মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম ২০২৩

মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স-মানুষের জীবন যাত্রাকে সহজ ও সুন্দর করে তুলতে মোটরসাইকেলের গুরুত্ব অপরিসীম। মোটরসাইকেল এমন একটি বাহন যার মাধ্যমে ব্যক্তি খুব সহজেই তার গন্তব্যস্থলে পৌঁছাতে পারেন কোনরকম ভোগান্তি ছাড়াই। মোটরসাইকেলের বৈধ চালনার ক্ষেত্রে ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকা আবশ্যক। একজন চালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকা আইনত অপরাধে সাব্যস্ত করা হয়। তাই প্রতিটি মোটরসাইকেল চালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকা বাধ্যতামূল।

মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম

সুপ্রিয় পাঠক পাঠিকা বন্ধুরা আজকের আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করব মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরীর পদ্ধতি সম্পর্কে। ব্যক্তি মালিকানাগত বাহনের মতো মোটরসাইকেল একটি অন্যতম বাহন। তাই মোটরসাইকেলের বৈধতার ক্ষেত্রে এর চালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকা আবশ্যক।

অনেকেই মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরির পদ্ধতির সম্পর্কে জানতে আগ্রহী থাকেন বিভিন্ন ওয়েবসাইট সার্চ করেন তারা অবশ্যই আজকের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়বেন এবং মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরি করার পদ্ধতি সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানতে পারবেন।

ড্রাইভিং লাইসেন্স

ড্রাইভিং লাইসেন্স হচ্ছে একজন পেশাদার অপেশাদার গাড়ি চালকের গাড়ির বৈধ মালিকানার প্রমাণ। এছাড়াও একজন পেশাদার অপেশাদার চালক গাড়ি চালনার ক্ষেত্রে দক্ষ কিনা তা ড্রাইভিং লাইসেন্স এর থাকা না থাকার উপর নির্ভর করে। ড্রাইভিং লাইসেন্স মটর যান অধ্যাদেশ  ১৯৮৩ অনুযায়ী সড়ক বা সর্বসাধারণের ব্যবহার্য জায়গায় গাড়ি চালানোর অনুমতি পত্র।

ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন পদ্ধতি ২০২৩

যখন কোন চালক গাড়ি চালনা করে তখন রাস্তায় চলাচলরত সাধারন মানুষসহ অন্য গাড়ি ও সম্পত্তির সুরক্ষা নিশ্চিতকরণের লক্ষে সঠিকভাবে গাড়ি চালানোর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে চিহ্নিত করার জন্য ড্রাইভিং লাইসেন্সের প্রয়োজন হয়।

সহজ কথায় বলতে গেলে গাড়ি চালানোর দক্ষতা সম্পন্ন ব্যক্তি কে চিহ্নিত করার জন্য ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রয়োজন।  শুধুমাত্র বাংলাদেশে নয় বিশ্বের সব দেশেই গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রে লাইসেন্স থাকা অত্যাবশ্যক।

মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম

মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে হলে বাংলাদেশে প্রবর্তিত আইন ও নিয়ম কানুন অনুসরণ করে করতে হবে। বাংলাদেশে মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স করা সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স করার পূর্বে সঠিক নিয়মে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য আবেদন করতে হবে।

মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো

*অপেশাদার আবেদনকারীর জন্য ন্যূনতম বয়স হতে হবে ১৮ বছর।

*পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদনকারীর বয়স হতে হবে নূন্যতম ২০ বছর।

*আবেদনকারী ন্যাশনাল আইডি কার্ড/ জন্ম নিবন্ধন/ পাসপোর্ট এর সত্যায়িত ফটোকপি।

*ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদনকারীকে মানসিক ও শারীরিক উভয় দিক থেকে সুস্থ থাকতে হবে।

*আবেদনকারীকে ন্যূনতম অষ্টম শ্রেণি পাস হতে হবে। অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে এসএসসি পাস দেখাতে হবে।

*মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই মোটরসাইকেল ড্রাইভিং এর দক্ষতা থাকতে হবে। মোটরসাইকেল চালনার ক্ষেত্রে দক্ষ না থাকলে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর ফিল্ড টেস্ট এর সময় অকৃতকার্য ফলাফল আসার সম্ভাবনা থাকবে।

*ট্রাফিক রুলস সম্পর্কে অবগত থাকতে হবে।

*মোটরসাইকেল ড্রাইভিং করার নিয়ম কানুন সম্পর্কে সম্পূর্ণভাবে ধারণা থাকতে হবে।

মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স‌ আবেদন করার পদ্ধতি

মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করার জন্য সর্বপ্রথম বিআরটিএ এর প্রদত্ত ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। https://bsp.brta.gov.bd এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে “নিবন্ধন” বাটনে ক্লিক করে একটি একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। এবং পরবর্তীতে “ড্রাইভিং লাইসেন্স” মেনু থেকে শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য আবেদন অপশনে গিয়ে আবেদনকারীর প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো প্রদান করতে হবে।

ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরিতে যাবতীয় খরচ

ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরি করার ক্ষেত্রে প্রথমে লার্নার মোটর ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য আবেদন করতে হবে। লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টগুলো হলো:

*বিদ্যুৎ বিল/গ্যাস বিল/ টেলিফোন বিল এর ফটোকপি।

*লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স অবশ্যই অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

*রেজিস্টার্ড মেডিকেল ডাক্তার থেকে শারীরিক সুস্থতার মেডিক্যাল সার্টিফিকেট।

*সদ্য তোলা এক কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি।

*সদ্য তোলা তিন কপি স্টাম্প সাইজ ছবি।

*ভোটার আইডি কার্ড জন্ম নিবন্ধন অথবা পাসপোর্ট এর সত্যায়িত ফটোকপি।

*নির্ধারিত ফি (১ম ক্যাটাগরিতে ৩৪৫ টাকা ২য় ক্যাটাগরিতে ৫১৮ টাকা) BRTA এর নির্ধারিত ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়ার রশিদ।

উপরিউক্ত ডকুমেন্টসগুলো সংগ্রহ করার পর ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য আবেদন করতে হবে। ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য আবেদন করার কিছুদিন পর আবেদনকারীর মোবাইল নম্বরে একটি এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদনকারী কে লিখিত,মৌখিক এবং ফিল্ড টেস্ট পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে নির্দিষ্ট তারিখে।

এই তিনটি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পরে নতুনভাবে স্মার্ট ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য পুনরায় আবেদন করতে হবে।

স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য আবেদন

ড্রাইভিং লাইসেন্স পরীক্ষায় লিখিত, মৌখিক ও ফিল্ড টেস্টে পাস করার পর লানার বার শিক্ষানবিস ড্রাইভিং লাইসেন্স এর নম্বর দেওয়া হবে।ওই নম্বর দিয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও ফি দিয়ে স্মার্ট ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট

*রেজিস্টার ডাক্তার কর্তৃক প্রাপ্ত সার্টিফিকেট।

*নির্ধারিত ফর্মে আবেদন।

*পুলিশ তদন্ত প্রতিবেদন অথবা পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট।

*ভোটার আইডি কার্ডের সত্যায়িত কপি (অবশ্যই উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তা বিসিএস ক্যাডার দ্বারা সত্যায়িত করতে হবে)।

*সদ্য তোলা এক কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি।

*নির্ধারিত ফি (পেশাদার ১৬৭৯ টাকা অপেশাদার ২৪৪২ টাকা) বিআরটিএ এর নির্ধারিত ব্যাংকে জমা দেওয়ার রশিদ।

স্মার্ট কার্ড সংগ্রহ

স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্সে সংগ্রহ করার জন্য আবেদনকারীর ছবি ডিজিটাল স্বাক্ষর ও আঙুলের ছাপ দেওয়ার জন্য সুবিধামতো তারিখ নির্বাচন করতে পারবে।এই বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতি সম্পূর্ণ হওয়ার পর তৈরি কৃত স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স নেওয়ার জন্য আবেদনকারী কে এসএমএসের মাধ্যমে সময় জানিয়ে দেওয়া হবে।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 

সম্প্রতি বিআরটিএ এর নতুন আপডেট এ জানানো হয়েছে যে প্রার্থীরা শুধুমাত্র একবার বিআরটিএ এর অফিসে যোগাযোগ করে স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স সংগ্রহ করতে পারবেন এবং প্রার্থীকে ডাক যোগাযোগের মাধ্যমে ড্রাইভিং লাইসেন্স ডেলিভারি দেওয়া হবে শুধুমাত্র একবার বিআরটিএ পরীক্ষা কেন্দ্রে এসে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ এবং বায়োএনারলমেন্ট প্রদান করতে হবে।

মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স করার খরচ

মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স করার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় খরচঃ

লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স ফি

১)মোটরসাইকেল ও হালকা মোটরযানের যেকোনো একটির জন্য ৩৪৫ টাকা

২)মোটরসাইকেল ও যে কোন হালকা মোটরযান এট সঙ্গে ড্রাইভিং লাইসেন্স করলে ৫১৮ টাকা প্রয়োজন হবে।

স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স ফি

১)পাঁচ বছরের নবায়ন ফিসহ পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স ফিস ১৬৮০ টাকা।

২) ১০বছরের নবায়ন ফিসহ অপেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স ফি ২৫৪২ টাকা।

বাংলাদেশের মোটরযান অধ্যাদেশ ১৯৮৩ এর ৩ নং ধারা অনুযায়ী ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া কোন ব্যক্তি সর্বসাধারণের ব্যবহৃত কোন রাস্তায় গাড়ি চালাতে পারবে না। সুতরাং দেশের যে কোন স্থানে গাড়ি চালাতে হলে বৈধতার ক্ষেত্রে ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকা অত্যাবশ্যক।ড্রাইভিং লাইসেন্স শুধুমাত্র মোটরসাইকেল চালানোর স্বীকৃতি স্বরূপ অনুমতি পত্র নয় এটি বিভিন্ন জাতীয় আন্তর্জাতিক কার্যকলাপে ব্যক্তির পরিচয় সনাক্তকরণের ক্ষেত্রে ড্রাইভিং লাইসেন্স একটি অপরিহার্য ডকুমেন্ট।

প্রশ্নঃ ড্রাইভিং লাইসেন্স লিখিত পরীক্ষায় কত নম্বরে পাস হয়?

উত্তরঃ ড্রাইভিং লাইসেন্স লিখিত পরীক্ষায় ২০ নম্বরের মধ্যে ১২ নম্বর পেলে পাস হয়।

প্রশ্নঃ ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রাপ্তির জন্য কয়টি পরীক্ষা দিতে হয় আবেদনকারীকে?

উত্তরঃড্রাইভিং লাইসেন্স প্রাপ্তির জন্য আবেদনকারী কে তিনটি পরীক্ষা দিতে হয়। লিখিত,মৌখিক,ফিল্ড টেস্ট।

প্রশ্নঃ বি আর টি এর নির্ধারিত ওয়েবসাইট কোনটি?

উত্তরঃ https://bsp.brta.gov.bd এটি বিআরটিএর নির্ধারিত ওয়েবসাইট।

শেষ কথা-

বন্ধুরা যারা মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরি করতে চাচ্ছেন কিন্তু এর পদ্ধতি সম্পর্কে না জানার কারণে আবেদন করতে পারছেন না। তারা অবশ্যই আজকের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়ে আশা করি বুঝতে পেরেছেন কিভাবে মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করতে হবে এবং আবেদন করার জন্য কি কি প্রয়োজন হবে।

তবে এই সম্পর্কে আপনাদের কোন জিজ্ঞাসা থাকলে অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আমরা আপনাদের কমেন্টের উত্তর দিয়ে আপনাদেরকে সাহায্য করার যথাসাধ্য চেষ্টা করব। এছাড়াও আমাদের ওয়েবসাইটটি ভিজিট করতে পারেন লাইসেন্স সম্পর্কিত আরো বিভিন্ন ধরনের তথ্য পেতে। আজকের মত এ পর্যন্তই। সবাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন

পোস্ট ট্যাগ-

মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম ২০২৩,ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম ২০২২,ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করার নিয়ম,ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করার নিয়ম ২০২২,বিআরটিএ ড্রাইভিং লাইসেন্স,অপেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স থেকে পেশাদার করার নিয়ম,ইন্টারন্যাশনাল ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম,পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করার নিয়ম।

স্বাস্থ্যকর খাবার সম্পর্কে জানতে ভিজিট করুন –  www.usitbari.com

অনলাইনে স্বপ্নপূরণ এবং টাকা আয় করতে ভিজিট করুন –  www.workupplace.com

ব্লগিং থেকে আর্নিং সম্পর্কিত টিপস পেতে ভিজিট করুন  https://www.youtube.com/@ssitbari2832

আরও আপনার জন্য

ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরির ক্ষেত্রে BRTA এর লিখিত পরীক্ষার সম্ভাব্য প্রশ্ন ও উত্তর

লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম ২০২৩

অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার নিয়ম

লাল সবুজ পরিবহনের অনলাইন টিকিট কাটার নিয়ম

পিজি হাসপাতাল অনলাইন টিকেট বুকিং করুন ঘরে বসে ২ মিনিটে

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪৯২ other subscribers

SS It BARI JOB NEWS

SS IT BARI-ভালোবাসার টেক ব্লগ টিম