শীতে ত্বকের যত্ন নিন রুটিন মাফিক

শীতে ত্বকের যত্ন-বছরের অন্যান্য ঋতুগুলোর চেয়ে শীতের মৌসুমে ত্বকের প্রয়োজন হয় বাড়তি যত্নের। এ সময় আমাদের ত্বক নিয়ে সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়। কারণ শীতে মৌসুম ফুস্কুড়ির, শুকনো এবং ফ্লেক্সি প্যাচের মত সমস্যা নিয়ে আসে। এসব সমস্যা ত্বকের ডিহাইড্রেশনের লক্ষণ। এর ফলে হ্রাস পায় ত্বকে আদ্রতা। এ সমস্ত ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার হাত থেকে রেহাই পাওয়ার ক্ষেত্রে শীতে ত্বকের যত্ন নিতে হয় রুটিন মাফিক।শীতে ত্বকের যত্ন নিন রুটিন মাফিক

আমাদের আজকের আলোচ্য বিষয় হচ্ছে কিভাবে শীতে রুটিন অনুযায়ী ত্বককে সুস্থ ও সুন্দর রাখতে ত্বকের যত্ন নিতে হয়। আশা করি আপনারা এই বিষয় নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য পেয়ে উপকৃত হবেন। এবং ত্বকের প্রতি যত্নশীল হবেন।

শীতের মৌসুমে ত্বকের যত্ন নিতে মধু ব্যবহার করুন

শীতে সবচেয়ে বড় কাজ হল ত্বকের যত্ন। ঋতু পরিবর্তন যে শুধু প্রকৃতির ওপর প্রভাব ফেলে তা নয় প্রভাব ফেলে আমাদের মনের উপর এবং আমাদের ত্বকের উপরও। তবে সঠিক রুটিন মেনে চলে ত্বকের যত্ন নিলে  তা ত্বকের ভেতর পুষ্টি এনে দেবে।

শীতকালে ত্বকের যত্নে কিছু প্রয়োজনীয় টিপস

*শীতকালে ত্বকে আদ্রতা ধরে রাখতে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন।

*ত্বককে সুন্দর রাখতে শীতকালে প্রচুর পরিমাণে শাকসবজি খাওয়ার চেষ্টা করবেন।

*শীতকালে এলোভেরা জেল এবং মধু ত্বকের জন্য একটি উপকারী প্রাকৃতিক উপাদান যা মশ্চারাইজারের ভূমিকা পালন করে।অ্যালোভেরা জেল এর সাথে মধু মিশিয়ে ব প্যাক তৈরি করে মুখে লাগিয়ে 10 মিনিট রেখে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেললে ত্বক কোমলতা পায়।

ভিডিও-আপনার ইমু (imo)অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে আছে কিনা? এখনই চেক করুন

*শীতকালে শুধু ত্বক নয় আমাদের ঠোঁটে ও সমস্যা দেখা দেয়।এই সময় ঠোঁট ফেটে যায় ঠোঁট থেকে রক্ত বেরিয়ে আসে এসব সমস্যার দূরীকরণে ঠোঁটে ব্যবহার করুন গ্লিসারিন বা ভেসলিন।

*শীতকালে অবশ্যই ভালো ময়শ্চারাইজার ইউজ করতে হবে তবে যাদের মুখে ব্রণের সমস্যা বেশি থাকে তারা মশ্চারাইজার এর সাথে সামান্য পানি মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

*শীতে বাইরে যাওয়ার আধাঘন্টা আগে ত্বকে সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন।শীতে ত্বকের যত্ন নিন রুটিন মাফিক

প্রতিদিন ত্বক এক্সফুলিয়েট করুন

বেশিরভাগই শীতকালে ত্বকে মৃত কোষের জন্ম হয়। এটি ফলিকল গুলোকে আটকে দেয় এবং ত্বকের বিকিরণের ক্ষেত্রে বাধার সৃষ্টি করে। সুতরাং আপনার ত্বকে মৃত কোষের বিল্ডআপ ঠেকাতে সপ্তাহে দুবার আপনার ত্বক এক্সফলিয়েট করুন।

ক্লিনজার ব্যবহার করুন

শীতে ত্বকের জন্য ক্লিনজার ব্যবহার করা খুব জরুরী।তবে মাথায় রাখতে হবে যেহেতু শীতের ত্বক এমনিতেই শুষ্ক থাকে তাই এমন ধরনের ক্লিনজার ব্যবহার করতে হবে যাতে ত্বক আরো বেশি শুষ্ক না হয়ে যায়। ত্বকের আদ্রতা যেন বজায় থাকে।

শীতের জন্য ডি আই ওয়াই ফেস মাস্ক

ফেস মাস্ক আপনার ত্বককে হাইড্রেট  করতে পারে ত্বক থেকে ময়লা অপসারণ করতে পারে। মধু মালাই বা দুধের ফেসমাস্ক শীতের জন্য সর্বোত্তম। এটি ত্বককে মশ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। মধু আপনার ত্বকের ব্রণ বৃদ্ধির জন্য দায়ী ব্যাকটেরিয়া অপসারণ করে। এক চামচ মালাই এর সাথে এক চামচ মধু মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে পনেরো মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে করে আপনার ত্বক মসৃণ ও কোমল হবে।

কুসুম গরম পানি ব্যবহার করুন

শীতে তাপমাত্রা কম থাকায় ঠান্ডা পানি দিয়ে গোসল মুখ মন্ডলে ধৌত করা সম্ভব হয় না। ফলে বাধ্য হয়ে আমাদের গরম পানি ব্যবহার করতে হয় কিন্তু মনে রাখতে হবে অতিরিক্ত গরম পানির ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। এতে করে ত্বক তার কোমলতা হারিয়ে শুষ্ক হয়ে পড়ে তাই ত্বকের মলিনতা বজায় রাখতে সব সময় শীতে অতিরিক্ত গরম পানি পরিহার করে কুসুম গরম পানি ব্যবহার করতে হবে।

টোনার

শীতে ত্বকের যত্নে টোনার ব্যবহার করা জরুরি। প্রতিদিন মুখ ধোয়ার পরে মুখে টোনার লাগাতে হবে। এক্ষেত্রে আপনার তখন অনুযায়ী টোনার বেছে নিন।

সিরাম

শীতে ত্বকে ভেতর থেকে পুষ্টি জোগাতে আপনার ত্বক অনুযায়ী সীরাম ব্যবহার করুন। এটি ত্বকের মধ্য থাকা বার্ধক্যের ছাপপ দূর করবে। এবং ত্বককে উজ্জ্বল করতে সহায়তা করবে।শীতে ত্বকের যত্ন নিন রুটিন মাফিক

সকালবেলা ত্বকের  পরিচর্যা

শীতকালে সকাল থেকে শুরু করে ঘুমাতে যাওয়ার আগ পর্যন্ত ত্বকের যত্ন  নেওয়া প্রয়োজন। তাই সকাল থেকেই ত্বকের যত্ন শুরু হোক। আপনার ত্বকের ধরন অনুযায়ী একটি কোমল মশ্চারাইজার যুক্ত ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুতে হবে। এছাড়া ঘরোয়া উপায়ে ত্বকের যত্ন নিন।  একটা গাজরের রস মুখে মেখে কিছুক্ষণ পর হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন এতে ত্বক মশ্চারাইজ হবে এবং মুখের দাগ কমে যাবে।

গোসলের সময় ত্বকের পরিচর্যা

গোসলের আগে অলিভ অয়েল বা নারিকেল তেল হালকা গরম করে শরীরের ম্যাসাজ করুন এতে ত্বকের খসখসে ভাব কমে যাবে।এছাড়াও যারা গোসলে সাবান ব্যবহার করবেন তারা আদ্রতা যুক্ত সাবান ব্যবহার করবেন আর মনে রাখবেন অতিরিক্ত গরম পানি দিয়ে গোসল করলে ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তাই ডাক্তারদের পরামর্শ সব সময় হালকা গরম পানি ব্যবহার করুন। গোসলের পর ত্বকে অবশ্যই মশ্চারাইজার ইউজ করবেন।

বাইরে বের হওয়ার আগে ত্বকের পরিচর্যা

শীতকাল বাইরের রোদ আরামদায়ক হলেও তা ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। আমরা অনেকেই শীতকালে বাইরে বের হওয়ার আগে সানস্ক্রিন ব্যবহার করি না যা একটা চরম প্রকারের ভুল শীতকালে অবশ্যই বাইরে বের হওয়ার আগে সানস্ক্রিন মুখে মেখে বের হতে হবে। এতে ত্বক রোদে পোড়া থেকে রেহাই পাবে।

বিকেলে ত্বকের পরিচর্যা

বিকেলে ত্বকে ময়শ্চারাইজার যুক্ত একটি লোশন ব্যবহার করুন এটি সারা শরীরের ত্বকে মাখতে পারেন এছাড়াও বিকেলে ত্বকে মধু লাগিয়ে কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেলতে পারেন এতেও ত্বকের কমলতা বজায় থাকে।

রাতে ত্বকের পরিচর্যা

রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে ত্বকে ক্লিনজিং মিল্ক লাগিয়ে ত্বক পরিষ্কার করুন। রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে ত্বকে স্ক্রাব করা জরুরী তবে তার প্রতিদিন নয়। প্রতিদিন স্ক্রাবিং এ ত্বকের ক্ষতি হয়। রাতে অবশ্যই ত্বকে মশ্চারাইজার ব্যবহার করবেন। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে কোন আরোগনিক অয়েল দিয়ে ত্বক মাসাজ করুন। এতে ত্বক রিলাক্স পায় রাতে ঘুম ভালো হয় ।অন্তত ১৫ মিনিট ম্যাসাজ করলে আপনি উপকৃত হবেন।

শীতে পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করা

শীতে আমাদের পানির তৃষ্ণা কম থাকে তাই আমরা হয়তো আমি কম পান  করে থাকি। এতে করে আমাদের ত্বকের ব্রণের সমস্যা বেড়ে যায় ঠোঁট শুকিয়ে যায়। আরো বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দেয় যার কারণে আমাদের উচিত শীতে বেশি বেশি পানি পান করা।

কিভাবে প্রাকৃতিক উপায়ে শীতে ত্বকের যত্ন নিতে হয়?

শীতে প্রাকৃতিক ভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়াই সর্বোত্তম। প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের যত্ন নিলে ত্বক সর্বদা সতেজ থাকে। প্রাকৃতিক উপাদান গুলো ত্বকে আদ্রতা ধরে রাখে শুষ্কতা দূর করতে সাহায্য করে। শীতে ত্বকের যত্নে মধু অলিভ অয়েল এলোভেরা আমন্ড অয়েল নারিকেল তেল ব্যবহার করলে ত্বক মশ্চারাইজ থাকে এবং ত্বকের কোমলতা বজায় থাকে।

শীতে কেন ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়?

শীতের ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়ার পেছনে বড় একটি কারণ হচ্ছে বাতাসে ত্বকের উপরের আদ্রতা শুষে নেয়। এতে করে ত্বক খসখসে হয়ে যায়। এছাড়াও কেমিক্যাল বা পানির সংস্পর্শে এলেও ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়।

গর্ভাবস্থায় শীতে ত্বকের যত্ন কিভাবে নিব?

একজন সুস্থ মা ই পারে একটি সুস্থ শিশুর জন্ম দিতে। তাই শীতে একজন গর্ভবতী মায়ের ত্বক ও স্বাস্থ্যের যত্ন সম্পর্কে সচেতন থাকতে হয়। গর্ভবতী মায়ের ত্বক ও স্বাস্থ্যের যত্নে যা যা করা উচিত।

*শাকসবজি বেশি পরিমাণে খেতে হবে এতে ত্বক সতেজ থাকবে। তরতাজা ফলমূল  খেলে ত্বকে পুষ্টি পাবে এবং শরীর সুস্থ থাকবে।

*গর্ভবতী মায়ের শীতে ত্বক ও স্বাস্থ্য ভালো রাখতে পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমের প্রয়োজন।

*নিয়মিত ত্বক ক্লিন করতে হবে এতে করে ত্বকের মৃত কোষ দূর হবে। তো ক্লিন করতে ক্লিনজার অথবা ময়শ্চারাইজার যুক্ত ফেসওয়াশ ইউজ করতে পারবেন তবে আপনার ত্বক যদি বেশি সেনসিটিভ হয় সে ক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া জরুরী।

*গর্ভাবস্থায় নিয়মিত ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে ত্বকের শুষ্কতা এড়াতে।

*শীতে গর্ভবতী মায়ের ত্বক ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করতে হবে।

*অবশ্যই এ সময় কৃত্রিম ভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়া কমিয়ে প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়ার চেষ্টা করবেন।

এভাবে রুটিন মাফিক ত্বকের যত্ন নিলে শীতের ত্বকের ক্ষতিকর কবল হতে রক্ষা পাওয়া যাবে। তাই শীতে ত্বকের সুস্থতায় রুটিন মাফিক ত্বকের যত্ন নিতে হবে। শীতে বিভিন্ন ত্বকের সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে ঘরোয়া প্রতিকার সব থেকে ভালো সমাধান। কিন্তু সব সময় ঘরোয়া ভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়া সম্ভব হয় না সেজন্য কৃত্রিম প্রসাধনীর ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 

তবে কৃত্রিম প্রসাধনের ব্যবহারের ক্ষেত্রে আমাদের সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। ক্ষতিকারক কেমিক্যাল যুক্ত প্রসাধনী ত্যাগ করতে হবে। এবং অবশ্যই যার যার ত্বকের ধরন অনুযায়ী কৃত্রিম প্রসাধনী ব্যবহার করতে হবে তা না হলে ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

আপনার জন্য-

শীতে ত্বকের যত্ন কিভাবে নিবেন

শুষ্ক ত্বকের জন্য কোন ক্রিম ভালো

শীতে ত্বকের যত্নে অলিভ অয়েলের ব্যবহার

এবার শীতে ত্বকের যত্নে ঘরোয়া টিপস

কিভাবে শীতে ত্বকের যত্ন নিবেন

যে ভিটামিনের অভাবে বিশ্রাম নিয়েও ক্লান্ত থাকেন

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪৭৬ other subscribers

প্রতিদিন আপডেট পেতে আমাদের নিচের দেয়া এই লিংক এ যুক্ত থাকুন

SS IT BARI- ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন

SS IT BARI- ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এখানে ক্লিক করুন।
SS IT BARI- ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে :এএখানে ক্লিক করুন এবং দারুণ সব ভিডিও দেখুন।
গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে :এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন।
SS IT BARI-সাইটে বিজ্ঞাপন দিতে চাইলে যোগাযোগ করুন :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুইটার থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- লিংকদিন থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- ইনস্টাগ্রাম থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুম্বলার (Tumblr)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- পিন্টারেস্ট (Pinterest)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

কোন অভিজ্ঞতা ছাড়াই অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চাইলে এই ফেসবুক পেজটি লাইক করে সাথেই থকুন : এখানে ক্লিক করুন।

{
“@context”: “https://schema.org”,
“@type”: “FAQPage”,
“mainEntity”: [{
“@type”: “Question”,
“name”: “শীতে কেন ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়?”,
“acceptedAnswer”: {
“@type”: “Answer”,
“text”: “শীতের ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়ার পেছনে বড় একটি কারণ হচ্ছে বাতাসে ত্বকের উপরের আদ্রতা শুষে নেয়। এতে করে ত্বক খসখসে হয়ে যায়। এছাড়াও কেমিক্যাল বা পানির সংস্পর্শে এলেও ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়।”
}
},{
“@type”: “Question”,
“name”: “কিভাবে প্রাকৃতিক উপায়ে শীতে ত্বকের যত্ন নিতে হয়?”,
“acceptedAnswer”: {
“@type”: “Answer”,
“text”: “শীতে প্রাকৃতিক ভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়াই সর্বোত্তম। প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের যত্ন নিলে ত্বক সর্বদা সতেজ থাকে। প্রাকৃতিক উপাদান গুলো ত্বকে আদ্রতা ধরে রাখে শুষ্কতা দূর করতে সাহায্য করে। শীতে ত্বকের যত্নে মধু অলিভ অয়েল এলোভেরা আমন্ড অয়েল নারিকেল তেল ব্যবহার করলে ত্বক মশ্চারাইজ থাকে এবং ত্বকের কোমলতা বজায় থাকে।”
}
}]
}