বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সিং সাইট কাজখুঁজি থেকে আয় করুন

Rate this post

বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সিং সাইট “কাজখুঁজি” নিয়ে এলো দারুণ সব সুযোগ-সুবিধা নিয়ে ।বাংলাদেশে এখন ফ্রিল্যান্সিং সাইট গুলোর মধ্যে কাজখুঁজি সাইটটি খুবই পপুলার এবং জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। তাই আজকে আমি আপনাদেরকে জানাবো -কাজ খুজি ওয়েবসাইট থেকে কিভাবে আপনি ফ্রিল্যান্সিং করে ঘরে বসেই হাজার হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

কাজখুঁজি ওয়েবসাইট থেকে কাজ করার জন্য কি কি জিনিস দরকার?

  • ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য ধৈর্য।
  • কম্পিউটার অথবা স্মার্ট মোবাইল ফোন।
  • ভালো মানের ইন্টারনেট সংযোগ

উপরের এই কয়টি জিনিস থাকলেই আপনি “কাজখুঁজি” ওয়েবসাইট থেকে ভালো মানের একটি ইনকাম করতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং কি?

ফ্রিল্যান্সিংকে সংক্ষেপে যদি বলি তাহলে বলতে হবে ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে একটি মুক্ত পেশা আপনি ঘরে বসেই নিজের ইচ্ছা মত কাজ করে ইনকাম করার একটি মাধ্যম।

অর্থাৎ একজন ক্রেতা একটি নির্দিষ্ট কাজের জন্য একটি কাজ/প্রজেক্ট পোস্ট করেন। সারা বিশ্বের অনেক ফ্রিল্যান্সার যারা এই কাজটি করতে আগ্রহী তারা একজন যোগ্য ফ্রিল্যান্সার খুঁজে পান কাজটি করার জন্য এবং তার সাথে কাজটি করিয়ে নেন। অনেক ক্ষেত্রে, চাকরির পোস্টিং ছাড়াও, ক্রেতারা তাদের কাজের জন্য যোগ্য ফ্রিল্যান্সারদের খুঁজে পেতে ফ্রিল্যান্সারদের প্রোফাইল তথ্য বা অন্য উপায়ে খোঁজ করে।

একজন ফ্রিল্যান্সার একটি প্রদত্ত কাজের জন্য একজন ক্রেতার কাছ থেকে পূর্ব-নির্ধারিত পরিমাণ অর্থ পান। সংক্ষেপে, ফ্রিল্যান্সিং সাইট বা মার্কেটপ্লেস হল সেই মাধ্যম যার মাধ্যমে একজন ক্রেতা তার প্রয়োজনীয় কাজ একজন ফ্রিল্যান্সারের সাথে একটি নির্দিষ্ট ফি দিয়ে করিয়ে নিতে পারেন।

বর্তমান সময়ের আরেকটি জনপ্রিয় পেশা হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং। অনেক তরুণ বাংলাদেশি তাদের দক্ষতা এবং সৃজনশীলতাকে পুঁজি করে বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং সাইট বা মার্কেটপ্লেসে সফলভাবে কাজ করছে। তবে ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসের ভিড়ে ছোট-বড়, অনেক নতুন ফ্রিল্যান্সার বুঝতেই পারছেন না কোন মার্কেটপ্লেসে কাজ শুরু করবেন?কোন মার্কেটপ্লেস তাদের জন্য ভালো হবে।

যাইহোক, ভাল খবর হল যে www.kajkhuji.com.bd  মাতৃভাষা বাংলায় একটি ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম, বাংলাদেশে অনলাইন পেশাদারদের জন্য চালু করা হয়েছে।

 বাংলাদেশি  মার্কেটপ্লেসে কাজ করলে লাভ কী?

প্রায় প্রতিটি মার্কেটপ্লেসে কাজের ধরন, পেমেন্ট পদ্ধতিতে কিছু পার্থক্য রয়েছে। বিভিন্ন দেশে ছোট-বড় অনেক ফ্রিল্যান্সিং সাইট রয়েছে যেখান থেকে ফ্রিল্যান্সাররা তাদের দক্ষতা অনুযায়ী বিভিন্ন কাজ পেয়ে থাকে। তবে বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং সাইটের ভিড়ে নতুন ফ্রিল্যান্সাররা প্রায়ই বুঝতে পারেন না কোনটিতে কাজ শুরু করবেন।

এছাড়াও অনেক দক্ষ ফ্রিল্যান্সার আছেন যারা একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে দক্ষ কিন্তু ইংরেজিতে তাদের ভালো দক্ষতা নেই ,তাই তারা কাজটি কীভাবে করবেন তা জানা সত্ত্বেও যোগাযোগের অভাবে কাজটি করতে পারেন না।

এছাড়া অনেক ফ্রিল্যান্সিং সাইট আছে যেখানে বাংলাদেশী পেমেন্ট গেটওয়ে ফ্রিল্যান্সারদের টাকা তুলতে সহায়তা করে না, তাই তাদের অনেক টাকা চার্জ করে অন্য কোনো উপায়ে টাকা আনতে হয়। এর ফলে প্রতি বছর বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রার ক্ষতি হচ্ছে।

আমাদের দেশে অনেক ব্যবসায়ী আছেন যারা তাদের দৈনন্দিন জীবনে অনেক কাজ করার জন্য বিভিন্ন লোককে নিয়োগ করেন। যেমন: গ্রাফিক্স ডিজাইন, পোস্টার ডিজাইন, ফটোগ্রাফি, ডাটা এন্ট্রি ইত্যাদি।কিন্তু অনেক সময় চাকরিদাতারা, অর্থাৎ যারা চাকরি দেন, তাদের পছন্দের কাউকে খুঁজে পান না, ফলে তাদের কাজ ভালো হয় না।তাই কাজখুজি আপনাদের এসকল সমস্যার সমাধান নিয়ে এসেছে।

এখানে কাজ করে আপনি ধীরে ধীরে ইংরেজি শিখতে পারবেন এবং আন্তর্জাতিক বাজারের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে পারবেন। আপনি এখন ভালো ইংরেজি না জানলেও, আপনি আপনার দক্ষতা ব্যবহার করতে পারেন। সুতরাং এটি আপনার জন্য দুটি সুবিধা হবে। এক, আপনি দক্ষতা অনুযায়ী এখনই কাজ পেতে পারেন। দ্বিতীয়ত, আপনি আর্থিকভাবে সচ্ছল হতে পারেন এবং প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট থেকে যোগাযোগমূলক ইংরেজির মতো অন্যান্য দক্ষতা অর্জন করতে পারেন।

কাজখুঁজি সাইটে অ্যাকাউন্ট করার নিয়ম

ধাপ-১ঃপ্রথমে আপনি আমাদের এই লিঙ্ক থেকে কাজখুজি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন এবং “Register”অপশন এ ক্লিক করুন।

 কাজখুঁজি সাইটে অ্যাকাউন্ট করার নিয়ম

ধাপ-২ঃএরপরে আপনার সামনে রেজিস্টার ফরম চলে আসবে সেখান থেকে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় সব ডাটা দিন ।যেমন- জেন্দার দিন,আপনার নাম,মাইল এড্রেস দিন।এবং Sing Up অপশন এ ক্লিক করুন।

রেজিস্টার ফরম

এরপর Sing Up এর দ্বিতীয় ধাপ আপনার সামনে আসবে সেখান থেকে আপনার ঠিকানা নির্বাচন করুন,পাসওয়ার্ড দিন এবং অ্যাকাউন্টের ধরন ফ্রিল্যান্সার সিলেক্ট করুন।

কাজখুঁজি সাইটে অ্যাকাউন্ট করার নিয়ম

এরপর Sing Up এর তিতিয় ধাপে আপনার রেজিস্টার কমপ্লিটের অপশন আসবে এবং আপনি সেখান থেকে ড্যাশবোর্ড এ ক্লিক করু এখন আপনার অ্যাকাউন্ট রেডি ।এখন জাস্ট আপনি আপনার মেইল ভেরিফিকেসন করে নিন।

ড্যাশবোর্ড

ধাপ-২ঃ এছাড়ায়ও অফারসুমহ বলে একটা লাইভ অফার অপশন আছে আপনি চাইলে সেখান থেকেও বাড়তি ইনকাম করতে পারেন।

অফারসুমহ

তবে এখানে একটা কথা না বল্লেয় না, আপনি Sing Up এর দ্বিতীয় ধাপে অ্যাকাউন্টের ধরন এই অপশন এ অবশ্যই ২টি অপশন পাবেন কাজ এই সাইটে দেয়া এবং কাজ করা,অতএব এখানে আপনি কাজ করে চান না কাজ দিতে চান সেটা ভালভাবে বুজে নির্বাচন করুন।এখন আপনি তাদের নির্দেশনা মেনে কাজ শুরু করে দিন এবং ইনকাম করুন।

কাজখুঁজিতে কাজ করার সুবিধা কি

এই  মার্কেটপ্লেসে অনেক অসাধু লোক আছে যারা কাজ শেষ করার পর অজুহাত দেখাতে শুরু করে। আজকে দিব , কাল দিব, বিকেলে দিব এরকম কথা বলে আর টাকা দেইনা। ফলে ফ্রিল্যান্সারের সময় ও শ্রম নষ্ট হয় এবং দ্বিতীয়ত, ফ্রিল্যান্সিংয়ের প্রতি বিদ্বেষ তৈরি হয়। তাই কাজকুঁজিতে এরকম কোন সমস্যা নাই।

যোগাযোগ -ফ্রিল্যান্সিং সাইটের কথা বলতে গেলে প্রথমেই যে জিনিসটি মাথায় আসে তা হল Upwork, Fiber, Freelancer.com ইত্যাদি। কিন্তু সেই সাইটগুলিতে চাকরি পেতে বা কাজ করতে হলে আমাদের অবশ্যই ইংরেজিতে ভালো দক্ষতা থাকতে হবে। সেখানে প্রায় সব ক্রেতাই বিদেশি, যাদের সঙ্গে আমাদের ইংরেজিতে কথা বলতে হবে।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 

আমাদের দেশে অনেক ফ্রিল্যান্সার আছেন যারা ইংরেজি বলতে পারেন না কিন্তু তাদের সেই বিষয়ে যথেষ্ট দক্ষতা রয়েছে যা ইংরেজি ভাষা তাদের দক্ষতা এবং কাজের মধ্যে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। kajkhuji.com.bd বা কাজখুঞ্জি ওয়েবসাইট সম্পূর্ণ মাতৃভাষা বাংলায়। এখানে সবাই বাংলাদেশী তাই যোগাযোগে কোন সমস্যা হবে না।

পেমেন্ট সুবিধাঃ– একজন ফ্রিল্যান্সার বাংলাদেশি পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে তার অর্থ সংগ্রহ করতে পারবেন। চাকরিপ্রার্থী সাধারণত 48-62 ঘন্টার জন্য অর্থপ্রদানের অনুরোধটি ধরে রাখে যাতে নিয়োগকর্তা যদি তার দ্বারা করা কাজটিতে কোনও সমস্যা খুঁজে পান তবে তিনি সেই ফ্রিল্যান্সারের সাথে এটি পুনরায় করাতে পারেন। এবং চাকরিপ্রার্থীরা বলছেন যে তারা স্বচ্ছভাবে অর্থপ্রদান প্রক্রিয়া করে।

একজন ফ্রিল্যান্সার আগে থেকে দেখে নিতে পারেন কোন কাজ শেষ করার পর তার অ্যাকাউন্টে কত টাকা জমা হবে। সুতরাং আপনি একটি কাজ বা মাইলফলক শেষ করতে পারেন এবং এর অর্থপ্রদান বুঝতে পারেন এবং পরবর্তী কাজের দিকে যেতে পারেন।

আপনি মোবাইল আর্থিক পরিষেবা যেমন বিকাশ, নগদ, রকেট ইত্যাদি থেকে এবং ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে চাকরির সন্ধান থেকে অর্থ উত্তোলন করতে পারেন। এখানে পেপ্যাল, পাইওনিয়ার বা অন্যান্য বিদেশী পরিষেবার প্রয়োজন নেই।

গিগ পাবলিশঃ:- সাধারণত একজন সফল ফ্রিল্যান্সার শুধু প্রজেক্ট/জব করেই অর্থ উপার্জন করে না। তিনি তার গিগ বা পরিষেবা বিক্রি করে প্রচুর অর্থ উপার্জন করেন যা আমরা ফাইবার গিগের দিকে তাকালে দেখতে পাই। তাই সবচেয়ে জনপ্রিয় ফিচার হল জব সার্চ ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্ম।

এখানে একজন ফ্রিল্যান্সার আগে থেকেই গিগ আকারে পোস্ট করতে পারেন যে কোন কাজ তিনি ইতিমধ্যেই করেছেন বা সেই কাজে দক্ষ। এটি করার মাধ্যমে একজন ক্রেতা/নিয়োগকারী সহজেই তার এই পরিষেবা/গিগটি কিনতে পারবেন। এছাড়াও, নিয়োগকর্তা চাইলে, তিনি এই পরিষেবা/গিগ সম্পর্কে ফ্রিল্যান্সারের সাথে আগাম চ্যাট করতে পারেন।

ফ্রিল্যান্সিং সাইটগুলো এখন বিশ্ববাজারের অন্যতম বড় বাজার, যেখানে হাজার হাজার কোটি টাকার লেনদেন হচ্ছে। ফ্রিল্যান্সাররাও আমাদের দেশে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ে আসে।

কাজখুঁজি টিম এর স্বপ্ন

স্বপ্ন দেখছে তাদের বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সিং সাইট একদিন বিশ্ববাজারে প্রতিযোগিতা করবে। যারা ইতিমধ্যে Upwork, Freelancer, Fiverr-এর মতো সাইটে কাজ করছেন বা শুরু করতে চান, তারা যদি এই সমস্ত সাইটের পাশাপাশি বাংলাদেশী ফ্রিল্যান্সিং সাইটগুলো একটু সক্রিয় হয়, তাহলে সাইটটির নির্মাতারা এই লোকাল প্ল্যাটফর্মের জন্য ইতিবাচক হবেন বলে আশাবাদী। এটি বেকার সমস্যার একটি ভাল সমাধানও হতে পারে। https://kajkhuji.com.bd/  ভিজিট করুন এবং বাংলা ভাষায় মুক্ত পেশার জীবন শুরু করুন।

শেষ কথাঃএই ধরনের মার্কেটপ্লেসে আপনি ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করার জন্য অবশ্যই ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে আরও অনেক ভালো ধরনের ধারনা থাকতে হবে এজন্য আপনারা চাইলে আমাদের ওয়েবসাইটে ফ্রিল্যান্সার সম্পর্কিত অনেক ধরনের তথ্য দিয়ে পোস্ট করা রয়েছে আপনারা দেখে নিতে পারেন তাহলে আপনার জন্য আরো অনেক সুবিধা হবে।

👉🙏লেখার মধ্যে ভাষা জনিত কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকলে অবশ্যই ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

✅আজ এ পর্যন্তই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন 🤔

প্রয়োজনীয় আরো পোস্ট সমূহ:-

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় নগদ এবং বিকাশে পেমেন্ট
বিকাশে গেম খেলে টাকা ইনকাম করুন (প্রতিদিন ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা)
ব্লগপোষ্ট কনটেন্ট রাইটিং সার্ভিস দিয়ে অনলাইন থেকে টাকা আয় করার উপায়
মোবাইল দিয়ে টাকা আয় পেমেন্ট নগদ এবং বিকাশে

↘️ আমার আরো ওয়েবসাইট সমূহ👇

  • ইংলিশের স্বাস্থ্যকর খাবার সম্পর্কিত ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানতে- – এখানে ভিজিট করুন
  • ফ্রিল্যান্সারদের স্বপ্ন পূরণের ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানতে – এখানে ভিজিট করুন
  • বাংলায় টেকনোলজি সম্পর্কিত ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানতে- – এখানে ভিজিট করুন
  • ফেসবুকে ব্লগিং, ইউটিউবিং, ফেসবুকিং সম্পর্কিত ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানতে –এখানে ভিজিট করুন
  • বাংলায় অনলাইন থেকে টাকা আয় করা সম্পর্কিত ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানতে – এখানে ভিজিট করুন

↘️ আমার ভিডিওগুলো পাবেন যে সকল মাধ্যমে 👇

➡️YouTube চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️Facebook পেজ ফলো করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️Instagram চ্যানেল ফলো করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️WhatsApp চ্যানেল ফলো করে রাখুন – এখানে ক্লিক করুন

➡️Treads চ্যানেল ফলো করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️TikTok চ্যানেল ফলো করে রাখুন-এখানে ক্লিক করুন

➡️Telegram চ্যানেল ফলো করে রাখুন-এখানে ক্লিক করুন

 

Sanaul Bari

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। আমি মো:সানাউল বারী।পেশায় আমি একজন চাকুরীজীবী এবং এই ওয়েবসাইটের এডমিন। চাকুরীর পাশাপাশি গত ১৪ বছর থেকে এখন পর্যন্ত নিজের ওয়েবসাইটে লেখালেখি করছি এবং নিজের ইউটিউব এবং ফেসবুকে কনটেন্ট তৈরি করি। বিশেষ দ্রষ্টব্য -লেখার মধ্যে যদি কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে অবশ্যই ক্ষমার চোখে দেখবেন। ধন্যবাদ।

Leave a Comment