মোবাইল ঘড়ির দাম ২০২৩ (সেরা স্মার্টওয়াচ)

মোবাইল ঘড়ির দাম –ঘড়ি অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি পরিধানযোগ্য বস্তু। যেকোনো প্রয়োজনে সময় দেখা জরুরি তাই অনেকের কাছে ঘড়ি অবশ্যকীয় পরিধানযোগ্য জিনিস। তবে পূর্বে ঘড়িকে শুধুমাত্র সময় দেখার জন্য ব্যবহার করা হতো কিন্তু বর্তমানে ফ্যাশনের সাথে সাথে প্রযুক্তিগত উন্নয়নের ফলে ঘড়িকে মোবাইল হিসেবেও ব্যবহার করা হচ্ছে। এই মোবাইল ঘড়িকে বলা হয় স্মার্টওয়াচ।

স্মার্ট ফোনের ব্যবহার যোগ্যতা বাড়ার কারণে স্মার্ট ওয়াচ বা মোবাইল ঘড়িগুলো ব্যবহার করে বেশ সুবিধা পাওয়া যায়। এই স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে প্রাথমিকভাবে মোবাইলের কাজগুলো সম্পন্ন করা সম্ভব হয়।মোবাইল ঘড়ির দাম ২০২৩

প্রিয় পাঠক পাঠিকা বন্ধুরা আসসালামুয়ালাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহ। আশা করছি সকলেই ভালো আছেন। আজকে আর্টিকেলে আপনাদের স্বাগতম জানাচ্ছি। বরাবরের মতো আজকেও একটি নতুন আর্টিকেল নিয়ে চলে এসেছি আমি। আজকের আর্টিকেলটি পড়ে আপনারা আশা করছি উপকৃত হতে পারবেন।Samsung  মোবাইল সম্পর্কে আমরা সকলেই জানি।

অনেকেই  মোবাইল ঘড়ি কিনতে ইচ্ছুক থাকেন এবং কেনার আগে এর দাম সম্পর্কে আইডিয়া নিতে চান। তাদেরকে বলব আজকে আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়ুন এবং  মোবাইল ঘড়ি কোন মডেলের কেমন দাম সেই সম্পর্কে ধারণা নিন। তাই আশা করব আজকের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়বেন এবং সাথে থাকবেন।

প্রিয় বন্ধুরা চলুন কথা না চলুন কথা না বাড়িয়ে চলে যাওয়া যাক আজকের মূল আলোচনায়।

মোবাইল ঘড়ি অথবা স্মার্ট ওয়াচ

বর্তমানে মোবাইল ঘড়ি বা স্মার্টওয়াচ সকলেই চেনেন বা এর সম্পর্কে কমবেশি জানেন। স্মার্টফোনের দৌলতে বর্তমানে স্মার্ট ঘড়ি অনেক বেশি জনপ্রিয়। যেকোনো স্থানে যে কোন প্রয়োজনে এই স্মার্ট ওয়াচ ব্যবহার করে যোগাযোগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যায়। এছাড়াও স্মার্টওয়াচ এ বিভিন্ন অ্যাপসের মাধ্যমে বিভিন্ন রকম কার্যসম্পাদন করা যায়। স্মার্টওয়াচ ব্যবহার করে একই সাথে টাইম দেখা সহ মোবাইলের যাবতীয় টুকটাক কাজগুলো আপনি করতে পারবেন।

Samsung মোবাইলের বাংলাদেশ প্রাইস ২০২৩

স্মার্ট ওয়াচ বাজারে আসার পর এর চাহিদা বরাবরই অনেক বেশি থাকে। স্মার্ট ঘড়ি হাতে পড়ে পুরো স্মার্টফোনের সুবিধা পাওয়া যাবে। এই স্মার্ট ওয়াচ এ বিভিন্ন অ্যাপস ডাউনলোড করা যাবে, ব্লুটুথ থেকে সিম কার্ড রেডিও সিস্টেম, এলার্ম ঘড়ি, ডিজিটাল ঘড়ি ইত্যাদি এই ঘড়ির দ্বারা ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া ম্যাপ দেখা ক্ষুদ্র স্পিকার মাইক্রো এইচডি এডজাস্ট এই সমস্ত সুযোগ সুবিধা স্মার্টওয়াচ এ পাওয়া যাবে।

মোবাইল ঘড়ির দাম ২০২৩

বর্তমানে স্মার্টওয়াচ এত বেশি চাহিদা সম্পন্ন যে সকলেই সাধ্যমত স্মার্টওয়াচ ব্যবহার করছে। সাধারণত স্মার্ট ওয়াচ এর দাম অনেক বেশি হয়ে থাকে তবে এর দাম নির্ভর করে কোম্পানি এবং মডেলের উপর ভিত্তি করে। বিভিন্ন কোয়ালিটি স্মার্টওয়াচ রয়েছে যেগুলোর দামও বিভিন্ন রকমের। আপনাদের সুবিধার্থে বিভিন্ন রকমের স্মার্টওয়াচ এর দাম উল্লেখ করা হলো;

অ্যাপেল স্মার্টওয়াচ এর দাম ২০২৩

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং অন্যতম ব্র্যান্ড হচ্ছে অ্যাপেল। অ্যাপেল কোম্পানির বিভিন্ন  জিনিসপত্র অনেক বেশি এক্সপেন্সিভ হয়ে থাকে। অ্যাপেল কোম্পানির একটি স্মার্ট ওয়াচ কিনতে সর্বনিম্ন ৩০ হাজার টাকা গুনতে হবে। তবে হ্যাঁ মডেলের উপর ভিত্তি করে দাম কিছুটায় পার্থক্য হতে পারে।

Huawei স্মার্টওয়াচ এর দাম ২০২৩

হাওয়াই স্মার্টওয়াচের কোয়ালিটির কারণে এটি সকলের কাছে বেশ জনপ্রিয় একটি স্মার্টওয়াচ হিসেবে পরিচিত। এটি বিশ্বের অন্যতম একটি ব্র্যান্ড। এই ব্র্যান্ডের মোবাইল ঘড়িগুলো সাধারণত অনেক বেশি পরিমাণে টেকসই হয়ে থাকে। এর ক্যাপাসিটি ও থাকে অত্যন্ত উন্নত মানের। দীর্ঘদিন পর্যন্ত হাওয়াই স্মার্টওয়াচ ব্যবহার করা যায় এর প্রযুক্তিগত উন্নতির কারণে। হাওয়াই কোম্পানির স্মার্ট ওয়াচ সাধারণত ৩ থেকে ৩ হাজার টাকার মধ্য পাওয়া যায়। তবে মডেল অনুযায়ী দাম কম বেশি হতে পারে।

Z52 pro smart watch

Z52 pro এই মোবাইল ঘড়িটি অত্যন্ত উন্নত ফিচারস দিয়ে তৈরি যা অনেকদিন ব্যবহার করা যাবে। এই ঘড়িটির দামও খুব সাধ্যের মধ্যে।যারা অল্প দামে কোয়ালিটি ফুল স্মার্ট ওয়াচ কিনতে চান তারা নিঃসন্দেহে এই ঘড়িটি কিনতে পারেন। এই ঘড়িটিকে চাইলে আপনি তিন থেকে চার হাজার টাকার স্মার্টওয়াচের সাথে তুলনা করতে পারবেন। ঘড়িটির দাম মাত্র ১৪৯০ টাকা।

ঘড়ির ফিচার:

*১.৯২ ইঞ্চি বড় ডিসপ্লে এবং সাথে রয়েছে ওয়ারলেস চার্জ সুবিধা।

*এছাড়াও রয়েছে ব্লুটুথ কলিং সিস্টেম।

*ঘড়িটির র্্যাম ১৯৬ কেবি এবং রম ১ এমবি + ৬৪ এমবি।

*ঘড়িটিতে রয়েছে মাল্টিপেল টাচ।

*২৮০ MAH Lithium Ion polymer battery ব্যবহার করা হয়েছে ঘড়িটিতে।

*১৬ থেকে ২০ ঘন্টা ব্যাটারি ব্যাকআপ থাকবে এবং ১৫০ মিনিটে ফুল চার্জ হবে।

T55 pro Max smartwatch

বর্তমান সময়ে T55 pro Max smartwatch খুবই আকর্ষণীয় একটি স্মার্টওয়াচ এটি। এবং অল্প দামে ভালো ফিচারসহ এই ঘড়িটি অনেকদিন টিকবে। ঘড়িটির সাথে রয়েছে ডাবল বেল্ট এবং একটি TWS ফ্রি। ঘড়িটি খুবই অল্প দামে পাওয়া যাবে। এই ঘড়িটির দাম মাত্র ১৪৯০ টাকা।

ঘড়িটির ফিচার:

*৫৪ ফুল টাচ স্ক্রিন ডিসপ্লে।

*Built-in 170mAh lithium battery ব্যবহার করা হয়েছে এই ঘড়িটিতে।

*দুই থেকে তিন দিন ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে।

*ব্লুটুথ কলিং সিস্টেম রয়েছে।

*মাল্টি টাচ ডিসপ্লে রয়েছে।

T500 স্মার্ট ওয়াচ

T500 স্মার্ট ওয়াচ বাজারের অন্যতম একটি স্মার্টওয়াচ গুলোর মধ্যে একটি। স্মার্ট ওয়াচ টি কোয়ালিটি ফুল এবং দামে কম হওয়ার কারণে এর জনপ্রিয়তা অনেক। এই ঘড়িটিতে ১.৫৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে ছাড়াও রয়েছে অত্যন্ত ভালো মানের ব্যাটারি ব্যাকআপ সিস্টেম। এই ঘড়িটির দাম মাত্র ৯৯০ টাকা।

ঘড়ির ফিচারগুলো:

*১.৫৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে।

*১২৮ এমবি র্্যাম এবং ১২৮ এমবি রম।

*ব্লুটুথ কলিং সিস্টেম রয়েছে।

*২২০mAh battery সিস্টেম ব্যবহৃত হয়েছে ঘড়িটিতে। 20 থেকে 22 ঘন্টা ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে।

*২৪০×২৪০ স্ক্রিন রেজুলেশন রয়েছে।

*এছাড়াও ঘড়িটির মাল্টিপেল টাচ সিস্টেম রয়েছে।

XINJI COBEE C1 Smart Watch

XINJI COBEE C1 Smart Watch এই স্মার্ট ওয়াচ টি ২০২৩ সালের একটি আকর্ষণীয় স্মার্ট ওয়াচ। খুব অল্প দামে আকর্ষণীয় মোবাইল ঘড়ি যারা খুঁজছেন তাদের জন্য স্মার্ট ওয়াচটি বেস্ট হবে। এত সুন্দর এবং আকর্ষণীয় ভালো ফিচারসহ স্মার্টওয়াচটির দাম মাত্র ২৫৯৯ টাকা।

বাংলাদেশে ওয়ালটন মোবাইলের বর্তমান দাম

স্মার্টওয়াচের ফিচার:

*৬৯ ইঞ্চি TFT HD (240×280) ডিসপ্লে সিস্টেম এবং মাল্টিপেল টাচ সিস্টেম রয়েছে।

*ম্যাগনেটিক চার্জিং সিস্টেম।

*২৬০ mAh ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে।

*৯ দিন ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে।

*Android operating system 5.0 & above -IOS 10.0 & above.

*এই ঘড়িটি 5 ATM ওয়াটার প্রুফ।

*ব্লুটুথ কলিং সিস্টেম রয়েছে।

Xiaomi স্মার্ট ওয়াচ এর দাম

শাওমি মোবাইল ঘড়ি খুবই উন্নত মানের কোয়ালিটি ফুল একটি ঘড়ি হিসেবে পরিচিত। এই ঘড়িটির বিভিন্ন মডেল রয়েছে। বিভিন্ন মডেলের দাম বিভিন্ন রকম। যারা ভালো কোয়ালিটির একটি স্মার্টওয়াচ কিনতে চান এবং তা যেন হয় বাজেট ফ্রেন্ডলি তাদের জন্য শাওমির স্মার্টওয়াচ ভালো হবে বলে আমার পরামর্শ। শাওমি কোম্পানির মোবাইল ঘড়ির দাম সর্বনিম্ন দুই হাজার টাকা থেকে শুরু হয়। যেমন Xiaomi Milan Wo1 মডেলটির দাম মাত্র ২৭০০ টাকা। এছাড়াও আপনার রুচি অনুযায়ী আপনি বিভিন্ন মডেলের শাওমি স্মার্ট ওয়াচ কিনতে পারেন।

স্মার্ট ওয়াচ কেনার ক্ষেত্রে লক্ষণীয়

স্মার্ট ওয়াচ কেনার ক্ষেত্রে কিছু কিছু বিষয় অনুধাবন করে আপনার স্মার্ট ওয়াচ কেনা উচিত যাতে আপনি অনেকদিন তা ব্যবহার করতে পারেন। স্মার্ট ওয়াচ কিনতে লক্ষণীয় বিষয়গুলো হলো:

*ব্যাটারি ক্যাপাসিটি উন্নত মানের।

*ব্লুটুথ স্পিকার থাকা বাধ্যতামূলক।

*এন্ড্রয়েড অ্যাপস সিস্টেম থাকতে হবে।

*ট্র্যাকিং ডিভাইস থাকবে।

*উন্নত মানের আপডেট সিস্টেম সংযুক্ত থাকবে।

স্মার্ট ওয়াচ গুলো স্মার্টলি হাতে ব্যবহার করার জন্য বাজারে বিক্রি হয়। বাংলাদেশে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের স্মার্ট ওয়াচ পাওয়া যায় তবে এর মধ্য গুণমানের পার্থক্য রয়েছে। বিভিন্ন মডেলের স্মার্টওয়াচ গুলোর দাম বিভিন্ন রকমের। অনেক উন্নত মানের স্মার্টওয়াচ রয়েছে আবার খুব সাধ্যের মধ্যে কম দামেও স্মার্টওয়াচ পাওয়া যাবে। তবে কোয়ালিটি সম্পর্কে জানতে চাইলে উন্নত মানের স্মার্ট ওয়াচ গুলো প্রাইস এর দিক থেকে একটু রেঞ্জ বেশি হয়ে থাকে।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 

মোবাইল ঘড়ি বিভিন্ন রকমের হয়ে থাকে সব কোম্পানির মোবাইল ঘড়ির মডেল বাস সিস্টেম এক নাও হতে পারে। তবে স্মার্টওয়াচ গুলো কিনতে গেলে ওয়াটারপ্রুফ দেখে  কেনাই ভালো। যাতে দুর্ভাগ্যবশত পানিতে ভিজলেও এর ভেতরে পানি প্রবেশ করে ঘড়িটি নষ্ট না হয়ে যায়।

সচরাচর জিজ্ঞাসা

একটি নিম্নমানের মোবাইল ঘড়ি কিনতে হলে কত টাকা লাগতে পারে?

উত্তর: আসলে নির্দিষ্টভাবে কোন ঘড়ির দাম বলা যাবে না। তবে কোয়ালিটি এবং মডেলের উপর ভিত্তি করে যদি কম দামে একটি কোয়ালিটি ফুল ঘড়ি কিনতে চান তাহলে ১৮০০ থেকে ২৫০০ টাকার মধ্যে কিনতে হবে।

একটি ওয়াটারপ্রুফ স্মার্ট ওয়াচ কিনতে কত টাকা লাগবে?

উত্তর: একটি ওয়াটারপ্রুফ স্মার্ট ওয়াচ কিনতে সর্বনিম্ন দুই হাজার থেকে পাঁচ হাজার এবং ১০০০০ টাকা লাগতে পারে।

স্মার্টওয়াচ কিনতে গেলে কোন ব্র্যান্ডগুলো ভালো কোয়ালিটির ঘড়ি বাজারে ছাড়ে?

উত্তর: স্মার্ট ওয়াচ কেনার ক্ষেত্রে ভালো কোয়ালিটির ঘড়িগুলো বাজারে ছাড়ে যেসব কোম্পানি সেগুলো হলো অ্যাপেল, শাওমি, huawei।

শেষ কথা-

প্রিয় পাঠক পাঠিকা বন্ধুরা আশা করছি আজকের আর্টিকেলটি আপনারা শেষ পর্যন্ত পড়েছেন ইতোমধ্যেই।আপনাদের অসংখ্য ধন্যবাদ আমাদের আজকের পোস্টটি শেষ পর্যন্ত পড়ার জন্য।আজকের আর্টিকেলটি যদি আপনি শেষ পর্যন্ত পড়ে থাকেন তাহলে আজকের আর্টিকেলের বিষয়বস্তু সম্পর্কে আপনি ধারণা নিতে পেরেছেন। আমাদের আজকের আর্টিকেলের বিষয়বস্তু ছিল মোবাইল ঘড়ির দাম ২০২৩ সম্পর্কে।আমার আর্টিকেলটি যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তবে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।আজকের মত এই পর্যন্তই। সকলেই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।

পোস্ট ট্যাগ-

স্মার্ট ঘড়ির দাম কত,মোবাইল ঘড়ি বাংলাদেশ দাম,মোবাইল ঘড়ির ব্যাটারি দাম,টাচ ঘড়ির দাম কত,ভালো স্মার্ট ওয়াচ,মোবাইল ঘড়ি ব্যবহার,স্মার্ট ওয়াচ হাত ঘড়ি মোবাইল দাম।

আপনার জন্য আরো –

আপনার জন্য-

২০২৩ সালের সেরা ক্যামেরার ফোন সমূহ

টেকনো মোবাইলের দাম ২০২৩

২০২৩ সালে ১৩ হাজার টাকার মধ্যে সেরা তিন স্মার্টফোন

২০২৩ সালের ৩০০০ টাকার মধ্যে সেরা কিছু স্মার্ট মোবাইল ফোন

১০০০ টাকার মধ্যে মোবাইল ফোন ২০২৩

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন-

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪৯২ other subscribers

SS It BARI JOB NEWS

SS IT BARI-ভালোবাসার টেক ব্লগ টিম