপনার প্রয়োজনের মুহূর্তে বিকাশ অ্যাকাউন্টের নাম খুঁজে পাচ্ছেন না। সেই জন্য, আজ আপনি আমাদের ওয়েবসাইটে পোস্টের মাধ্যমে বিকাশ অ্যাকাউন্টের নাম জানতে পারেন/বিকাশ একাউন্ট কার আইডি দিয়ে খোলা জানতে পারেন

More Post :খুব দ্রুত ওজন কমানো 

বিকাশ একাউন্ট কার আইডি দিয়ে খোলা
বিকাশ একাউন্ট কার আইডি দিয়ে খোলা


আমরা অনেকেই মনে রাখি না যে আমরা আমাদের বিকাশ অ্যাকাউন্ট কার আইডি কার্ড দিয়ে অ্যাকাউন্ট খুলেছিলাম বা আমরা জানতে চাই যে আগে খোলা অ্যাকাউন্টটি কার NID CARD দিয়ে খোলা হয়েছিল কিনা। কিন্তু আমরা অনেকেই বুঝতে পারি না কিভাবে জানব। আর তাই এই সমস্যা সমাধানের জন্য আজকের আর্টিকেলটি পড়ে জেনে নিতে পারেন কারা আপনার বিকাশ অ্যাকাউন্ট কার আইডি দিয়ে খুলেছে।

ধরুন আপনাকে সঠিক সময়ে বিকাশ কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করতে হবে বা বিকাশ অ্যাকাউন্টে কোনো সমস্যা হলে তাদের সঠিক তথ্য দিতে হবে। আপনি যখন আপনার বিকাশ অ্যাকাউন্টের জন্য কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করেন, তখন বিকাশ অ্যাকাউন্টে একটি NID নাম থাকে এবং ন্যাশনাল আইডি কার্ড নম্বর প্রদান করতে হবে।

একাউন্ট কার নামে আছে?

আপনি আপনার ফোনের যেকোনো ব্রাউজার দিয়ে সার্চ অপশনে গিয়ে ইংরেজিতে BRAC Bank লিখে সার্চ করতে পারেন। তারপর প্রথম পেজে আপনি লগইন টু ইন্টারনেট ব্যাংকিং নামে একটি অপশন পাবেন। আপনি এই অপশনে প্রবেশ করবেন।

* প্রবেশ করার পর যে পেজটি আপনার সামনে আসবে, আপনি যদি পেস্টের উপরের দিকে তাকান তাহলে দেখবেন ইন্টারনেট ব্যাংকিং লগইন নামে একটি অপশন রয়েছে। আপনি এটিতে ক্লিক করবেন।

* পরবর্তী সেলে আপনাকে আপনার ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিতে হবে। সুতরাং আপনি যদি আপনার ব্র্যাক ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নিবন্ধন না করে থাকেন তবে আপনি ব্যবহারকারী আইডি এবং পাসওয়ার্ড না দিয়ে নিচের দিকে তাকালে ইন্টারনেট ব্যাংকিংয়ের জন্য সাইনআপ দেখতে পাবেন। সেখানে ক্লিক করবেন।

* আপনি আপনার যেকোনো ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট বা ডেবিট কার্ড এবং ক্রেডিট কার্ড নিয়ে পাশের Option যেতে পারেন। তাই আপনাকে সাইন আপ করার জন্য একটি নম্বর লিখতে হবে, অর্থাৎ ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করতে হবে।

 

আপনি যে নম্বর দিয়ে বিকাশ অ্যাকাউন্ট খুলেছেন সেটি লিখুন। শেষ হলে Send OTP- ক্লিক করবেন। তারপর আপনার ফোনে একটি ওটিপি নম্বর থাকবে।

 

* তারপর আপনি সেই প্রথম পাতায় ফিরে যাবেন। সেখান থেকে ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং লগইনে ক্লিক করে যেখানেই যান ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিন। সেখানে আপনার ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিলে আপনি বিকাশ অ্যাকাউন্টের ড্যাশবোর্ড অর্থাৎ বিকাশ ইন্টারনেট অ্যাকাউন্টে চলে যাবেন।

 

সেখানে আপনাকে বিকাশ ফান ট্রান্সফার এবং কার্ড পেমেন্টে যেতে হবে। সেখানে গেলে, আপনি নিচের দিকে তিন নম্বর Option বিকাশ অ্যাকাউন্ট ট্রান্সফার বক্সে প্রবেশ করবেন।

* একবার প্রবেশ করলে একটি বাক্স থাকে। বক্সের প্রথম Optionআপনি যে নম্বরে বিকাশ ট্রান্সফার করবেন সেই নম্বরে বিকাশ নম্বর দেবেন।

 

বিকাশ একাউন্ট কার আইডি দিয়ে খোলা জানার উপায়

প্রথমে আপনাকে ব্র্যাক ব্যাংকে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। আপনি কি বিস্মিত? আশ্চর্যের কিছু নেই প্রিয় পাঠক। ব্র্যাক ব্যাংকে নিজের অ্যাকাউন্ট না থাকলে কোনো সমস্যা নেই। শুধুমাত্র আপনার পরিচিত কারো ব্র্যাক ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থাকলে। আর সে কারণেই যদি আপনার শুধুমাত্র ব্র্যাক ব্যাংকে একটি অ্যাকাউন্ট থাকে, তাহলে আপনাকে অনলাইন ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং চালু রাখতে হবে না। তবেই সম্ভব। আমরা এখন ধাপে ধাপে আলোচনা করব কিভাবে কে বিকাশ অ্যাকাউন্ট আইডি খুলেছে।

1.    একটি ব্র্যাক ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সহ একটি সক্রিয় ইন্টারনেট অনলাইন ব্যাংকিং সাইটে ছবিতে দেখানো একটি ইন্টারফেস থাকবে। এখানে আপনাকে ফান্ড ট্রান্সফার এবং কার্ড পেমেন্ট অপশনে ক্লিক করতে হবে। তারপর এখান থেকে বিকাশ অ্যাকাউন্ট ট্রান্সফারে ক্লিক করতে হবে।

 

2.    বিকাশ অ্যাকাউন্ট ট্রান্সফারে ক্লিক করলে চিত্রে দেখানো ইন্টারফেসটি আসবে। এখানে আপনাকে আপনার বিকাশ অ্যাকাউন্ট নম্বর দিতে হবে।

 

3.    বিকাশ অ্যাকাউন্ট নম্বর দেওয়ার পর লোড হতে কিছুটা সময় লাগবে। শীঘ্রই আপনার অ্যাকাউন্টের NID অনুযায়ী নাম আসবে।

 

আর এভাবে আইডি দিয়ে আপনার বিকাশ অ্যাকাউন্ট খুলেছেন এমন ব্যক্তির নাম জানতে পারবেন। আপনি সহজেই বিকাশ অ্যাকাউন্টের নাম বা আপনি যে বিকাশ অ্যাকাউন্টটি খুঁজছেন তার নাম খুঁজে পেতে পারেন। তাই আপনি উপরের বিকাশ ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট দিয়ে চেক করতে পারেন অথবা বিকাশ কাস্টমার কেয়ারে গিয়ে দেখতে পারেন কার বিকাশ অ্যাকাউন্ট আইডি খোলা আছে।

 

বিকাশ থেকে ব্যাংকে টাকা পাঠানোর চার্জ

আপনি আপনার বিকাশ একাউন্ট দিয়ে অগ্রণী ব্যাংকের সকল লেনদেন করতে পারবেন। অর্থাৎ আপনার বিকাশ অ্যাকাউন্ট এবং অগ্রণী ব্যাংক অ্যাকাউন্ট মিলিয়ে টাকা লেনদেন করা যাবে। আপনি আপনার প্রয়োজন মতো অগ্রণী ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে অগ্রণী ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অর্থ স্থানান্তর করতে পারেন।

·       আপনি বিকাশ অ্যাকাউন্ট থেকে অগ্রণী ব্যাংক অ্যাকাউন্টে প্রতিদিন 50 বার পর্যন্ত টাকা পাঠাতে পারবেন। প্রতিদিন ন্যূনতম ১০ থেকে ২৫ হাজার টাকা পাঠাতে পারবেন। আর এভাবে আপনি মাসে সর্বোচ্চ লাখ টাকা পর্যন্ত টাকা পাঠাতে পারবেন

 

·      আপনি আপনার অগ্রণী ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে বিকাশে দিনে সর্বোচ্চ পাঁচবার যোগ করতে(Add) পারেন।

 

বিকাশ হেল্পলাইন:

১৬২৪৭ or ০২৫৫৬৬৩০০১

(যেকোনো রবি, গ্রামীণফোন, এয়ারটেল, বাংলালিংক, সিটিসেল, টেলিটক এবং টি এন্ড টি নাম্বার থেকে যোগাযোগ করা যাবে।)

Mail Address: [email protected] 

 

বিকাশ  লাইভ চ্যাট(Live Chat)

ক্লিক করে লাইভ চ্যাট(Live Chat) করুন-Chat Now


ভালোবাসার বাংলা ব্লগ(ssitbari) ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন।

ভালোবাসার বাংলা ব্লগ(ssitbari) ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এই পেজ ভিজিট করুন

ভালোবাসার বাংলা ব্লগ(ssitbari) ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন এবং দারুণ সব ভিডিও দেখুন।
প্রযুক্তির অনান্য সব তথ্য জানতে ভিজিট করুন www.ssitbari.com সাইট।

pp

তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক লেখালিখি করি। এর আগে বিভিন্ন পোর্টালের সাথে যুক্ত থাকলেও, SS IT BARI-আমার হাতেখড়ি। তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিশ্লেষণ বাংলায় জানতে ভিজিট করুন http://ssitbari.com

Leave a Reply

Your email address will not be published.