ভিটামিন ডি জাতীয় খাবার দেহের সুস্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ

ভিটামিন ডি জাতীয় খাবার-ভিটামিন ডি দেহের সুস্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ভিটামিন ডি পাওয়া যায় এমন সব খাবারের সংখ্যা খুবই কম। আর যেসব খাবারে ভিটামিন ডি থাকে সেগুলো আমাদের দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় খুবই অল্প থাকে।

তৈলাক্ত মাছ, কলিজা,ডিমের কুসুম, মাখন, উন্নত প্রজাতির মাশরুম প্রভৃতি ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার। তবে সূর্যালোক থেকে ভিটামিন ডি পর্যাপ্ত পরিমাণে পাওয়া যায়। ভিটামিন ডি-র সবচেয়ে ভালো উৎস সূর্য।

ভিটামিন ই সমৃদ্ধ খাবার কোণ গুলো যেনে নিন

ভিটামিন ডি জাতীয় খাবার দেহের সুস্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ

শরীর পর্যাপ্ত ভিটামিন ডি পেতে পারে যদি প্রতিদিন ১৫ থেকে ২০ মিনিট সরাসরি রোদে থাকা যায়। খাবারে ভিটামিন ডি-র পরিমান কম এবং সূর্যরস্মির অভাবে শরীরে ভিটামিন ডি-র ঘাটতি দেখা দেয়। শরীরের বিভিন্ন কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে ভিটামিন ডি। তবে যেসব প্রাণী মাঠে থাকে এবং প্রচুর সূর্যালোক পায় সেসব প্রাণীর দুধ, ডিম, যকৃতেও প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ডি পাওয়া যায়।

চলুন জেনে নেই এমন কিছু খাবার সর্ম্পকে, যেগুলো খেলে ভিটামিন ডি-এর ঘাটতি পূরণ হবে খুব দ্রুত। যেমন

১।সামুদ্রিক মাছ

উচ্চমাত্রায় ভিটামিন ‘ডি’ থাকে সামুদ্রিক মাছ বা তৈলাক্ত মাছে। যেমন—স্যামন, সাডিন, টুনা, হ্যারিং, ইলিশ মাছের ডিম, চিংড়ি প্রভৃতি। তিন আউন্স ফ্যাটযুক্ত স্যামন মাছে ভিটামিন ‘ডি’ পাওয়া যায় ৩৭০ আইইউ, যা দৈনিক চাহিদার ৮৪ শতাংশ পূরণ করে। সমপরিমাণ টুনা মাছে থাকে ৫৯ আইইউ।

২।ডিমের কুসুম

একটি মাঝারি আকৃতির ডিমে ০.৯ মাইক্রোগ্রাম ভিটামিন ‘ডি’ থাকে। এ ছাড়া প্রতিটি ডিমের কুসুমে প্রায় ৪০ আইইউ ভিটামিন ‘ডি’ থাকে। মুরগির ডিমের কুসুমে লসোজাইম, ওভাটান্স ফ্লোরিন, এভিডিন, সিস্টেসিন আছে, যা ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করে। এ ছাড়া ডিমের কুসম ইমিউনোগ্লোবিন-সমৃদ্ধ, যা ঠাণ্ডা বা ফ্লু ইনফেকশন থেকে রক্ষা করে।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন*

একটি গোটা ডিমে অ্যামাইনো এসিড ও অ্যান্টি-অক্সিজেন্ট আছে, যা যেকোনো রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে ভূমিকা রাখে। তবে ভিটামিন ‘ডি’ পেতে অবশ্যই তেল দিয়ে ডিম খেতে হবে। প্রাকৃতিকভাবে বেড়ে ওঠা মুরগির ডিম বেছে নেওয়া ভালো। ফিডের মুরগির তুলনায় এতে চার গুণ বেশি ভিটামিন ‘ডি’ পাওয়া যায়।

৩।মাশরুম

মাশরুম বিভিন্ন ধরনের এবং সব মাশরুমেই ভিটামিন ‘ডি’ আছে। তবে ইউভি লাইট বা সূর্যের আলোর কারণে মাশরুমে ভিটামিন ‘ডি’র পরিমাণ বাড়ানোর অনন্য ক্ষমতা রয়েছে। যেসব মাশরুম আট ঘণ্টা সূর্যের সংস্পর্শ পায় সেগুলো ৪৬০০০ আইটিইউ ভিটামিন ‘ডি’ তৈরি করে। মাশরুমে বিটা-গ্লুকানস নামে শক্তিশালী পলিস্যাকারাইড থাকে, যা প্রদাহের সঙ্গে লড়াই করতে ও রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

৪।দুধ

দুধ খুব বেশি ভিটামিন ‘ডি’ প্রদান করে না। তবে এটিকে ভিটামিন ‘ডি’ দিয়ে পরিণত করা যায়। কিছু দেশে গরুর দুধকে ফরটিফায়েড করে ভিটামিন ‘ডি’ যোগ করা হয়। এক কাপ দুধে প্রায় ১২৫ আইইউ ভিটামিন ‘ডি’ রয়েছে। এ ছাড়া ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম ও প্রোটিনের ভালো উৎস দুধ।

৫।লিভার বা যকৃৎ

রান্না করা ২.৫ আউন্স বা ৭০ গ্রাম পরিমাণ গরুর কলিজায় ৩৬ আইইউ ভিটামিন ‘ডি’ থাকে, যা মুরগি বা অন্য কোনো প্রাণীতে থাকে না। তবে এতে কোলেস্টেরল বেশি বলে পরিমিত পরিমাণে খেতে হবে।

৬।ফরটিফায়েড খাবার

কিছু খাবারে ফরটিফায়েড করে ভিটামিন ‘ডি’ বাড়ানো যায়। এসব খাবার বিশ্বের অন্যান্য দেশে বেশি দেখা যায় আমাদের দেশের তুলনায়। যেমন—কিছু সিরিয়ালস, ওটস, ফরটিফায়েড কমলার জুস, গরুর দুধ প্রভৃতি।

ভিটামিন এ জাতীয় খাবারের তালিকা

আমাদের দেশে শিশুখাদ্যে ও টিনজাত গুঁড়া দুধে ভিটামিন ‘ডি’ যোগ করা হয়। আধা কাপ ফরটিফায়েড ওটসে ১২০ আইইউ ভিটামিন ‘ডি’ আছে। এ ছাড়া ১০০ গ্রাম টফুতে ১০০ আইইউ ভিটামিন ‘ডি’ থাকে। এক কাপ ফরটিফায়েড দুধে ১২০ আইইউ ভিটামিন ‘ডি’ থাকতে পারে।

৭।সাপ্লিমেন্টারি

উচ্চমাত্রার ভিটামিন ‘ডি’-সমৃদ্ধ খাবার সচরাচর না মেলায় সাধারণ মানুষ এর চাহিদা পূরণ করতে পারে না। তাই ভিটামিন ‘ডি’ সাপ্লিমেন্টারির প্রয়োজন পড়ে। কারোর ভিটামিন ‘ডি’র মাত্রা কম থাকলে নিজে নিজে নয়, বরং চিকিৎসকের পরামর্শে সাপ্লিমেন্টারি গ্রহণ করা উচিত।

তবে খাবার বা সাপ্লিমেন্টারির চেয়ে সময়মতো নিয়ম মেনে সূর্যের আলো গ্রহণ করাই ভালো। কেননা ক্যালসিয়াম শোষণে ভিটামিন ‘ডি’ শরীরের জন্য বেশ দরকার, যা বিনা মূল্যে মেলে সূর্যের আলো থেকে।

ভিটামিন যুক্ত খাবার নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন উত্তরঃ

১। প্রশ্নঃ কোন খাবারে সবচেয়ে বেশি ভিটামিন ই রয়েছে?

উত্তরঃ সূর্যমুখী বীজ, সয়াবিন তেল, কাঠ বাদামে সবচেয়ে বেশি ভিটামিন ই রয়েছে।

২। প্রশ্নঃ কোন তেলে ভিটামিন ই উচ্চ পরিমাণে রয়েছে?

উত্তরঃ অলিভ অয়েল, সূর্যমুখী তেল এবং বাদাম তেলে ভিটামিন ই উচ্চ পরিমাণে রয়েছে।

৩। প্রশ্নঃ কোন ফলে ভিটামিন ই উচ্চ পরিমাণে রয়েছে?

উত্তরঃ আভোকাডো, কিউই ফল, আমে ভিটামিন ভালো পরিমাণে রয়েছে।

৪। প্রশ্নঃ ডিমে কি ভিটামিন ই রয়েছে?

উত্তরঃ হ্যাঁ, ডিমে অল্প পরিমাণে ভিটামিন ই রয়েছে।

৫। প্রশ্নঃ ভিটামিন ই কি ব্রণের জন্য উপকারি?

উত্তরঃ ব্রণের দাগ দূর করতে ভিটামিন ই উপকারি।

৬। প্রশ্নঃকাঠ বাদামে ভিটামিন ই কি থাকে?

উত্তরঃ কাঠ বাদামে উচ্চ পরিমাণে ভিটামিন ই থাকে।

৭। প্রশ্নঃভিটামিন ই গ্রহণে সাইড এফেক্ট কি?

উত্তরঃ ভিটামিন ই আমাদের শরীরের জন্য খুব উপকারি। তবে অতিরিক্ত পরিমাণে গ্রহণের পরে এটি শরীরে জমা হতে শুরু করে। কারণ এটি ফ্যাট দ্রবণীয়। তাই অনেক রকমের সমস্যা দেখা দিতে পারে যেমন-ক্লান্তি, গ্যাস, ডায়রিয়া, মাথা ব্যথা ইত্যাদি সমস্যা হতে পারে।

৮। প্রশ্নঃভিটামিন ই নিলে চুল কি দ্রুত গজায়?

উত্তরঃ ভিটামিন ই চুল গজাতে সহায়তা করে।

৯। প্রশ্নঃ ভিটামিন ই কি ত্বকের জন্য ভালো?

উত্তরঃ ভিটামিন ই ত্বকের জন্য অত্যন্ত কার্যকর।

১০।প্রশ্ন: কোন ভিটামিন যকৃতে সঞ্চিত হয় ?

উত্তর: ভিটামিন এ ও ডি

১১।প্রশ্ন: কোন ভিটামিনকে বায়োটিন বলে ?

উত্তর: ভিটামিন   H /ভিটামিন বি৭।

১২।প্রশ্ন: কোন ভিটামিন ক্ষতস্থান হতে রক্তপড়া বন্ধ করতে সাহায্য করে?

উত্তর: ভিটামিন কে।

১৩।প্রশ্ন: কোন ভিটামিনের অভাবে মুখে ও জিহ্বায় ঘা হয়?

উত্তর: ভিটামিন- বি2।

১৪।প্রশ্ন: মানুষের রক্তের PH কত?

উত্তর: 7.4।

১৫।প্রশ্ন: কোন হরমোন রক্তচাপ বাড়ায় ?

উত্তর: আড্রিনালিন।

১৬।প্রশ্ন: মাছের মাথা থেকে কোন ভিটামিন পাওয়া যায়?

উত্তর: ভিটামিন A।

১৭।প্রশ্ন: কোন ভিটামিন কে বায়োটিন বলে?

উত্তর: ভিটামিন H অপর নাম ভিটামিন B7।

আপনার জন্য –

শর্করা । অ্যালার্জি। ভিটামিন সি। ক্যালসিয়াম। আমিষ। প্রাণীজ আমিষ। আঁশ জাতীয় খাবারের তালিকা সহ বিস্তারিত

সুষম খাবার কাকে বলে? সুষম খাবারের উপাদান সহ সুষম খাবার সম্পর্কে সকল তথ্য

প্রোটিন জাতীয় খাবার সহ গর্ভবতী মায়ের খাবার সম্পর্কে বিস্থারিত জানুন

৬ মাস থেকে ৫ বছরের বাচ্চার খাবার নিয়ে   দুশ্চিন্তা দিন শেষ

বাচ্চার পুষ্টি নিয়ে ভাবছেন?অধিক পুষ্টিগুণ সম্পূর্ণ বাচ্চার খাবার তালিকা

নবজাতক শিশুর যত্ন ও পরিচর্যায় বাবা-মার করণীয়

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪০৭ other subscribers

WhatsApp Image 2022 02 01 at 9.56.07 AM

SS IT BARI- ভালবাসার টেক ব্লগ এ হেলথ/স্বাস্থ্য/স্কিন কেয়ার  এবং ইতিহাস বিষয়ক লেখালিখি করি। এর আগে বিভিন্ন পোর্টালের সাথে যুক্ত থাকলেও, SS IT BARI-আমার হাতেখড়ি। হেলথ/স্বাস্থ্য/স্কিন কেয়ার বিষয়ক বিশ্লেষণ বাংলায় জানতে ভিজিট করুন http://ssitbari.com

Leave a Reply

Your email address will not be published.