ফ্রিতে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় | প্রতিদিন ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা

আসসালামু আলাইকুম আশা করছি সকলে ভালো আছেন, একদম ফ্রিতে অনলাইন প্লাটফর্ম ব্যবহার করে ঘরে বসে আপনি প্রতিদিন ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা আয় করার কথা ভাবছেন?

তাহলে আর দেরি করার দরকার নেই সম্পূর্ণ এই পোস্টটি পড়ুন। আজকের পোস্টে আমি আপনাদেরকে এমন কিছু মাধ্যম সম্পর্কে জানাবো যে মাধ্যমগুলি ব্যবহার করে ফ্রিতে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।ফ্রিতে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়

হয়তোবা কথাগুলো আপনার কাছে অবিশ্বাস্যকর মনে হতে পারে কিন্তু আপনাদেরকে এতোটুকু আশ্বস্ত করতে চাই যে, আপনি যদি এই মাধ্যমগুলিকে সঠিক ব্যবহার করেন সঠিকভাবে কাজ করেন ধৈর্য সহকারে আপনি আপনার অভিজ্ঞতাটাকে আরও বেশি কাজে লাগান তাহলে আমি হান্ডেট পার্সেন্ট আপনাদেরকে আমার অভিজ্ঞতা থেকে আপনাদেরকে শিওরিটি দিব আপনি অবশ্যই ফ্রিতে অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

ফ্রিতে অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে কি লাগে?

আপনি ফ্রিতে অনলাইন থেকে টাকা আয় করতেও আপনাকে কয়েকটি বিষয় বা কয়েকটি জিনিস আপনার অবশ্যই থাকতে হবে।

  • কম্পিউটার অথবা মোবাইল একটি ডিভাইস ইন্টারনেট সংযোগসহ আপনার দরকার হবে।
  • প্রতিদিন ধারাবাহিকতা ঠিক রেখে এক থেকে দুই ঘণ্টা কাজ করার সময় থাকতে হবে।
  • সবচাইতে ফ্রিতে অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে হলে আপনার যে বিষয়টি দরকার তা হচ্ছে আপনার ধৈর্য। আপনি ধৈর্য ধরে অনলাইনের যে মাধ্যমগুলি আলোচনা করব সে মাধ্যমের যেকোনো একটিকে নিয়ে যদি কাজ করেন তাহলে অবশ্যই আপনি সফল হবেন।

উপরের এই সকল বিষয় মাথায় রেখে আপনি বাকি পোস্টটি পড়া শুরু করুন।

ফ্রিতে অনলাইন থেকে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা প্রতিদিন আয় করার উপায়

প্রথমে আমরা জানবো যে ফ্রিতে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা প্রতিদিন অনলাইনে কোন প্লাটফর্ম গুলি ব্যবহার করে আয় করা সম্ভব। এরপরে আমরা বড় বড় অনলাইন থেকে ফ্রিতে লাইফ টাইম পর্যন্ত আয় করার প্ল্যাটফর্ম সম্পর্কে জানব ইনশাল্লাহ।

ফ্রিতে অনলাইনে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা প্রতিদিন আয় করার ক্ষেত্রে আমি আজকে আপনাদেরকে একদম বিশ্বস্ত দুটি ওয়েবসাইটের সন্ধান দিবো।এই দুইটি ওয়েবসাইট থেকে প্রতিদিন আপনি ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন পাশাপাশি আপনি নগদ বিকাশ রকেটের মাধ্যমে এই টাকাটি প্রতিদিনের টাকা প্রতিদিন উইথড্র নিতে পারবেন।

শূন্য থেকে কিভাবে ঘরে বসে মোবাইল এপ্লিকেশন দিয়ে টাকা আয় করবেন?

প্রথম ওয়েবসাইট – www.workupplace.com  এই ওয়েবসাইটটি বর্তমানে বাংলাদেশে খুবই বিশ্বস্ত এবং জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট। এই ওয়েবসাইটের মূল কাজ হচ্ছে মাইক্রো জব। অনেকে আবার ভাবছেন যে মাইক্রো জব কি? মাইক্র জব হচ্ছে ছোট ছোট অনলাইন ভিত্তিক কাজ। আপনি এই ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করে ফ্রিতে প্রতিদিন অসংখ্য এই ছোট ছোট কাজগুলি করে টাকা আয় করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইটে যেই সকল কাজ আপনি করবেন -ইউটিউবের ভিডিও, ফেসবুকের ভিডিও, ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার, ফেসবুক ফলোয়ার, ওয়েবসাইট ভিজিট, টিকটক ফলোয়ার, টুই টাওয়ার ফলোয়ার এছাড়াও সোশ্যাল মিডিয়ার সম্পর্কিত অনেক ছোট ছোট কাজ।

এখানে আপনি সবসময় এই ছোট কাজগুলি আপনি দেখতে পাবেন যেই কাজগুলি কমপ্লিট করার বিনিময় আপনি প্রতিদিন ফ্রিতে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন।

এই ওয়েবসাইটে কিভাবে কাজ করবেন কিভাবে একাউন্ট তৈরি করবেন কিভাবে পেমেন্ট উইথড্র দিবেন এ টু জেড এই বিষয়গুলি জানতে ইউটিউবে গিয়ে সার্চ করুন “work up place ” এই ওয়েবসাইটের ইউটিউব চ্যানেলটি আপনার সামনে চলে আসবে সেখান থেকে আপনি ভিডিও দেখে। উপরের এই সকল বিষয় সম্পর্কে আরো বেশি জানতে পারবেন।

দ্বিতীয় ওয়েবসাইট – workupjob.com এই ওয়েবসাইটটিও বর্তমানে প্রতিদিন ফ্রিতে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা আয় করার বিশ্বস্ত একটি বাংলাদেশী ওয়েবসাইট। এই ওয়েবসাইটটিকেও ব্যবহার করে আপনি ঘরে বসে বিভিন্ন ধরনের ছোট ছোট জব কমপ্লিট করে প্রতিদিন ভালো মানের টাকা আয় করতে পারবেন।

এটিও একটি মাইক্রো জব ওয়েবসাইট। এই ওয়েবসাইটে কিভাবে অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন কিভাবে কাজ করবেন কিভাবে পেমেন্ট পাবেন এই সম্পর্কে জানতে অবশ্যই ওয়েবসাইটটি আপনি ভিজিট করবেন।

রিসেলিং মার্কেটিং করে প্রতিদিন ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা আয় করার উপায়

রিসেলিং শব্দটি বা মার্কেটিং শব্দটি শুনেই লেখাটা পড়া বন্ধ করে দিবেন না?  সঠিক গাইডলাইন থাকলে আপনি আপনার হাতে থাকা স্মার্ট মোবাইল ফোনে অথবা কম্পিউটার ডিভাইস ব্যবহার করে প্রতিদিন একদম ফ্রিতে অনলাইনে আপনি রিসেলিং করে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন।

রিসেলিং মার্কেটিং কি?

ডিজিটাল রিসেলিং মার্কেটিং হচ্ছে, বর্তমানে অনেক প্লাটফর্ম আছে ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম যারা এ রিসেলিং সিস্টেমটি তাদের ওয়েবসাইটে চালু করে রেখেছে। আপনি অনলাইনের মাধ্যমে তাদের প্রোডাক্ট নিয়ে আপনার নামে আপনি বিক্রয় করতে পারবেন এবং সেই প্রোডাক্টের কমিশন প্রতিদিন আপনি আপনার বিকাশ নগদ রকেটের মাধ্যমে নিতে পারবেন। এরকমই একটি বিশ্বস্ত জনপ্রিয় বাংলাদেশি সরকার অনুমোদিত ওয়েবসাইটের আমি সম্পর্কে আপনাদেরকে জানিয়ে দিব।

সাইটের নাম -shopup reseller

এই সাইট আপনি মোবাইল এপ্লিকেশনেও ব্যবহার করতে পারবেন এছাড়া সরাসরি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে করতে পারবেন।

  • এই সাইটে প্রথমে আপনার একটা একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।
  • এরপরে আপনার একাউন্টের এ জিনিসটা অসংখ্য হাজার হাজার প্রোডাক্ট চলে আসবে।
  • আমি সেই প্রোডাক্টগুলি আপনি সোশ্যাল মিডিয়া অথবা অন্যান্য মাধ্যমে অনলাইনের মাধ্যমে সেল করতে হবে।
  • এবং সেল করা পণ্যটি খুব দ্রুত ডেলিভারি হয়ে যাবে কাস্টমারের ঠিকানায়।
  • কাস্টমার আপনার প্রোডাক্ট রিসিভ করার সঙ্গে সঙ্গে আপনার একাউন্টে কমিশনের টাকাযুক্ত হয়ে যাবে।
  • এভাবে আপনি যত বেশি প্রোডাক্ট রিসেল করবেন তত বেশি কমিশন আকারে টাকা পাবেন।
  • বর্তমানে এই ওয়েবসাইটে ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষ মোবাইল অথবা কম্পিউটার ডিভাইসে অনলাইনে রিসেলিং বিজনেস করছে।

এছাড়াও এই ওয়েবসাইটটি আপনাকে শেখাবে এবং পরামর্শ দেবে এবং আপনাকে সাহায্য করবে রিসেলিং এ আপনি বেশি বিজনেস কিভাবে করবেন এবং বেশি টাকা আয় করবেন।

ক্যাপচা এন্ট্রি বা ডাটা এন্ট্রি করে টাকা আয়

বর্তমানে খুবই জনপ্রিয় এন্ড্রয়েড স্মার্ট মোবাইল ফোন দিয়ে ক্যাপচা এন্ট্রি বা ডাটা এন্ট্রির কাজ করে হাজার হাজার ছেলে মেয়ে প্রতিদিন ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত ঘরে বসে আয় করছে।

ক্যাপচস এন্ট্রি কাজ করার জন্য আপনার টাইপিং স্পিড ভালো থাকতে হবে।

আরে কাজ আপনি কম্পিউটার অথবা মোবাইল থেকেও করতে পারবেন।

তাই দেরি না করে যাদের টাইপিং স্পিড ভালো ডাটা এন্ট্রির মত কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে তারা ক্যাপচা এন্ট্রি বা ডাটা এন্ট্রি করে পলাশী প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন একদম ফ্রিতে।

ফ্রিতে ব্লগার ওয়েবসাইট তৈরি করে টাকা আয়

আপনি ফ্রিতে টাকা আয় করতে চাইলে blogger.com গুগলের এই ফ্ল্যাট ফ্রম থেকে একদম ফ্রিতে ওয়েবসাইট তৈরি করে। সেই ওয়েবসাইটে এক নেটওয়ার্ক গুগল এডসেন্স এর মত 100 ভাগ করে অন আছে আপনি প্রতি মাসে ৩০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবে।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 

প্রথমে আপনি গুগলে গিয়ে ব্লগার লিখে সার্চ করবেন। এরপরে আপনার সামনে ব্লগার ওয়েবসাইটটি চলে আসবে। সেখানে আপনি আপনার জিমেইল আইডি থেকে ওয়েবসাইট তৈরি করে নিবেন। ওয়েবসাইট তৈরি করা হলে একটি ফ্রি ট্যাবলেট আপনি ইন্সটল করবেন। এরপর ব্লগার ওয়েবসাইটে আপনি আপনার লেখালেখি করে সেগুলো পোস্ট করবেন। ৩০ থেকে ৪০ টি পোস্ট করা হয়ে গেলে গুগল এডসেন্সের জন্য আবেদন করবেন। গুগল এডসেন্সে আপলোড পেয়ে গেলেই সেদিন থেকে ইনকাম শুরু হয়ে যাবে।

আর এই প্লাটফর্মে কাজ করার সবচাইতে সহজ বিষয় হলো সম্পূর্ণ বাংলায় আপনি এখানে সবকিছু দেখতে পারবেন।

আশা করছি আপনারা যারা ফ্রিতে টাকা আয় করতে চাচ্ছেন?  তারা খুব সহজেই এই ব্লগার ওয়েবসাইটে আপনার ওয়েবসাইটটি তৈরী করে অন আসে আপনি প্রতি মাসে লাখ লাখ হাজার হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

ফ্রিতে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে আয় করুন

অনেকে আবার ভাবছেন যে YouTube চ্যানেল তৈরি করে YouTube চ্যানেল থেকে কি যে কেউ আয় করতে পারে কিনা? হ্যাঁ বর্তমানে YouTube থেকে আয় করার অনেকগুলি মাধ্যম রয়েছে।

একটি ইউটিউব থেকে অনেক ধরনের মাধ্যমে বর্তমানে টাকা আয় করা যায়।

  • affiliate মার্কেটিং করে ইউটিউব চ্যানেল থেকে বাড়তি আয় করতে পারবেন।
  • বিভিন্ন ধরনের পণ্যের রিভিউ ভিডিও তৈরি করে সেই কোম্পানি থেকে কমিশনে তাই করতে পারবেন।
  • এছাড়াও বিভিন্ন রানার youtube অথবা কোম্পানির প্রমোশনাল ভিডিও তৈরি করে আয় করতে পারবেন।
  • নিজের পণ্য সেল করে ইউটিউব চ্যানেল আছে তাই করতে পারবে
  • এছাড়াও আপনি ইউটিউব চ্যানেলটি মনিটাইজেশন অন করে গুগল এডসেন্স থেকে লাখ লাখ হাজার হাজার টাকা প্রতি মাসে আয় করতে পারবেন।
  • ইউটিউব চ্যানেলটি মনিটাইজেশন করার জন্য আপনার ইউটিউব চ্যানেলে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং 1000 সাবস্ক্রাইবার হয়ে গেলে আবেদন করতে পারবেন।

আশা করছি আপনারা যারা ফ্রিতে টাকা আয় করতে চান তাদের জন্য এই প্লাটফর্মটি অনেক ভালো হবে।

ফ্রিতে টাকা আয় করা সম্পর্কিত কিছু প্রশ্ন উত্তর

ফ্রিতে কি টাকা আয় করা যায়?

হ্যাঁ বর্তমানে অনলাইনে বিভিন্ন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে একদম আপনি ফ্রিতে টাকা আয় করতে পারবেন।

ফ্রিতে প্রতি মাস কত টাকা আয় করা যায়?

ফ্রিতে আপনি বিভিন্ন ধরনের অনলাইন এর ট্রাস্টের প্লাটফর্ম ব্যবহার করে প্রতি মাসে ৩০ থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন।

ফ্রিতে সবাই আয় করতে পারে না কেন?

সবাই করতে পারে না কারণ ফ্রিতে আয় করার জন্য প্রচুর পরিমাণে ধৈর্য এবং ইচ্ছে থাকতে হবে।

অনলাইন থেকে ফ্রিতে টাকা আয় করতে সঠিক গাইডলাইন কি পরিমান দরকার?

ফ্রিতে আয় করার জন্য সঠিক গারলাইন সবচাইতে প্রয়োজনীয়।

শেষ কথা – উপরের এই সকল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে অন আসে আপনি হাতে থাকা মোবাইল ফোন অথবা কম্পিউটার ডিভাইসকে ব্যবহার করে। প্রতি মাসে অনলাইন থেকে হাজার হাজার টাকা আমি আয় করতে পারবেন।

আরও জানুন-

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার নতুন মাধ্যম (প্রমাণসহ)

গেম খেলে টাকা আয় পেমেন্ট বিকাশে –নগদে -রকেটে

আপনার জন্য আরো 

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪৯২ other subscribers

 

প্রতিদিন আপডেট পেতে আমাদের নিচের দেয়া এই লিংক এ যুক্ত থাকুন

SS IT BARI- ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন

SS IT BARI- ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এখানে ক্লিক করুন।
SS IT BARI- ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে :এখানে ক্লিক করুন এবং দারুণ সব ভিডিও দেখুন।

SS IT BARI- টুইটার থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- লিংকদিন থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- ইনস্টাগ্রাম থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুম্বলার (Tumblr)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- পিন্টারেস্ট (Pinterest)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SANAUL BARI

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। আমি মো:সানাউল বারী।পেশায় আমি একজন চাকুরীজীবী এবং এই ওয়েবসাইটের এডমিন। চাকুরীর পাশাপাশি গত ১৪ বছর থেকে এখন পর্যন্ত নিজের ওয়েবসাইটে লেখালেখি করছি এবং নিজের ইউটিউব এবং ফেসবুকে কনটেন্ট তৈরি করি।
বিশেষ দ্রষ্টব্য -লেখার মধ্যে যদি কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে অবশ্যই ক্ষমার চোখে দেখবেন। ধন্যবাদ।