সহজে টাকা লেনদেন করুন নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস দিয়ে

সহজে টাকা লেনদেন করুন নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস দিয়ে-বর্তমানে বাংলাদেশের জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবা হচ্ছে নগদ। দিন দিন গ্রাহকের বৃদ্ধির সাথে সাথে নগদের সুযোগ সুবিধা ও বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে নবোদের গ্রাহকদের যে কোন সমস্যা সহজে সমাধান করতে নগদ নিয়ে এলো তাদের মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস। ঘরে বসে সহজে গ্রাহকরা নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস দিয়ে টাকা লেনদেন করতে পারছে। নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস তৈরির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে গ্রাহকরা যাতে সহজে ঘরে বসে একটি ব্যবহার করে টাকা লেনদেনসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা গুলো ভোগ করতে পারে। নগদ একাউন্ট সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যায় পাশে আছে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস।সহজে টাকা লেনদেন করুন নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস দিয়ে

SS IT BARI-ভালোবাসার টেক ব্লগের সকল পাঠক পাঠিকা বন্ধুদের আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। সবাইকে আজকের পর্বে স্বাগতম।

বন্ধুরা আজকে যারা।আমাদের আর্টিকেলটিকরবেন তারা নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। মূলত আমাদের আজকের আলোচনা নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস সম্পর্কে। এছাড়াও নগদ একাউন্ট সম্পর্কে খুঁটিনাটি আরো কিছু বিষয় আজকের আর্টিকেলে তুলে ধরা হবে।

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং কি

বাংলাদেশের ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেনের আরেক নাম নগদ। নগদ মোবাইল ব্যাঙ্কিং সেবা বর্তমানে বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় একটি মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবা। যার মাধ্যমে বাংলাদেশের অনেক মানুষ টাকা লেনদেন করে থাকে দেশের যে কোন প্রান্ত থেকে যেকোন প্রান্তে। বাংলাদেশে বর্তমানে 15 টি অধিক মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান রয়েছে যার মধ্য তুলনামূলকভাবে নগরদের ক্যাশ আউট চার্জ কম। নগদের ক্যাশ আউট চার্জ কম হওয়ায় এর গ্রাহক সংখ্যা বেশি।

নগদ একাউন্ট চেক কোড

নগদের ভালো সুযোগ সুবিধার কারণে ধীরে ধীরে এর গ্রাহক সংখ্যা বাড়ছে। নগদ ব্যাংকিং সেবার মাধ্যমে মাত্র অল্প কিছু সময়ের মধ্য দেশের যেকোন প্রান্ত থেকে টাকা পাঠানো সম্ভব হচ্ছে। এবং নগদ বাংলাদেশের জনপ্রিয় একটি মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবা হওয়ায় এর রয়েছে অসংখ্য ক্যাশ আউট পয়েন্ট যেখান থেকে গ্রাহকরা নিজের ইচ্ছামত টাকা তুলতে পারছে।

একজন গ্রাহকের নগদ একাউন্ট খুলতে প্রয়োজন তার জাতীয় পরিচয় পত্র। বর্তমানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যাপক প্রসারের কারণে নগদ এপ্লিকেশন থেকে বা নগদ অ্যাপ থেকে আপনি নিজের একাউন্ট নিজেই খুলে নিতে পারবেন। শুধুমাত্র আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র ব্যবহার করে। এবং এজন্য কোন চার্জ প্রযোজ্য নয়।

নগদ বাংলাদেশের এমন একটি মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবা যেখানে টাকা জমা রাখলে গ্রাহককে সেখান থেকে একটি আকর্ষণীয় ইন্টারেস্ট দেওয়া হয়। এই ইন্টারেস্ট পেতে একজন গ্রাহককে তার একাউন্টে মাসের প্রথম থেকে ৩০ দিন পর্যন্ত যে পরিমাণ ব্যালেন্স জমা তিনি রাখবেন তার ওপর ভিত্তি করে নির্ধারিত হারে ইন্টারেস্ট সুবিধা দেওয়া হবে।

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস

নগদের গ্রাহকদের ম্যাক্সিমামই এখন ব্যবহার করছে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস।নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এর মাধ্যমে গ্রাহকরা ঘরে বসে খুব সহজেই দেশের যেকোনো প্রান্তে টাকা লেনদেন করতে পারছে। গ্রাহকদের লেনদেন সুবিধা প্রদান করাই নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এর মূল উদ্দেশ্য। নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপসটির বর্তমান রেটিং রয়েছে ৪.৪/৫.০। নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এর মাধ্যমে গ্রাহকরা কিছু বাড়তি সুবিধা পেয়ে থাকে।

অনেক সময় দেখা যায় কোড ডায়াল করে লেনদেনের জন্য আপনাকে একটু ঝামেলায় পড়তে হতে পারে নেটওয়ার্কিং সমস্যায়।তবে যদি আপনি অ্যাপটি ব্যবহার করেন তাহলে ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত থাকলে অ্যাপটি আপনি ব্যবহার করতে পারবেন যেকোন স্থানে।

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপসের সুযোগ সুবিধা

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপটি গ্রাহকদের বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধা প্রদান করে থাকে।

১) নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এর মাধ্যমে গ্রাহকরা ক্যাশ ইন করতে পারে।

২) নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এ যে কোন সময় টাকা তুলতে পারবে।

৩) নগদের একাউন্ট থেকে কখন কত টাকা রিচার্জ হয়েছে খরচ হয়েছে তার হিসাব পাওয়া যায় মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপসে। নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এর সহজেই তিন মাস পর্যন্ত লেনদেনের পূর্ণাঙ্গ বিবরণ পাওয়া যায়।

৪) যেকোনো সময় যে কোন স্থান থেকে নগদ অ্যাপ দিয়ে মোবাইল রিচার্জ করা যাবে।

৫) নগদের একাউন্ট চেক করতে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপসটি ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

৬) একজন গ্রাহকের নগদ একাউন্টের মিনি স্টেটমেন্ট দেখতে সাহায্য করে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস।

৭)নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এর মাধ্যমে মুনাফা বন্ধ করা ও একাউন্ট এর ধরন পরিবর্তন করা যায়।

৮) মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এর মাধ্যমে মোবাইল ব্যাংকিং সেবার লেনদেনের লিমিট চেক করা যায়।

৯) নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এর নগদে কি কি অফার দেওয়া হয়েছে সে সমস্ত অফার সম্পর্কে জানা যায়।

১০) নগদ মোবাইল ব্যাংকিং কোড ব্যবহার করে সেন্ট মানি করলে নগদে পাঁচ টাকা করে চার্জ কাটা হয়। কিন্তু অ্যাপস এর মাধ্যমে বড় একটি সুবিধা হল সেন্ট মানিতে কোন প্রকার চার্জ কাটা হয় না।

নগদ অ্যাপ স্ক্যানার

যেকোনো শপিং মলের শপিং করার ক্ষেত্রে অথবা যেকোনো এজেন্ট স্পট থেকে ক্যাশ আউট করার ক্ষেত্রে নগদ স্ক্যানার ব্যবহার করে সহজেই তা করা যাবে। নগদ স্ক্যানার দিয়ে স্ক্যান করতে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপসটি থাকা বাধ্যতামূলক। নগদে স্ক্যানার দিয়েছেন স্ক্যান করলে গ্রাহকের নাম্বারটি অটোমেটিক্যালি চলে আসবে। কোনরকম ঝামেলা ছাড়া সহজে স্বল্প সময়ের মধ্যে ক্যাশ আউট কিংবা ক্যাশ ইন করতে নগদ স্ক্যানার ব্যবহার করা উত্তম।

নগদে ক্যাশ আউট সাশ্রয়

নগদেব ব্যবহার করার একটি বড় সুবিধা হচ্ছে অ্যাপের মাধ্যমে ক্যাশ আউট চার্জ কম কাটা হয়। নগদের কোট ব্যবহার করে ক্যাশ আউট করলে চার্জ কাটা হয় পনেরো টাকা হাজারে। কিন্তু নগদ অ্যাপ ব্যবহার করে কোন গ্রাহক যদি এজেন্ট থেকে ক্যাশ আউট করে তাহলে চার্জ কাটা হবে হাজারে ১১.৪৯ টাকা। অ্যাপস ব্যবহার করে ক্যাশ আউট করার সহজ এবং সাশ্রয়। শুধুমাত্র তাই নয় নগদ অ্যাপস এর মাধ্যমে ক্যাশ আউটে সময় ও কম লাগে। তাই সহজে কম চার্জ দিয়ে ক্যাশ আউট করতে নগদ অ্যাপস ব্যবহার করুন।

নগদ অ্যাপস এর মাধ্যমে ব্যাংক একাউন্ট থেকে নগদে অ্যাড মানি

শুধুমাত্র নগদ অ্যাপ এর মাধ্যমে যদি চান আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বা কার্ড থেকে নগদ একাউন্টে কোনরকম চার্জ ছাড়া টাকা এড করতে পারেন। এটি শুধুমাত্র নগদ অ্যাপস ফিচার যা নগদ কোড ব্যবহার করে করা যাবে না। আপনি যদি নগদ অ্যাপস এর মাধ্যমে অ্যাড মানি করতে চান তাহলে দুটি অপশন পাবেন। একটি হলো ব্যাংঙ্ক টু নগদ এবং আরেকটি হল কার্ড টু নগদ।

ব্যাঙ্ক টু নগদ অপশনটিতে ক্লিক করলে আপনি তালিকাভুক্ত কিছু নির্দিষ্ট ব্যাংক থেকে আপনার নগদ একাউন্টে টাকা এড করতে পারবেন। কার্ড টু নগদ হতেআপনি চাইলে বাংলাদেশের যে কোন ব্যাংকের ভিসা বা মাস্টার কার্ড হতে টাকা এড করতে পারবেন নগদ একাউন্টে।

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস ব্যবহারের পদ্ধতি

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপসটি আপনি ব্যবহার করে সহজেই নগদের অ্যাকাউন্ট চেক করতে পারবেন। যদি কোন গ্রাহকের মোবাইলের নগদ অ্যাপস না থাকে তাহলে প্লে স্টোর থেকে নগদ অ্যাপ লিখে সার্চ করলে নগদ অ্যাপ চলে আসবে। সেখান থেকে আপনি ডাউনলোড অপশনে ক্লিক করে নগদ অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

*প্রথমে নগদ অ্যাপটি ইন্সটল করার পর নগদ অ্যাপ ওপেন করবেন।

*নগদ অ্যাপটি ওপেন করার পর আপনি একটি লগইন করে নিবেন আপনার নগদ মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট নাম্বার দিয়ে।

*নগদ একটি লগইন করার পর আপনি নগদে প্রবেশ করে tap for balance এই অপশনটি পাবেন আপনার নগদ একাউন্ট চেক করার জন্য।

*এরপর ট্যাব ফর ব্যালেন্সে ক্লিক করে আপনি আপনার নগদ একাউন্টে কত টাকা রয়েছে সেটি দেখতে পাবেন খুব সহজেই।

নগদের ক্যাশ আউট ফি

বর্তমানে নগদ বাংলাদেশের একটি জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস এর কারণ হলো নগদে কম মূল্যে ক্যাশ আউট সহ বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট অতি সহজেই পাওয়া যায়। নগদ মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবার ডাক বিভাগের একটি ডিজিটাল লেনদেনের অংশ হিসেবে অল্প দিনেই বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস গুলোর তুলনায় নগদে কম রেটে ক্যাশ আউট সুবিধা দিয়ে আসছে নগদ প্রতিনিধিরা। বিভিন্ন প্রকার চার্জ সহ নগদে ক্যাশ আউট খরচ হাজারে মাত্র ১৪ টাকা। যদিও কিছু কিছু বিজ্ঞাপনে ক্যাশ আউট চার্জ 9 টাকা বলে ভুল তথ্য দেওয়া হয়।

সরকারি ভাতা সমূহ নগদে

নগদের যাত্রা শুরুর পর থেকে এর গ্রাহক সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এর সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করার সাথে সাথে। নগদের মাধ্যমে বিভিন্ন সরকারি ভাতা গুলো প্রদান করা হয় যার কারণে নগদে গ্রাহক সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। নগদের মাধ্যমে সরকারি ভাতা সমূহ;

বয়স্ক ভাতা

সরকারের প্রশংসনীয় কাজের অন্যতম একটি কাজ হল বয়স্কদের ভাতা প্রদান করা। সরকারি এই ভাতা প্রতি তিন মাস পর পর বয়স্কদের প্রদান করা হয় নগদ মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবার মাধ্যমে।

বিধবা ভাতা

অসহায় বিধবাদের জন্য সরকার থেকে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ভাতা প্রদানের ব্যবস্থা রয়েছে। পূর্বে ব্যাংকের লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে গ্রাহকদের এই ভাতা গ্রহণ করতে হতো। কিন্তু বর্তমানে মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবার যুগে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে সরকার এই ভাতা জনগণের নিকট পৌঁছে দিচ্ছে।

উপবৃত্তির টাকা

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের আগ্রহী করতে উপবৃত্তি প্রদান করার ব্যবস্থা সরকার থেকে প্রচলিত। আগে নির্দিষ্ট কোন স্থানে গিয়ে ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবকদের এই টাকা নিতে হতো।কিন্তু বর্তমানে সকল উপবৃত্তি বৃত্তির টাকা নগদ একাউন্টের মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের প্রদান করা হয়।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন

নগদ একাউন্ট চেক করার জন্য কোন ধরনের ঝামেলা গ্রাহককে পোহাতে হয় না। কেউ যদি নগদ চেক কোডের মাধ্যমে একাউন্ট চেক করতে ঝামেলা মনে করে সে খুব সহজেই নগদের মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপসটি ডাউনলোড করে নগদের একাউন্ট ব্যালেন্স চেক করতে পারে।

সুতরাং বলা যায় নগদের একাউন্ট দেখার নিয়ম খুবই সহজ।ঘরে বসে গ্রাহকরা খুব সহজে অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং সুযোগ সুবিধার মতোই নগদের একাউন্ট চেক করা মোবাইল রিচার্জ করা ইত্যাদি কাজগুলো করতে পারছে। নগদ একাউন্ট এর সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে আপনাকে অবশ্যই একজন নগদ মোবাইল ব্যাংকিং গ্রাহক হতে হবে।

সচরাচর জিজ্ঞাসা

নগদের একাউন্ট চেক কোড কত?

উত্তর: নগদ এর অ্যাকাউন্ট চেক কোড *১৬৭#‌।

নগদ কোন বিভাগের অংশ?

উত্তর:বর্তমানে জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবার নগদ ডাক বিভাগের একটি ডিজিটাল লেনদেন পরিষেবা।

নগদের অ্যাকাউন্ট দেখার পদ্ধতি কয়টি?

উত্তর: নগদ এর অ্যাকাউন্ট দেখার পদ্ধতি দুইটি;

১) নগদ একাউন্ট চেক কোড এর মাধ্যমে।

২) নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এর মাধ্যমে।

শেষ কথা-

প্রিয় পাঠক পাঠিকা বন্ধুরা আশা করছি আপনারা আজকের আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়েছেন। যারা নগদের মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস সম্পর্কে জানতেন না তারা অবশ্যই আজকের আর্টিকেলটি পড়ে জানতে পেরেছেন। আমার আর্টিকেলটি যদি আপনাদের সামান্য উপকারে আসে সেখানেই আমার সার্থকতা।

যদি আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটটি এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য আপনার বন্ধুদের সাথে আমাদের ওয়েবসাইটটি শেয়ার করবেন। যেকোনো প্রয়োজনে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না। আজকের মত পোস্ট এ পর্যন্তই। সকলেই সুস্থ থাকুন।

পোস্ট ট্যাগ-

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং ব্যালেন্স চেক কোড,নগদ একাউন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত,নগদে সর্বনিম্ন কত টাকা সেন্ড মানি করা যায়,নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম,নগদ app,নগদ app download,নগদ কাস্টমার কেয়ার নাম্বার,নগদে ক্যাশ আউট চার্জ কত।

আপনার জন্য আরো –

আপনার জন্য-

নগদের এজেন্টের কমিশন কত?

মোবাইল ব্যাংকিং বলতে কি বুঝ ও মোবাইল ব্যাংকিং এর অসুবিধা

মোবাইল ব্যাংকিং কয়টি ও কি কি

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং ডিলার হতে কি লাগে

মোবাইল ব্যাংকিং বলতে কি বুঝ ও মোবাইল ব্যাংকিং এর অসুবিধা

উপায় মোবাইল ব্যাংকিংয়ে কি সুবিধা পাবেন?

উপায় মোবাইল ব্যাংকিং কোড কত

উপায় অ্যাকাউন্ট খোলার সহজ পদ্ধতি

নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম ২০২৩

উপায় ক্যাশ আউট ও সেন্ড মানি খরচ কত

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন.

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪৯২ other subscribers

 

প্রতিদিন আপডেট পেতে আমাদের নিচের দেয়া এই লিংক এ যুক্ত থাকুন

SS IT BARI- ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন

SS IT BARI- ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এখানে ক্লিক করুন।
SS IT BARI- ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে :এখানে ক্লিক করুন এবং দারুণ সব ভিডিও দেখুন।

SS IT BARI- টুইটার থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- লিংকদিন থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- ইনস্টাগ্রাম থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুম্বলার (Tumblr)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- পিন্টারেস্ট (Pinterest)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS It BARI JOB NEWS

SS IT BARI-ভালোবাসার টেক ব্লগ টিম