স্বাস্থ্যকর মেসের খাবার তালিকা

Rate this post

অনেকেই পড়াশোনা -চাকুরী  বা অন্যান্য অনেক বিশেষর কারণে মেসের থাকা প্রয়োজন পড়ে থাকে। এজন্য অনেকেই স্বাস্থ্যকর মেসের খাবার তালিকা সম্পর্কে জানতে চেয়ে থাকে? আজকের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ তাদের জন্য।

আজকের আর্টিকেলে জানতে পারবেন, মেসের খাবার তালিকা সমূহ সম্পর্কের বিস্তারিত । এছাড়াও স্বাস্থ্যকর খাবার তালিকা থেকে শুরু করে জানতে পারবেন হোস্টেলের খাবার তালিকা  এবং একজন মানুষের তিন বেলার খাবার তালিকা সহ ৭ দিনের খাবার তালিকা কি হওয়া প্রয়োজন এ সম্পর্কে বিস্তারিত।

মেসের খাবার তালিকা

মেসের খাবার তালিকা তিন ধরনের হয়ে থাকে। ১)লো বাজেটের খাবার তালিকা অর্থাৎ কম টাকায় যে সকল খাবার তালিকা হয়। ২)মিডিয়াম বাজেটের খাবার তালিকা ৩)হাই কোয়ালিটি হাই বাজেটের ভালো মানের খাবার তালিকা।

১)লো বাজেটের খাবার তালিকা :-

বর্তমানে অনেক স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা,ভার্সিটির সহ চাকুরীজীবীদের জন্য  অনেক মেসে রয়েছে যাদের মেসের  খাবার তালিকা নিম্নরূপ হয় 👇

সকাল- মোটা চালের সিদ্ধ করে খিচুড়ি +কাঁচা মরিচ +পিয়াজ +সরিষার তেল। অনেক সময় গত রাতে থাকা ডালের কিছু অংশ। মাঝে মাঝে ভাত +আলু ভর্তা +পাতলা ডাল । এভাবেই প্রতিদিন অর্থাৎ সপ্তাহে সাত দিন খাবারের মেনু থাকে।

দুপুর- সপ্তাহে সাত দিন, মেসের ভিন্ন ভিন্ন খাবারের তালিকা হয়ে থাকে। যেমন =ভাত+ মাছ সপ্তাহে দুই দিন। ভাত+ মুরগির মাংস সপ্তাহে একদিন। ভাত+গরুর মাংস সপ্তাহে একদিন। ভাত+ ডিম সপ্তাহে দুই দিন।

এভাবেই নো লেবেলের একটি মেসের খাবার তালিকা তৈরি করে দুপুরের খাবারের মেনু গুলো মেস মালিকেরা মেস মেম্বারদেরকে  পরিবেশন করে থাকেন।

রাত- লো বাজেটের মেসের খাবার তালিকাই সপ্তাহে সাত দিন প্রতিদিনই প্রায়। সবজি আলু ভর্তা ভাজি এ সব দিয়ে খাবার মেনু তৈরি হয়ে থাকে।

২)মিডিয়াম বাজেটের মেসের খাবার তালিকা :-

বর্তমানে মিডিয়াম বাজেটে মেসের খাবার তালিকা হয় নিম্নরূপ 👇

সকাল- রুটি +ডাল ভাজি/গরম ভাত+ সবজি ডাল/চিকন চালের খিচুড়ি।

দুপুর:-দুইদিন গরুর মাংস +একদিন মুরগির মাংস +তিন দিন মাছ +একদিন ডিম

রাত:-ভাত ভাজি ডাল /পাতলা খিচুড়ি সবজি /নিরামিষ ইত্যাদি সপ্তাহের সাত দিন।

৩)হাই বাজেটে মেসের খাবার তালিকা :-

এই বাজেটে বর্তমান ম্যাচগুলিতে খাবারের মেনু তৈরি করা হয় নিম্নরূপ 👇

সকাল- কালা ভুনা +পরোটা /ভুনা খিচুড়ি ।

দুপুর :-তিন দিন গরুর মাংস +একদিন খাসির মাংস +দুই দিন মাছ +দেশি মুরগি দুইদিন  এভাবে ভালো মানের সকল পুষ্টিকর খাবার মেনু তৈরি করা হয় ।

রাত:- যে খাবারই ম্যানেজমেন্ট করা হোক না কেন তার ভিতরে সবজি জাতীয় খাবার তৈরি করা হয়।

মোটকথা চর্বিযুক্ত খাবার ছাড়া সব ধরনের খাবার রাতের ব্যবস্থা করা হয়।

উপরে যেই সকল মেসের খাবার তালিকা গুলো তুলে ধরা হয়েছে। এই সকল তথ্যগুলি অনলাইনের একটি সার্ভিস পোর্টাল থেকে সংগৃহীত এবং এই তালিকা গুলি সম্পূর্ণ বর্তমান যুগের ম্যাচের খাবার তালিকা।

স্বাস্থ্যকর খাবার তালিকা

স্বাস্থ্যকর খাবার তালিকা গুলো একজন মানুষের বা ব্যক্তি কি হওয়া দরকার তা নিচে আলোচনা করা হলো 👇

মিষ্টি আলু – একজন ব্যক্তির স্বাস্থ্যকর সুস্বাদু খাবার তালিকায় প্রথমে রয়েছে মিষ্টি আলু। মিষ্টি আলু একটি ভিটামিন সি জাতীয় খাবার। আপনার খাবার তালিকায় মিষ্টি আলু যে কোন পদ্ধতিতে আপনি রাখলে এটি আপনার শরীরের পুষ্টিগুণ বাড়িয়ে দিবে।

আম- আম একটি ভিটামিন সি জাতীয়। এবং শুধু ভিটামিন সি বললে ভুল হবে শতভাগ ভিটামিন সি। বিভিন্ন রোগ-বালাই থেকে এই আম সুস্থতা দান করে থাকে,অনেক রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার রক্ষা করে থাকে এবং রক্তচাপ কমায়।

তাই মেসের খাবারের তালিকায় প্রতিদিন আম জাতীয় ফল রাখবেন।

বিভিন্ন সবুজ শাক :- সবুজ পাতার যেকোনো শাক শরীরের পক্ষে অনেক উপকারী কারণ শাকের মধ্যে যে সকল খনিজ  থাকে তার শরীরের উপকারের কাজে লাগে। তাই প্রতিদিন খাবারের মেনুতে সবুজ শাক রাখার চেষ্টা করবেন। আপনারা জানেন একমাত্র শাক দ্রুত রান্না করা যায়।

মাছ- প্রতিদিন ৩ বেলা খাবারের যেকোনো এক বেলা খাবারের মধ্যে মাছ খাবার রাখা আমাদের উচিত। সম্ভব হলে চেষ্টা করবেন। তা না হলে প্রতি সপ্তাহে তিনবার মাছের খাবার খাবেন।

মাংস – প্রতি সপ্তাহে একদিন হলেও গরু অথবা খাসির মাংস খাওয়ার চেষ্টা করবেন। এতে করে আপনার শরীরের অনেক ধরনের রোগ বালাই এবং পুষ্টির ঘাটতি পূরণ হবে।

ডিম :- ডিম কি পরিমান গুরুত্বপূর্ণ খাবার আপনার নিজের চিন্তা করলে অবাক হবেন। একটা সিদ্ধ ডিম খেয়েও সারাদিন কাটিয়ে ফেলা যায়। অর্থাৎ প্রতি সপ্তাহে চার-পাঁচবার খাবার মেনুতে ডিম রাখার চেষ্টা করবেন।

এছাড়া অনেক ভিটামিনযুক্ত খাবার রয়েছে, যা একজন ব্যক্তির মেসের খাবার তালিকায় রাখা উচিত। সম্ভব হলে মিনিমাম উপরের এই খাবার মেনুগুলির অনুযায়ী আপনি প্রতিদিন আপনার খাবার তালিকায় এই সকল পুষ্টিকর খাবার রাখা চেষ্টা করুন।

হোস্টেলের খাবার তালিকা

আমাদের মধ্যে অনেক পাঠক রয়েছে, যারা হোস্টেলের খাবার তালিকা সম্পর্কে জানতে চেয়ে google এ সার্চ করে থাকে। তাদের জন্য একটি বিষয় বলবো হোস্টেলে খাবার তালিকা বিষয়টি বিভিন্ন হোস্টেল বিভিন্নভাবে তৈরি করে থাকেন। তবে আপনি পারোতো পক্ষে চেষ্টা করবেন, যে সকল হোস্টেলে স্বাস্থ্যকর প্রতি বেলায় খাবার রয়েছে।

সেই সকল হোস্টেলে আপনি খাবার বিষয়টি ম্যানেজমেন্ট করার চেষ্টা করুন। অর্থাৎ যে সকল হোস্টেলে খাবার তালিকায় ভালো পুষ্টিকর এবং গুণগত মান ঠিক রেখে খাবার পরিবেশন করে থাকে সেই সকল হোস্টেলে খাবার খান।

তা না হলে অপুষ্টিকর খাবার খেয়ে পরবর্তীতে অসুস্থ হয়ে পড়বে। হোস্টেলে খাবার তালিকা প্রত্যেকটি হোস্টেলের মেনু বয় কে জিজ্ঞেস করলে পেয়ে যাবেন।

তিন বেলার খাবার তালিকা 

একজন ব্যক্তির জন্য বেঁচে থাকার জন্য খাবার যেমন খুবই জরুরী । ঠিক তেমনি ভাবে স্বাস্থ্যকর সময় মত তিনবেলা খাবারের তালিকা না দেখে খেলেও বিপদ। অতএব বেঁচে থাকতে খাবার খাওয়া যেমন প্রয়োজনীয়। তেমন সুস্থ থাকার জন্য সময়মতো হিসাব করে তিন বেলা খাবার খাওয়া উচিত।

একজন পুষ্টি কর্মকর্তা বলেন যে একজন মানুষ প্রায় ২০ থেকে ২৫ শতাংশ নিতে পারে সকালে। তাই একজন ব্যক্তিকে প্রতিদিন সকালে পেট ভরে খাবার খাওয়া উচিত। কিন্তু আমরা তার উল্টোটা করি  যার ফলে বিভিন্ন সময় আমাদের স্বাস্থ্য ও আস্বাস্থ্যকর পরিণত হয় এবং অসুস্থতা বৃদ্ধি পায়।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 

সকাল এবং দুপুরের মাঝামাঝি সময়টায় আপনারা খেতে পারেন একটি মৌসুমীর ফল। এই ধরেন আপেল, পেয়ারা, কলার ইত্যাদি তবে বেশি না একটি।

আমরা বর্তমানে সকালে না খেয়ে দুপুরে সবচাইতে বেশি পরিমাণ খাবার খেয়ে নেই যার শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। সুস্থভাবে একজন ব্যক্তি বেঁচে থাকার জন্য তিন ঘন্টা পর পর খেতে হবে শুধু মনে রাখতে হবে কোনভাবে যেন তা হিসাবের ক্যালরির বাহিরে না হয়।

এরপর দুপুর এবং সন্ধ্যার মাঝে চা কফি জাতীয় খাবার খাবে বা  আইসক্রিম চকলেট অর্থাৎ শক্তিবর্ধক খাবার।রাতে খেতে হবে খুবই কম। রাতের খাবার সন্ধ্যার আগে খেয়ে নাওয়া ভালো খেতে হবে সারাদিনের সব থেকে কম খাবার।

সারাদিনের খাবার তালিকা

একজন ব্যক্তি সুস্থ থাকতে সারাদিন কোন খাবারগুলো খাওয়া প্রয়োজনীয় তা নিচে আলোচনা করছি 👇

সপ্তাহে সাত দিনের খাবার তালিকা নিম্নে আলোচনা করছি যেখান থেকে আপনারা প্রত্যেকদিন এই মেনু গুলি খাবারের তালিকায় রাখার চেষ্টা করবেন। তাতে করে আপনি এবং আপনার পরিবারের সকলের সুস্থ থাকবে

মাদ্রাসার খাবার রুটিন 

একটা সময় ছিল মাদ্রাসা সবচাইতে অবহেলিত এবং অপুষ্টিকর খাবার খাওয়ানো হতো।তাবে বর্তমানে মেসের খাবার তালিকা চেয়েও মাদ্রাসার খাবার রুটিন সবচাইতে ভালো। খাবার রুটিন তালিকায় রয়েছে প্রতিদিন পুষ্টিকর সকল খাবার এবং সময় মতাবেক।

বর্তমানে বাংলাদেশের অসংখ্য মাদ্রাসা রয়েছে নিজের সকল প্রত্যেকটি মাদ্রাসার খাবার রুটিন প্রত্যেক রকম। তাই আপনারা নির্দিষ্ট কোন মাদ্রাসার খাবার রুটিন সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন তা কমেন্টে জানাবেন এবং পাশাপাশি মাদ্রাসায় গিয়ে সরাসরি খবর নিবেন।

মেসের বাজার তালিকা 

বর্তমান যুগের সকল তথ্য গুগলে পাওয়ার ফলে অনেকে মেসের বাজারের তালিকার আইডিয়া নেওয়ার জন্য গুগলের সার্চ করে থাকে। তবে কোন রেজাল্ট না পেয়ে নিজে থেকে আবার ফিরিয়ে যায়,আমি তাদের উদ্দেশ্যে একটি কথাই বলব। মেসের খাবারের বাজার এটি মেস ম্যানেজার কর্তৃক নির্ধারণ হয়ে থাকে।এবং সবার আলোচনা সাপেক্ষে।

তাই মেসের বাজার তালিকা এই সম্পর্কে আপনাকে কোন তথ্য দিতে পারছি না। তবে হ্যাঁ মেসের খাবার তালিকায় সুস্থ থাকার জন্য যে সকল খাবার যুক্ত করা দরকার তা উপরেই স্বাস্থ্যকর খাবারের মেনুতে আলোচনা করেছি। মোটকথা মেসের বাজার তালিকার মধ্যে সুস্থ পুষ্টিকর এবং সুষম খাবার মেনু গুলো রাখার চেষ্টা করবেন।

মেসের খাবার তালিকা সম্পর্কিত প্রশ্ন উত্তর

একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের জন্য প্রতিদিন কতটুকু খাবার খাওয়া উচিত?

প্রতিদিন ২৭০ থেকে ৪৫০ গ্রাম চাল খাওয়ানো উচিত, ৬০০ গ্রাম শাকসবজি, ৩৫০ গ্রাম মাছ মাংস ডিম ইত্যাদি।

মেসের খাবার কারা খায়?

বর্তমানে ছাত্র-ছাত্রী চাকরিজীবীরা মেসের খাবার খেয়ে থাকেন।

মেসের খাবারের মিল কাকে বলে?

প্রতি বেলায় যে খাবার প্রদান করা হয় সেটাকে মেস পরিবেশনায় মিল বলা হয়।

রোজার সময় মেস মেম্বারদের জন্য ইফতারি ব্যবস্থা করা হয় কেন?

এটা ব্যক্তিগত বিষয় ম্যাচ কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে সবার সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা করে থাকেন।

শেষ কথা : উপরে  মেসের খাবার তালিকা সহ অন্যান্য খাবার তালিকা সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। সম্পূর্ণ তথ্য গুলি অনলাইন স্বাস্থ্য পোটাল থেকে সংগৃহীত।তাই তথ্যের মধ্যে কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকলে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। এবং ভাষা জনিত কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকলেও ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

আগে পর্যন্ত পরবর্তীতে স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সব ধরনের পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন ।

আপনার জন্য আরো 

আপনার জন্য-

ওয়ালটন ফ্রিজ প্রাইজ ইন বাংলাদেশ ২০২৩.
ওয়ালটন ডিপ ফ্রিজের দাম ২০২৩
ফ্রিজের পাওয়ার কত রাখবেন?

Sanaul Bari

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। আমি মো:সানাউল বারী।পেশায় আমি একজন চাকুরীজীবী এবং এই ওয়েবসাইটের এডমিন। চাকুরীর পাশাপাশি গত ১৪ বছর থেকে এখন পর্যন্ত নিজের ওয়েবসাইটে লেখালেখি করছি এবং নিজের ইউটিউব এবং ফেসবুকে কনটেন্ট তৈরি করি। বিশেষ দ্রষ্টব্য -লেখার মধ্যে যদি কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে অবশ্যই ক্ষমার চোখে দেখবেন। ধন্যবাদ।