শূন্য থেকে কিভাবে ঘরে বসে মোবাইল এপ্লিকেশন দিয়ে টাকা আয় করবেন? |apps দিয়ে টাকা আয়

বর্তমানে কারনা ইচ্ছে করে, ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে হাতে থাকা মোবাইল ফোন দিয়ে মোবাইল অ্যাপস- apps ইনস্টল করে টাকা আয় করতে?

তাই যদি বলা হয় তাহলে ম্যাক্সিমাম মানুষেরই তাদের চাকুরী অথবা ব্যবসা অথবা ছাত্র-ছাত্রী পড়াশুনা এই সকল কাজের ব্যাহিরে অবসর সময়কে ব্যবহার করে হাতে থাকা মোবাইল দিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে টাকা আয় করতে সকলের ইচ্ছে করে।

আর আমি আজকে আপনাদেরকে কথা দিচ্ছি এই ইচ্ছাটি পূরণ হবে। আজকের এই পোস্টটি যদি সম্পূর্ণ আপনি পড়েন এবং এই পোস্ট অনুযায়ী কাজ করেন।তো চলুন শুরু করা যাক।Apps দিয়ে টাকা আয়

আসসালামু আলাইকুম, আশা করছি সকলে ভালো আছেন, আমি গত সাত বছর যাবৎ অনলাইনের বিভিন্ন প্লাটফর্ম কে ব্যবহার করে ঘরে বসে আয় করছি। তাই এই অনলাইনকে ব্যবহার করে  এই টাকা আয় উৎস গুলির মধ্যে রয়েছে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে টাকা আয় করা। আর আমার এই মোবাইল এপ্লিকেশন দিয়ে আয় করার অভিজ্ঞতা এবং মাধ্যমগুলি আপনাদেরকে জানাবো। অর্থাৎ আজকের পোষ্টে আমি সম্পূর্ণভাবে জানাবো যে বাংলাদেশ থেকে বর্তমানে কোন মোবাইল এপ্লিকেশনগুলি ব্যবহার করে ঘরে বসে আপনি হাজার হাজার টাকা আয় করতে পারবেন?

অনলাইন থেকে আনলিমিটেড টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়

উপরের এই লেখার কথা গুলি অনেকেরই কিন্তু অবিশ্বাস হচ্ছে। অবিশ্বাস্য হলেও সত্য আপনাদেরকে আমি এমন কিছু আজকে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের সন্ধান দিব যে সকল মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনগুলি আপনি ব্যবহার করে খুব সহজেই ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে হাজার হাজার লক্ষ লক্ষ টাকা প্রতি মাসে আপনি আয় করতে পারবেন। আর যদি তাও না পারেন তাহলে প্রতিদিন আপনি ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা তো আয় করতে পারবেনই।

অনলাইন থেকে মোবাইল Apps দিয়ে কারা আয় করতে পারে না?

অনলাইন থেকে মোবাইল এপ্লিকেশন বা অ্যাপস ব্যবহার করে যারা আয় করতে পারে না আমি তাদের সম্পর্কে বলছি।

  • অনলাইন থেকে মোবাইল এপ্লিকেশন ব্যবহার করে আয় করতে পারে না ঐ সকল ব্যক্তি যারা সঠিক গাইডলাইন না বুঝে যে কারো কথায় যে কোন প্লাটফর্ম বা মোবাইল এপ্লিকেশন ব্যবহার করে আয় করতে নেবে পরে।
  • এছাড়াও আমাদের মধ্যে অনেক ধরনের মানুষ আছে, যারা মোবাইল দিয়ে অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে আয় করতে চাই কিন্তু শুরু করার পূর্বেই তারা আয়ের প্রতি দৃষ্টি দৃষ্টি আকর্ষণ বেশি করে কিন্তু কাজের প্রতি মনোযোগী কম।
  • আরো রয়েছে আমাদের মধ্যে অনেক ব্যক্তি যাদের, অনলাইন প্লাটফর্ম ব্যবহার করে আয় করার ইচ্ছে এবং মনবল প্রচুর পরিমাণে কিন্তু তারা চেষ্টা করে না এবং ধৈর্যশীল না।

তো উপরের এই তিন প্রকৃতির মানুষ কখনোই অনলাইন প্লাটফর্ম থেকে মোবাইল এপ্লিকেশন ব্যবহার করে কখনো আয় করতে পারবেনা। এটা একমাত্র আমার ব্যক্তি অভিমত।

Apps দিয়ে টাকায় ইনকাম

বর্তমানে আপনি পুরো বিশ্বে এবং বাংলাদেশে অসংখ্য মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন পাবেন, যে মোবাইল এপ্লিকেশন প্লাটফর্ম গুলি ব্যবহার করে অনলাইনে ঘরে বসে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করা যায়। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে যে ট্রাস্টেড মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন কোম্পানি খুঁজে পাওয়া খুবই দুষ্কর। তাই আমি আপনাদেরকে এমন সকল ট্রাস্টেড মোবাইল এপ্লিকেশন সম্পর্কে জানাবো যে সকল মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনগুলি খুবই ট্রাস্টেড এবং যুগের পর যুগ বহু বছর যাবত সার্ভিস দিয়ে আসছেন।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 

এছাড়াও আমি যে সকল মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে জানাবো সেই সকল অ্যাপ্লিকেশন খুব সহজে আপনি গুগল প্লে স্টোর থেকে ফ্রিতে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। তো চলুন আমি এইরকম কিছু মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে জানায় যেগুলিকে ব্যবহার করে আপনি টাকা আয় করতে পারবেন –

Earn with Ysense apps দিয়ে টাকায়

অনেকেরই অনেক পরিচিত একটি এপ্লিকেশন আবার অনেকেরই একদম নতুন পরিচয় এই এপ্লিকেশনটি। এ এপ্লিকেশনটি খুব সহজে আপনি গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড বা ইন্সটল করে নিতে পারবেন। এই অ্যাপ্লিকেশনটি ১২ বছর যাবত বাংলাদেশে বিভিন্ন ধরনের সার্ভিস দিয়ে আসছে। এবং এই অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে আপনি প্রতিদিন কিন্তু 500 থেকে 1000 টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। এবং এই অ্যাপ্লিকেশনের নিজস্ব ওয়েবসাইটও রয়েছে ওয়েবসাইটকে ব্যবহার করেও আপনি টাকা আয় করতে পারবেন। এই অ্যাপ্লিকেশনে দুইটি মাধ্যমকে ব্যবহার করে আপনি টাকা আয় করতে পারবেন।

১) পেইড সার্ভে

২) এফিলেট মার্কেটিং।

এই দুইটি মাধ্যমকে কিভাবে ব্যবহার করে প্রফেশনালি আপনি টাকা আয় করবেন সে বিষয়ে জানতে অবশ্যই অ্যাপলিকেশনটি সম্পর্কে আরও জানুন।

Meesho apps দিয়ে টাকায়

আরেকটি অনলাইনে টাকা আয় করার জনপ্রিয় মোবাইল এপ্লিকেশন। মিশো মোবাইলে অ্যাপ্লিকেশনটি কে বলা হয় রেফারেল আর্নিং মানি এপ্লিকেশন।

এই অ্যাপ্লিকেশনটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ফাস্টে আপনি ডাউনলোড বা ইন্সটল করে নিন।

আপনি মোবাইলে অ্যাপ্লিকেশন থেকে বিভিন্ন ধরনের পোশাক রয়েছে এই পোশাকগুলি আপনি রিসেল করেও টাকা আয় করতে পারবেন। এছাড়াও আপনি রেফারেল করে অন্য কাউকে এই অ্যাপস এ যুক্ত করেও কমিশন হিসেবে টাকা আয় করতে পারবেন।

আপনি যখন এটি ডাউনলোড করে ইন্সটল করবেন গুগল প্লে স্টোর থেকে তখন আপনি নিজেই বুঝে যাবেন কিভাবে এর ব্যবহার করতে হবে এছাড়াও তাদের ভিডিও টিউটেরিয়াল রয়েছে।

Swagbucks apps দিয়ে টাকায়

এই মোবাইলে অ্যাপ্লিকেশনটি কিছুটা মাইক্রো জব ওয়েবসাইটের মত। আপনি খুব সহজে গুগল প্লে স্টোর থেকে ওয়েবসাইট ইন্সটল করে নিতে পারবেন। এই ওয়েবসাইটে আপনি ছোট ছোট ভিডিও দেখেও টাকা আয় করতে পারবেন। এছাড়াও অসংখ্য সহজ সহজ কাজ রয়েছে যেগুলি থেকে আপনি টাকা আয় করতে পারবেন।

PhonePe apps দিয়ে টাকায়

বর্তমানে এই মোবাইল এপ্লিকেশনটি টাকা উপার্জন করার জন্য খুবই জনপ্রিয়। এই আপ্লিকেশনটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ইন্সটল এবং ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। এই অ্যাপ্লিকেশনটিতে বিভিন্ন ধরনের আয়র উৎস রয়েছে।

Roz Dhan apps দিয়ে টাকা আয়

এই মোবাইলে অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে আপনি গেমস খেলে টাকা আয় করতে পারবেন।

অর্থাৎ সম্পূর্ণ এই অ্যাপ্লিকেশনটি শুধুমাত্র গেমস খেলে আপনি টাকা আয় করতে পারবেন।

বর্তমানে অনেকে এখান থেকে প্রতিদিন গেমস খেলে ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা আয় করছে।

Loco apps দিয়ে টাকা আয়

এ এপ্লিকেশনটির মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন ধরনের গেমসের লাইভ স্ট্রিমিং প্রশ্ন অ্যানসার করে টাকা আয় করতে পারবেন।

অর্থাৎ যারা সাধারণ জ্ঞান সম্পর্কে বিভিন্ন আইডিয়া রয়েছে এবং সাধারণ জ্ঞান ভালো তারা কিন্তু এই অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে অনায়াসে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা প্রতিদিন আয় করতে পারবেন।

এই অ্যাপ্লিকেশনটি গুগল প্লে স্টোর থেকে আপনারা সার্চ করে নিয়ে নিতে পারবেন।

Dream11 apps দিয়ে টাকা আয়

Dream11 হল একটি জনপ্রিয় ফ্যান্টাসি স্পোর্টস প্ল্যাটফর্ম যেখানে আপনি আপনার নিজস্ব ভার্চুয়াল দল তৈরি করতে পারেন এবং ক্রিকেট, ফুটবল, বাস্কেটবল এবং হকির মতো ম্যাচে অংশগ্রহণ করতে পারেন।

বিশেষ করে ক্রিকেট থেকে অর্থ উপার্জনের জন্য এটি একটি অ্যাপ, কারণ আপনি আপনার দলের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে পয়েন্ট পাবেন। আপনি লিডারবোর্ডে শীর্ষে থাকলে, আপনি নগদ পুরস্কার জিততে পারেন।

MCent apps দিয়ে টাকা আয়

mCent ব্রাউজার একটি মোবাইল ব্রাউজার, যেটি ব্যবহার করে আপনি পয়েন্ট অর্জন করবেন। এটি একটি মোবাইল অর্থ উপার্জনের অ্যাপ যেখানে আপনি একটি নিউজ পোর্টাল পড়ে, ভিডিও নেটওয়ার্ক এবং সামাজিক ভিডিও সাইটগুলি ব্রাউজ করে পয়েন্ট উপার্জন করতে পারেন৷

অ্যাপটি আপনার প্রতিদিনের ইন্টারনেট ব্যবহার ট্র্যাক করে এবং আপনার ব্রাউজিং অভ্যাসের ভিত্তিতে আপনাকে পয়েন্ট বা mCent ব্রাউজার দিয়ে পুরস্কৃত করে।

উপরের এই সকল মোবাইল এপ্লিকেশনের মাধ্যমে অনায়াসে আপনি প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা মোবাইলে এপ্লিকেশন থেকে মোবাইল দিয়ে আপনি টাকা আয় করতে পারবেন।

এর পাশাপাশি আমি আপনাদেরকে আরেকটি ওয়েবসাইটের সন্ধান দিব যে এই ওয়েবসাইটকে ব্যবহার করে একদম আপনার প্রতিদিন ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা আয় করতে পারবেন বাংলাদেশি টাকা।

workupplace.com এ মাইক্রো জব ওয়েব সাইটটি বর্তমানে খুবই জনপ্রিয়। এই ওয়েবসাইটে আপনি একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করে নিবেন। এরপরে ওয়েব সাইটে থাকা ছোট ছোট মাইক্রো জব যেমন – ভিডিও দেখে, facebook ফলোয়ার, ওয়েব সাইট ভিজিটের মত ছোট ছোট মাইক্রো জব কমপ্লিট করে আপনি নগোত বিকাশের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।

এই ওয়েবসাইটটি সম্পর্কে জানত নিচের এই ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করে ইউটিউবে ভিডিওগুলি দেখুন।

Apps দিয়ে টাকা আয় সম্পর্কিত কিছু প্রশ্ন উত্তর

মোবাইল দিয়ে কি কাজ করে টাকা আয় করা যায়?

হ্যাঁ আপনি চাইলে বর্তমানে হাতে থাকা মোবাইল ফোন দিয়ে অনলাইন থেকে হাজার হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

কোন মোবাইল app আয়ের জন্য ভালো?

উপরে আমি যে কয়টি মোবাইল apps নিয়ে আলোচনা করেছি প্রত্যেকটি মোবাইলে অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে আপনি টাকা আয় করতে পারবেন।

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে টাকা আয় করতে কত দিন সময় লাগে?

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে সঠিক গাইডলাইন এবং সঠিক অ্যাপ্লিকেশনে কাজ করলে একদিনেই টাকা আয় করতে পারবেন।

শেষ কথা –

আশা করছি আপনারা যারা মোবাইলে অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাচ্ছেন। এই পোস্টটি সম্পূর্ণ আপনাদেরকে সাহায্য করবে। তাই যদি আপনি উপকৃত হয়ে থাকেন বা কোন পরামর্শ বা মন্তব্য থাকা অবশ্যই জানিয়ে দিবেন।

বিশেষ দ্রষ্টব্য – উপরের পোষ্টের মধ্যে যদি কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে অবশ্যই ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

আরও জানুন-

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার নতুন মাধ্যম (প্রমাণসহ)

গেম খেলে টাকা আয় পেমেন্ট বিকাশে –নগদে -রকেটে

আপনার জন্য আরো 

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৫০৬ other subscribers

SANAUL BARI

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। আমি মো:সানাউল বারী।পেশায় আমি একজন চাকুরীজীবী এবং এই ওয়েবসাইটের এডমিন। চাকুরীর পাশাপাশি গত ১৪ বছর থেকে এখন পর্যন্ত নিজের ওয়েবসাইটে লেখালেখি করছি এবং নিজের ইউটিউব এবং ফেসবুকে কনটেন্ট তৈরি করি।
বিশেষ দ্রষ্টব্য -লেখার মধ্যে যদি কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে অবশ্যই ক্ষমার চোখে দেখবেন। ধন্যবাদ।