নতুন নিয়মে বিধবা ভাতা আবেদন অনলাইন ২০২৪

বিধবা ভাতা আবেদন করবেন কিভাবে এবং অনলাইনের মাধ্যমে ঘরে বসে বিধবা ভাতা আবেদন করার নিয়ম এবং বিধবা ভাতা আবেদন ফরম অনলাইন থেকে শুরু করে বিধবা ভাতা আবেদন সম্পর্কিত সকল বিষয়েই আপনারা আজকে পোস্টে জানতে পারবেন।

বিধবা ভাতা পেতে চান অথবা পরিবারের অন্য কারো জন্য বা আত্মীয়-স্বজন পাড়া-প্রতিবেশী বিধবা অসহায় ব্যক্তিদের জন্য বিধবা ভাতা যাদের হাসবেন্ড বা স্বামী মারা গিয়েছে। আপনার আজকে দেখানো পোস্টের নিয়ম অনুসরণ করে অনলাইনে ঘরে বসে বিধবা ভাতা আবেদন করতে পারবেন।বিধবা ভাতা আবেদন অনলাইন

আপনারা সকলেই জানেন অন্যান্য উন্নত দেশের মতো আমাদের বাংলাদেশেও গত কয়েক বছর ধরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিধবা মহিলাদের জন্য বিধবা ভাতা চালু করেছে।

কিন্তু সমস্যা হচ্ছে বর্তমানে আমাদের দেশ ডিজিটাল করার লক্ষ্যে সরকারি সকল কার্যক্রম গুলি অনলাইন ভিত্তিক করে ফেলেছে। এজন্য বিধবা ভাতা সম্পর্কিত সকল বিষয়গুলি আপনাকে অনলাইনে মাধ্যমে করতে হবে।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন

সেজন্য আজকে আমি একদম স্টেপ বাই স্টেপ আপনাদেরকে বিধবা ভাতা অনলাইনের মাধ্যমে কিভাবে ঘরে বসে আবেদন করবেন ?কিভাবে বিধবা ভাতা আবেদন ফরম সংগ্রহ করবেন এই সম্পর্কিত সকল বিষয়গুলি জানাবো।

বিধবা ভাতা আবেদন করতে কি কি প্রয়োজন হয়?

বিধবা ভাতা আবেদন অনলাইন করার জন্য যে সকল বিষয় পূর্বেই প্রয়োজন হয়। আমি নিচে আপনাদেরকে সেই সকল বিষয়ের লিস্ট আকারে দিয়ে দিচ্ছি।

  • বিধবা ভাতা আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি।
  • বিধবা ভাতা আবেদনকারীর ২ টি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি।
  • বিধবা ভাতা আবেদনকারীর সচল মোবাইল নাম্বার।
  • বিধবা ভাতা আবেদনকারীর স্বামীর মৃত্যুর সনদ বা প্রমাণপত্র।
  • বিধবা ভাতা আবেদনের ফরম
  • বিধবা ভাতা আবেদনকারীর মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট নাম্বার (নদগ,বিকাশ,রকেট,উপায় ইত্যাদি)
  • বিধবা ভাতা আবেদন করার সময় উপরোক্ত তথ্য বা ডকুমেন্টগুলি অবশ্যই আপনার সঙ্গে রাখতে হবে।

বিধবা ভাতা আবেদন অনলাইন করার নিয়ম

বিধবা ভাতা অনলাইন আবেদন আপনি আপনার মোবাইল ফোন অথবা কম্পিউটার ডিভাইস থেকে ইন্টারনেট সংযোগ করে করতে পারবেন। আমি সম্পূর্ণ প্রসেসটি আপনাদেরকে দেখিয়ে দিচ্ছি –

প্রথমেই বিধবা ভাতা অনলাইন আবেদন করার জন্য আপনি আপনার মোবাইল ফোন অথবা কম্পিউটারে গুগলে গিয়ে সার্চ করুন এই ওয়েবসাইটটি”  https://mis.bhata.gov.bd/onlineApplication “

এখন আপনার সামনে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি সমাজসেবা অধিদপ্তরের এই ওয়েবসাইটটি চলে আসবে। যারা ভাতা পাচ্ছেন তারা আবেদন করার প্রয়োজন নেই এই মেসেজটি আপনারা নিজে থেকেই দেখতে পাবেন।

বিধবা ভাতা আবেদন অনলাইন

এখন আপনি “কার্যক্রম” থেকে “নির্বাচন করুন “এই অপশনটির উপরে ক্লিক করে দিবেন । এখন আপনার সামনে” অনগ্রসর জাতিগোষ্ঠীর বিশেষ ভাতা “বলে একটি অপশন দেখতে পাবেন। এই অপশনটি নির্বাচন করুন।

বিধবা ভাতা আবেদন অনলাইন

এখন আপনার সামনে বিধবা ভাতা আবেদনের যে ফর্মটি রয়েছে সেই ফর্মটি চলে আসবে। প্রথমে এখানে আপনাকে ব্যক্তিগত তথ্য দিয়া যাচাই হতে হবে।এখানে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার অথবা জন্ম শোনা দেন নাম্বার এবং জন্ম তারিখ দিয়ে যাচাই করুন এই অপশনটির উপর ক্লিক করে দিন।বিধবা ভাতা আবেদন অনলাইন

নিচে থেকে আপনাকে ভাতা অনুযায়ী আরো কিছু তথ্য প্রদান করতে হবে। যেমন আপনার বৈবাহিক অবস্থা, আপনার বার্ষিক আয় এই সকল ইনফরমেশন গুলি আপনাকে প্রদান করতে হবে।বিধবা ভাতা আবেদন অনলাইন

এছাড়াও আরো নিচে এসে এই ফর্ম এর যোগাযোগের তথ্য ‘বলে একটি সেকশন দেখতে পাবেন। এই সেকশনের সমাজ কল্যাণ অধিদপ্তর কিভাবে আপনার সাথে যোগাযোগ করবে এই সকল বিষয় আপনাকে কিছু তথ্য প্রদান করতে হবে।নতুন নিয়মে বিধবা ভাতা আবেদন অনলাইন

উপরের এই সকল বিষয় আপনার প্রদান করা হয়ে গেলে আপনি ফর্ম ডাউনলোড দিয়ে প্রিন্ট আউট করে এক কপি নিবেন।

আবেদন ফরমের কপিটি নিয়ে নিকটস্থ আপনার ইউপি সদস্যের সিগনেচার নিয়ে সমাজসেবা অধিদপ্তরে জমা দিবেন।

অধিদপ্তর আপনার আবেদনটি চেক করে, সকল কিছু ঠিকঠাক থাকলে আপনি বিধবা ভাতা পাওয়ার জন্য গণ্য হবেন।

আশা করছি আপনার বিধবা ভাতা অনলাইন আবেদন করতে যারা ইচ্ছুক তারা উপরের দেখানো এই নিয়ম অনুসরণ করে কাজটি করতে পারবেন।

অনলাইনে বিধবা ভাতার আবেদন করার নিয়ম

  • অনলাইনের মাধ্যমে বিধবা ভাতা আবেদন করার জন্য প্রথমেই আপনি বিধবা ভাতা এই ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করবেন। https://mis.bhata.gov.bd/onlineApplication
  • এখান থেকে প্রয়োজনীয় সকল আপনার ব্যক্তিগত বৈবাহিক শিক্ষাগত থেকে শুরু করে বাৎসরিক আয় এই সকল তথ্যগুলি আপনি পূরণ করবেন।
  • এরপরে আপনি যে একাউন্টের মাধ্যমে বিধবা ভাতা গ্রহণ করতে চান সেই অ্যাকাউন্ট নাম্বারটি প্রদান করবেন।
  • এরপর আপনি সেই আবেদনটি প্রিন্ট আউট করে ইউপি সদস্যের সিগনেচার নিয়ে সমাজসেবা অধিদপ্তরে জমা দিবেন।
  • সমাজসেবা অধিদপ্তর আপনার আবেদনটি চেক করে আপনার আবেদন ফরটি গ্রহণযোগ্য হলে অবশ্যই আপনাকে জানিয়ে দিবে।
  • এরপরে থেকে আপনি প্রতি মাসে বিধবা ভাতা বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে গ্রহণ করতে পারবেন।

বিধবা ভাতা কত টাকা দেওয়া হয়?

আমরা অনেকেই জানিনা যে বর্তমানে বাংলাদেশ সরকার বিধবা ভাতা কত টাকা করে একজন বিধবা নারীকে প্রদান করে থাকেন।

বিধবা ভাতা প্রতি মাসে একজন বিধবা নারীকে ৫০০ টাকা করে দেওয়া হতো কিন্তু বর্তমানে ২৩-২৪ অর্থ বছর থেকে বাংলাদেশ সরকার একজন বিধবার নারীর প্রতি মাসে ৫০ টাকা করে বাড়িয়ে বর্তমানে প্রতি মাসে 550 টাকা করে নির্ধারণ করা হয়েছে।

অর্থাৎ একজন বিধবা নারী বর্তমানে প্রতি অর্থবছরে ৬৬০০ টাকা করে প্রতিবছর সরকারের কাছ থেকে বিধবা ভাতা পেয়ে থাকবে।

বিধবা ভাতার টাকা কোন ব্যাংকে প্রদান করা হয়?

বিধবা ভাতা বর্তমানে অনলাইন মোবাইল ব্যাংকিং যেমন বিকাশ নগদ রকেট উপায় এগুলি মাধ্যমে প্রদান করা হয়ে থাকে।

বিধবা ভাতা কারা পাবে?

মূলত বিধবা ভাতা ওই নারী পাবে যে নারী তার স্বামী হারিয়েছে এবং আর্থিকভাবে অসচ্ছল।

অর্থাৎ স্বামী মারা যাওয়ার পর সন্তান বা পরিবার নিয়ে অসচ্ছল অবস্থায় যারা আছে তারা বিধবা ভাতার আবেদন করতে পারবে।বিধবা, বিবাহিত, বর্বিত, বৈদিক ইত্যাদি শ্রেণীর নারীরা স্বামী মারা যাওয়ার পর পরিবারকে আর্থিকভাবে সচ্ছল করতে এই ভাতার জন্য আবেদন করতে পারবে।

কিন্তু স্বামী মারা যাওয়ার পরও যাদের পরিবারের অবস্থা আর্থিকভাবে বেশ সচ্ছল তারা এই ভাতার জন্য আবেদন করতে পারবে না।

অনলাইনে বিধবা ভাতা আবেদনের ওয়েবসাইট কোনটি?

বিধবা ভাতা অনলাইনে আবেদন করার জন্য নিচে থাকা এই লিংকের ওয়েবসাইটটি আপনারা ভিজিট করুন।

শেষ কথা – আপনাদের মধ্যে যে বিধবা ভাতা অনলাইন আবেদন করতে চান অথবা পরিবারের যে কেউ আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে তারা উপরে দেখানোই নিয়ম অনুসরণ করে এই কাজটি করতে পারবেন।

এছাড়াও বিধবা ভাতা সম্পর্কিত সকল বিষয়ে আমাদের ওয়েবসাইটে আর্টিকেল পেতে অবশ্য আমাদের ওয়েবসাইটের সঙ্গে যুক্ত থাকুন।

বিশেষ দ্রষ্টব্য – লেখার মধ্যে ভাষা জনিত ভুল-ত্রুটি হয়ে থাকলে অবশ্যই ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

আরও জানুন-

প্রতিবন্ধী ভাতার আবেদন ফরম পূরণ করার সহজ নিয়ম

প্রতিবন্ধী ভাতা কবে দিবে? প্রতিবন্ধী ভাতা কত টাকা? প্রতিবন্ধী ভাতা পাওয়ার নিয়ম কি?

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার নতুন মাধ্যম (প্রমাণসহ)

গেম খেলে টাকা আয় পেমেন্ট বিকাশে –নগদে -রকেটে

আপনার জন্য আরো 

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন

SANAUL BARI

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। আমি মো:সানাউল বারী।পেশায় আমি একজন চাকুরীজীবী এবং এই ওয়েবসাইটের এডমিন। চাকুরীর পাশাপাশি গত ১৪ বছর থেকে এখন পর্যন্ত নিজের ওয়েবসাইটে লেখালেখি করছি এবং নিজের ইউটিউব এবং ফেসবুকে কনটেন্ট তৈরি করি।
বিশেষ দ্রষ্টব্য -লেখার মধ্যে যদি কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে অবশ্যই ক্ষমার চোখে দেখবেন। ধন্যবাদ।