মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি ২০২৩ এবং মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করার উপায়

মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি –বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম। আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। সম্মানিত ভিজিটর বন্ধুরা আশা করছি সকলে ভালো আছেন। আলহামদুলিল্লাহ আমিও ভালো আছি। বরাবরের মতো আমি আজকে চলে এসেছি আপনাদের জন্য নতুন একটি আর্টিকেল নিয়ে। মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি কত টাকা এই সম্পর্কে অনেকেরই জানা নেই কিংবা মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন কিভাবে করতে হয় এই বিষয়টিও অনেকের অজানা।মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি

বন্ধুরা আপনাদের এই অজানা বিষয়ে জানাতে আজকে আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়তে হবে কারণ আজকে আমরা এই আর্টিকেলে তুলে ধরার চেষ্টা করব মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি ২০২৩ সালে কত টাকা এবং মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন কিভাবে করতে হবে। তাই এই সম্পর্কে জানতে অবশ্যই শেষ পর্যন্ত সাথে থেকে আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়তে হবে।

আর কথা না বাড়িয়ে চলে যাচ্ছি আমাদের আজকের মূল আলোচনায়।

মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন

আমাদের মধ্যে অনেকেই একটি ভুল ধারণা পোষণ করে যে বাইক রেজিস্ট্রেশন করা হয় দুই বছর কিংবা ১০ বছরের জন্য আসলে বিষয়টির মোটেও ঠিক নয়। মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন হয় একবার। আর মোটরসাইকেলের ট্যাক্স টোকেন পড়ানো হয় দুই বছর কিংবা ১০ বছরের জন্য। মোটরসাইকেলের ট্যাক্স টোকেন এবং রেজিস্ট্রেশন বিষয়ে দুটো কি একই? না বন্ধুরা, মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন এবং ট্যাক্স টোকেন বিষয় দুটো এক নয়।

Bajaj Twinner: এবার কি বাইক নিয়ে ভাবছে বাজাজ যেনে নিন

বাংলাদেশ সড়ক আইন ২০০৮ অনুযায়ী প্রত্যেক মোটরযান রেজিস্ট্রেশন করা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে রেজিস্ট্রেশন ছাড়া কেউ যদি মোটরযান চালু করে সে ক্ষেত্রে সে আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ করবে।যার কারণে অবশ্যই আপনাকে মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করতে হবে বাধ্যতামূলকভাবে সাথে সাথে টেক্সট টকেন আপনার প্রয়োজন হবে।

মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি ২০২৩

মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করাতে অনেকেই মনে করেন ব্যয়বহুল একটি বিষয়।কিন্তু আসলে বর্তমান সময়ে মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করানোর খরচ অনেকটাই কম যা পূর্বে ছিল অনেক বেশি। ২০২২ সাল পর্যন্ত মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফ্রি ছিল ১০১৫২ টাকা কিন্তু ২০২৩ সালে এসে এই রেজিস্ট্রেশন ফি কিছুটা বাড়ানো হয়েছে।

২০২২ সালে মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি করা হয়েছে ১২২৬৭ টাকা। তবে অনেকেই মনে করেন মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করতে ৩০ হাজার টাকার মতো লাগে।কিন্তু বন্ধুরা মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করতে ৩০ হাজার টাকা না লাগলেও মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন প্লাস ট্যাক্স টোকেন বের করতে আপনাকে ৩০ হাজার টাকা গুনতে হবে।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 

অর্থাৎ একটি মোটরসাইকেল আপনি যদি বৈধ উপায়ে চালাতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার ৩০ হাজার টাকা লাগবে। যেমন এখন যদি আপনি ১০ বছরের জন্য একটি ট্যাক্স টোকেন বের করতে চান আপনার মোটরসাইকেলের তাহলে আপনাকে ১৭ হাজার টাকা গুনতে হবে এবং রেজিস্ট্রেশন করতে ১২ হাজার ২৬৭ টাকা লাগবে অর্থাৎ মোট আপনাকে 29267 টাকা বলতে হবে। আলটিমেটলি আপনি দেখতে পাচ্ছেন আপনাকে একটি মোটরসাইকেল রাস্তায় নামাতে ৩০০০০ টাকা ১০ বছরের জন্য গুনতে হচ্ছে। ‌

মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করার পদ্ধতি

মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করতে গেলে কিছু সুনির্দিষ্ট নিয়ম-নীতিরষ মেনে চলতে হয়‌। মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র লাগে।তাই প্রথমেই দেখিনি মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রগুলো কি কি;

মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করার জন্য আপনাকে যে সব কাগজপত্র গুলো সঙ্গে নিতে হবে সেগুলো হল:

১) পাসপোর্ট ও স্টাম্প সাইজের ছবি।

২) ডিলার শোরুম থেকে দেওয়া মানি রিসিপ্ট ও ডেলিভারি Challan।

৩) আমদানি সংক্রান্ত কাগজপত্র।

৪)ডিলার বা শোরুম কর্তৃক পরিশোধিত মোটরসাইকেলের ভ্যাট চালানোর কপি কর চালান পত্র।

৫) যে আমদানি কারক আমদানি করেছেন তার ভ্যাট পরিষদের সোনালী ব্যাংকের ট্রেজারি চালান।

৬) বিক্রয়ের ইনভয়েস প্যাকিং লিস্ট গেট পাস।

৭) কাস্টমস শুল্ক রশিদ ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

৮) ব্যক্তি মালিকানাধীন আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয় পত্র/পাসপোর্ট টেলিফোন বিল/ বিদ্যুৎ বিল ইত্যাদি যে কোনটির সত্যায়িত ফটোকপি।

ড্যামন হাইপার ফাইটার:ইলেকট্রিক বাইকের জগতে নতুন নক্ষত্র 273 কিমি টপ স্পিড নিয়ে বাজার এ আসছে

৯) ড্রাইভিং লাইসেন্স (লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স হলেও চলবে)।

১০) মালিক প্রতিষ্ঠান হলে প্রতিষ্ঠানের প্যাডে চিঠি (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।

১১)একাধিক ব্যক্তি যৌথভাবে কোন গাড়ির মালিক হলে সে ক্ষেত্রে একজনের নামে রেজিস্ট্রেশন এর জন্য সকলের সম্মতি সম্বলিত হলফনামা (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।

১২)ব্যাংক অথবা অর্থলোভনী প্রতিষ্ঠানের সাথে গাড়ির মালিকানার আর্থিক সংশ্লিষ্টতা থাকলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের প্যাডে রেজিস্ট্রেশন কর্তৃপক্ষ বরাবর আবেদন (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।

১৩)নিলামে ক্রয় কৃত প্রতিরক্ষা বিভাগের গাড়ির ক্ষেত্রে লোকবুকে বর্ণিত প্রস্তুতক কাল ও প্রস্তুতকারকের বিস্তারিত বিবরণ সম্বলিত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রদত্ত ছাড়পত্র (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।

১৪)নিলামে ক্রয় কৃতক সরকারি আধা সরকারি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের গাড়ির ক্ষেত্রে নিলাম সংক্রান্ত কাগজপত্র এবং মেরামতের বিস্তারিত বিবরণ (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।

অনলাইনে মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করার পদ্ধতি

https://BSP.brta.gov.bd এই ওয়েবসাইট থেকে মূলত অনলাইনে মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করা যাবে।

প্রথমত,https://BSP.brta.gov.bd ওয়েবসাইট টি নিবন্ধন করে লগইন করুন।

দ্বিতীয়ত, মোটরযান নিবন্ধন মেরু থেকে মোটরযান নিবন্ধন এর আবেদন অপশনে যান। সেখানে আপনার প্রয়োজনীয় সকল তথ্য দিয়ে আবেদনটি সাবমিট করুন।

সবশেষে আবেদনের প্রিন্ট কপি ও সকল প্রয়োজনীয় কাগজপত্র বিআরটিএ অফিসে জমা দিন।

অনলাইনের মোটরসাইকেলের রেজিস্ট্রেশন ফি পরিশোধ

অনলাইনে মোটরসাইকেল এর রেজিস্ট্রেশন ফি পরিশোধ করতে হলে নিন্মুক্ত ধাপে আপনাকে ফি পরিশোধ করতে হবে।

১)https://BSP.brta.gov.bd ওয়েবসাইটে নিবন্ধন অপশনে গিয়ে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র ও জন্ম তারিখ দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

২) একটি পাসওয়ার্ড সেট করে মোবাইলে ওটিপি দিয়ে একাউন্ট ভেরিফাই করে নিন।

৩) লগইন করে বিভিন্ন সেবার ফি > মোটরযান নিবন্ধন সংক্রান্ত ফি অপসনে যান।

৪) মোটরযানের ধরন ও শ্রেণী (৫০ সিসি পর্যন্ত স্মল ৫০ থেকে ১২৫ সিসি পর্যন্ত মিডিয়াম এবং ১২৫ সিসির বেশি হলে লার্জ) সিলেক্ট করুন।

৫) তারপর ইঞ্জিন নাম্বারের ঘরে নির্ভুলভাবে আপনার ইঞ্জিন নাম্বারটি লিখুন, চেসিস নাম্বারের ঘরে চেসিস নাম্বার লিখুন, সিসির নাম্বারের ঘরে সিসির নাম্বার লিখুন। মোটরসাইকেল আসন সংখ্যা দুইটি বোঝাই গাড়ির ওজন ও খালি গাড়ির ওজন শোরুম থেকে দেওয়া কাগজ দেখে দুইবার যাচাই করে দেখুন।

৬)ভাড়ায় চালিত হায়ার পারচেস ও নতুন মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশনের জন্য মালিকানা পরিবর্তনের ঘরের নো সিলেক্ট করুন।

৭) রোড ট্যাক্স কিস্তির ঘরে ফাস্ট ইনস্টলমেন্ট অনলি সিলেক্ট করবেন।ফার্স্ট ইনস্টলমেন্ট হলো দুই বছরের জন্য আর ফুল পেমেন্ট মানে ১০ বছরের জন্য ট্যাক্স সহ রেজিস্ট্রেশন। উৎপাদন বছরের ঘরে আপনার গাড়ির উৎপাদনের বছর লিখুন যা শোরুম থেকে দেওয়া কাগজের মধ্য দেওয়া আছে।

৮)এই পর্যায়ে মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন যার নামে করা হবে তার নাম পিতার নাম ঠিকানা মালিকানার ধরন সবকিছু লিখে আবার চেক করে “এগিয়ে যান” বাটনে ক্লিক করুন।

৯) আপনার সকল তথ্য ঠিক আছে কিনা যাচাই করে নিন। এরপর কি কি ফি বাবদ কত টাকা দিতে হবে তার পরিমাণ ভ্যাট ও মোর টাকার পরিমান দেখানো হবে।

১০)সবকিছু সঠিক থাকলে আপনি ফি জমা দিন বাটনে ক্লিক করে দিন এখানে মোবাইল নাম্বারের ঘরের পাশে ঠিক বাক্স ক্লিক করে নাম্বারটি কনফার্ম করুন। আবারো অবশ্যই মোটরসাইকেলের চেসিস নাম্বারটি চেক করে নিবেন। কারণ ফি জমা হবে টাকাগুলো জমা হবে চেসিস নাম্বারের পরিচিতিতে।

১১)আপনি ফ্রি জমা দিতে বিকাশ/ রকেট/ কার্ড সিলেক্ট করতে পারবেন। এগ্রি ট্রামস এন্ড কন্ডিশন ক্লিক করে নিশ্চিত বাটনে ক্লিক করুন।

১২) আপনার পেমেন্ট সম্পূর্ণ হলে ইউর পেমেন্ট ইজ সাকসেসফুল দেখতে পারবেন।

১৩) প্লিজ ক্লিক হিয়ার টু গেট মানি রিসিপ্ট লিংকে ক্লিক করে পেমেন্ট রিসিভ ডাউনলোড করে নিন।

রেজিস্ট্রেশন ছাড়া মটরজান চালনার ক্ষেত্রে শাস্তির বিধান রয়েছে শাস্তির বিধান হিসেবে ২০০৮ সালের মোটরযান সংক্রান্ত আইনের৭২ নম্বর ধারায় বলা হয়েছে, যদি কোন ব্যক্তি 16 এর বিধান লংঘন করে তাহা হইলে উক্ত লঙ্ঘন হইবে একটি অপরাধ এবং তোর জন্য তাকে ৬ মাসের কারাদন্ড বা অন্য দিক পঞ্চাশ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হতে পারে।

মোটরযান রেজিস্ট্রেশন করা তাই বাধ্যতামূলক। অনেকে ভাবতে পারেন এলাকায় গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন না করলেও চলবে। তবে এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। আপনি আপনার সময় এবং সুযোগমতো আপনার মোটরসাইকেলটি বৈধভাবে চালাতে চাইলে অবশ্যই রেজিস্ট্রেশন করে নিবেন।

সচরাচর জিজ্ঞাসা

দুই বছরের জন্য মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করলে তার ফি কত?

উত্তর: দুই বছরের জন্য ১০০ সিসি থেকে ১৬৫ সিসি এবং ওজন ৯০ কেজির বেশি হলে রেজিস্ট্রেশন ফি হবে ১০১৫২ টাকা। যা ২০২৩ সালে ২০০০ টাকা বাড়ানো হয়েছে।

মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করতে কি কি লাগে?

উত্তর: মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করতে আপনার প্রয়োজন হবে শো রুম থেকে দেওয়া ডকুমেন্ট এর ফাইল রেজিস্ট্রেশন আবেদন পত্র আবেদনকারী জাতীয় পরিচয়পত্র ড্রাইভিং লাইসেন্স রেজিস্ট্রেশন ফি প্রদানের রশিদ স্টাম্প সাইজের তিন কপি ছবি।

মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি কত?

উত্তর: মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি হলো ১০০ সিসি পর্যন্ত দুই বছর মেয়াদে 2000 টাকা। অন্যান্য খরচ ও ভ্যাট সহ মোট ফি ৮ হাজার ৮২৯ টাকা। ১০০ সিসির বেশি হলে রেজিস্ট্রেশন ফি ৩ হাজার টাকা। অন্যান্য খরচ ও ভ্যাটসহ মোট ফির পরিমাণ ১০১৫২ টাকা। ১০ বছরের জন্য সম্পূর্ণ রেজিস্ট্রেশন ফি ১০০ সিসির জন্য ১৮০২৯ টাকা এবং ১০০ সিসির বেশি হলে ১৯ হাজার ৩৫২ টাকা।

শেষ কথা-

সুপ্রিয় পাঠক পাঠিকা বন্ধুরা ইতোমধ্যেই আপনারা মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি সম্পর্কে আপনাদের তথ্য প্রদান করাই ছিল আমাদের আজকের আর্টিকেলের মূল উদ্দেশ্য।আমাদের আজকের আর্টিকেলটি যারা শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়েছেন তারা অবশ্যই জানতে পেরেছেন।

যদি কোথাও আপনাদের বুঝতে অসুবিধা হয় তাহলে অবশ্যই আমাদের জানাতে ভুলবেন না।আমাদের আর্টিকেলটি যদি আপনাদের সামান্যতম উপকারে আসে সেখানে আমাদের সার্থকতা। যদি ভালো লেগে থাকে তবে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে আমাদের ওয়েবসাইটটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। এছাড়াও নতুন নতুন কনটেন্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকবেন এবং নিয়মিত ভিজিট করবেন।

আজকের মত বিদায় নিচ্ছি। সকলে ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।

পোস্ট ট্যাগ-

মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি ২০২৩,মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি কত ২০২২,পুরাতন মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি,110 সিসি মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন ফি কত,বিআরটিএ রেজিস্ট্রেশন ফি,মটর সাইকেল রেজিস্ট্রেশন কিস্তি,১৬০ সিসি বাইক রেজিস্ট্রেশন ফি ২০২৩,১৫০ সিসি বাইক রেজিস্ট্রেশন ফি ২০২৩।

আপনার জন্য আরো 

আপনার জন্য-

মধ্যবিত্তের প্রিয় এই বাইক, পাওয়া যাবে মোট ১১টি কালারে

বাংলাদেশের 2022 সালের সবচাইতে সেরা বাইক।

একটি নতুন TVS বাইক সম্পর্কে এত গুরুত্বপূর্ণ কী?

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪৭৫ other subscribers

 

প্রতিদিন আপডেট পেতে আমাদের নিচের দেয়া এই লিংক এ যুক্ত থাকুন

SS IT BARI- ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন

SS IT BARI- ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এখানে ক্লিক করুন।
SS IT BARI- ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে :এখানে ক্লিক করুন এবং দারুণ সব ভিডিও দেখুন।

SS IT BARI- টুইটার থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- লিংকদিন থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- ইনস্টাগ্রাম থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুম্বলার (Tumblr)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- পিন্টারেস্ট (Pinterest)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS It BARI JOB NEWS

SS IT BARI-ভালোবাসার টেক ব্লগ টিম