ব্লগে পোস্ট করার সঠিক নিয়ম 2022

পোস্ট করার সঠিক নিয়মআপনি যদি আপনার ব্লগ সাইট অথবা ওয়েবসাইটের ভিজিটর বাড়াতে চান অথবা আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগ সাইটের ডোমেইন অথরিটি বাড়াতে চান এবং গুগলে Rank করাতে চান? তাহলে আপনার একটি সুন্দর পোষ্ট করা নিয়ম যানা খুবই জরুরী এবং গুরুত্বপূর্ণ।

তাই আজকে আমি আপনাদেরকে জানাবো, কিভাবে আপনি আপনার ব্লগ সাইটে বা ওয়েবসাইটে সঠিক নিয়মে পোস্ট করবেন? আর আপনি যদি আমাদের দেওয়া এই সকল বিষয় মেনে আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগ সাইট থেকে পোস্ট করেন,তাহলে ১০০% আপনার পোস্ট গুগোলে rank করবে এবং প্রতিদিন ভালো ভিজিটর আপনি গুগোল থেকে পেয়ে থাকবে।ব্লগে পোস্ট করার সঠিক নিয়ম

আমাদের সবচেয়ে বড় ভুল হচ্ছে ,নিয়ম না জেনে ব্লগে পোস্ট লেখা।  এজন্য আমরা আমাদের টার্গেটেড ভিজিটর পাই না।  আর এর কারণে আমাদের ওয়েবসাইটের বাউন্স রেট অনেক বেড়ে যায়, যার ফলে ranking নষ্ট হয়।

আজ আমি আপনাদের ব্লগে এই পোস্টটি পোস্ট করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানাবো।  আপনি যদি এইগুলি অনুসরণ করতে পারেন তবে আপনি অবশ্যই আপনার ব্লগে ভিজিটর বাড়াতে পারবেন এবং ভালো ইনকাম করতে পারবেন।

ব্লগে পোস্ট করার পূর্বে সঠিক টাইটেল বা হেডলাইন নির্বাচন করা Post title wordpress

একটি ব্লগ পোস্টের সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে সেই ব্লগের টাইটেল বা হেডলাইন।একটি ব্লগ পোস্ট লেখার প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম হল একটি সুন্দর, নজরকাড়া এবং অনন্য টাইটেল বা হেড লাইন লেখা।

আপনার পোস্টে শিরোনামটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কেন?  কারণ শিরোনাম দেখার পর একজন ভিজিটর সিদ্ধান্ত নেবেন আপনার পোস্টে ক্লিক করবেন কি না।

এজন্য অবশ্যই আপনি যে বিষয়ে পোস্ট লিখবেন তার আগে আপনার পোস্টের টাইটেল এবং হেডলাইন  সুন্দর ভাবে লিখবেন।

পোস্টে ইউনিক কিওয়ার্ড টাইটেল বা হেডলাইন নির্বাচন করার নিয়ম কিওয়ার্ড রিসার্চ

কিভাবে আপনি আপনার পোষ্টের হেডলাইন বা টাইটেল নির্বাচন করবেন? এটিও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এজন্য অবশ্যই আপনাকে কিওয়ার্ড রিসার্চকরে আপনার টাইটেল বা হেড লাইনটি নির্বাচন করতে হবে। আপনার টাইটেল বা হেড লাইনের মধ্যে যদি আপনার পোষ্টের কিওয়ার্ড না থাকে, তাহলে আপনার পোস্টটি গুগলের Rank করবে না আর ভিজিটর ও পাবেননা।

একটি পোষ্টের কিওয়ার্ড রিসার্চ” করার বিষয়ে আপনি অনেকগুলি ব্লগে পোষ্ট এবং ইউটিউবে ভিডিও পেয়ে থাকবেন, তবে আজকে আমি আপনাদেরকে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার, যে মাধ্যম এবং আমাদের বাস্তব অভিজ্ঞতা জানাবো, সেটি আপনি যদি মেনে আপনার পোষ্টের কিওয়ার্ড রিসার্চ করেন, তাহলে আপনার পোষ্টটি 100% গুগলের Rank করবে এবং ভিজিটর পাবেন।

কিভাবে আপনি মেনুয়ালি আপনার পোষ্টের বা সাইটের জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ করবেন, তা জানতে আমাদের এই লিংকটি ভিজিট করুন এবং বিস্তারিত পোস্টটি পড়ে আপনার পোষ্টের জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ করুন।

উদাহরণস্বরূপ আপনি আমাদের এই পোষ্টের হেডলাইন বা টাইটেলটি দেখুন- আমাদের হেডলাইন বা টাইটেলে লিখা আছে – ব্লগে পোস্ট করার সঠিক নিয়ম 2022

এখানে “পোস্ট করার সঠিক নিয়ম” লেখাটি  হচ্ছে আমাদের এই পোষ্টের মূল কিওয়ার্ড। মানে এই পোষ্টের মূল হেডলাইনের কিওয়ার্ড।

আশা করছি আপনাদেরকে কিভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করে আপনি আপনার পোষ্টের হেডলাইন তৈরি করবেন সে বিষয়টি পুরোপুরি বুঝাতে সক্ষম হয়েছি।

ব্লগ পোস্টে মেটা প্রেসক্রিপশন লেখার নিয়ম

একটি ব্লগ পোস্টে “মেটা ডেসক্রিপশন” এসইওর আরেকটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ পাঠ বা অধ্যায়।

কারন, গুগল সার্চ ইঞ্জিন মূলত কাজ করে থাকে একটি ব্লগ পোস্টের বা পোষ্টের মেটা ডেসক্রিপশন নিয়ে, মেটা প্রেসক্রিপশনে যদি কোন কিওয়ার্ড না থাকে বা মেটা ডেস্ক্রিপশন যদি সুন্দর না হয়, তাহলে গুগোলের রোবট আপনার পোস্টটিকে কখনোই গুগলের রেংকিং এ নিয়ে আসবেনা।

সেজন্য, অবশ্যই আপনি আপনার ব্লগের পোস্ট এর জন্য আপনার পোস্টে টাইটেল এর মেটা ডেসক্রিপশন টি সুন্দর ভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করে তৈরি করে নিবেন।

?? গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন ??

আমরা যেভাবে একটি ব্লগ পোস্টের মেটা ডেসক্রিপশন তৈরি করে থাকি? তা হচ্ছে অবশ্যই আপনার মেটা ডেস্ক্রিপশন তিন থেকে চার লাইনের মধ্যে হতে হবে এবং এই তিন থেকে চার লাইনে মেটা ডেসক্রিপশন এর মধ্যে অবশ্যই আপনার পোষ্টের যে টাইটেলে যে কিওয়ার্ডটি ব্যবহার করেছেন সেই কিওয়ার্ডটি থাকতে হবে।

এছাড়াও আপনার রিসারচ কৃত আরো 2/1 টি কিওয়ার্ড এই মেটা ডিসক্রিপশন এর মধ্যে যুক্ত করা খুবই ভালো।

এছাড়াও আপনি আপনার পোষ্টের মেটা ডেস্ক্রিপশন লিখার সময় লক্ষ্য করবেন, যাতে তিন থেকে চার লাইনের মধ্যে আপনার এই পোস্টের মূল বিষয়বস্তু গুলি এখানে উল্লেখ থাকে এবং ভিজিটরের দৃষ্টি আকর্ষণ করে।

উদাহরণস্বরূপ আপনি আমাদের এই পোষ্টের মেটা ডেসক্রিপশনটি দেখে নিতে পারেন।

ব্লগ পোস্টের Permalink / Url Slug তৈরি করার নিয়ম

আপনি এটি বিশেষ মনোযোগ দিতে হবে.  কারণ পোস্টটি একবার প্রকাশিত হলে আপনি আর এটি সম্পাদনা করতে পারবেন না।  যদিও আপনি পারেন, কিন্তু আপনি এটি কখনই করবেন না।  কারণ আপনার পোস্ট যদি Google দ্বারা ইন্ডেক্স করা হয়, আপনি যদি এটি সম্পাদনা করেন এবং পরিবর্তন করেন তবে আগের URLটি Google-এ থাকবে।  কেউ ক্লিক করলে আপনার সাইটে 404 এরর পেজ দেখাবে।  যা আপনার সাইটের জন্য খুব খারাপ।

ব্লগিং কি? ব্লগিং থেকে প্রতি মাসে কত টাকা আয় করা যায়?

তাহলে বুঝতেই পারছেন ইউআরএল কতটা গুরুত্বপূর্ণ। আপনার পোস্টের সব কিছুই পরিবর্তন করতে পারবেন প্রয়োজন অনুযায়ী, কিন্তু এটা পরিবর্তন করা যাবে না। তাই পোস্ট পাবলিশ করার আগে এটি বার বার দেখে নিবেন। ইউআরএল এ আপনার কিওয়ার্ড দিবেন। যদি কিওয়ার্ড বেশি বড় হয় তাহলে কিছু অংশ দিবেন। অবশ্যই যেন অর্থপূর্ণ হয়। নিচের ছবিটি দেখে আরো ক্লিয়ার হয়ে নিন।

ব্লগ পোস্টে ইমেজ এসইও করার নিয়ম

একটি ব্লগ পোস্টের মধ্যে আমরা সেই পোস্ট রিলেটিভ অনেক ধরনের ইমেজ ব্যবহার করে থাকি। যেমন ব্লগ পোষ্টের ভিতরেও ইমেজ ব্যবহার করি এবং ফিচার ইমেজ হিসেবেও আমাদের ইমেজ ব্যবহার করতে হয়, সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনি আপনার ব্লগ পোস্টে যে কয়টি ইমেজ ব্যবহার করবেন তা 100% এসইও করে নিবেন।

Blogging A TO Z।শুধুমাত্র নতুন ব্লগারদের জন্য।

ব্লগ পোস্টের মধ্যে ইমেজ যদি আপনি এসইও করেন, তাহলে আপনার এই ইমেজ এর মাধ্যমে গুগল থেকে আপনার ইমেজটি রেংকিং করবে এবং সেই ইমেজ এর মাধ্যমে আপনি প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর পেয়ে থাকবেন।ব্লগে পোস্ট করার সঠিক নিয়ম

ইমেজ এসইও করার অনেকগুলি মাধ্যম আপনি ইউটিউব অথবা বিভিন্ন ব্লগ সাইটের পেয়ে থাকবেন। তবে আপনি যদি আমাদের এই ম্যাধমটি ফলো করেন, তাহলে অবশ্যই আপনার কম সময়ের মধ্যে একটি ইমেজ এসইও করতে পারবেন এবং ইউনিক ইমেজটি আপনার গুগলের Rank করবে।

আমাদের সাইটে ইমেজ এসইও করার পূর্ণাঙ্গ নিয়ম দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

পোস্টের ভিতরে ইন্টারনাল এবং এক্সটারনাল লিংক যুক্ত করার নিয়ম

আপনি যখন একটি ব্লগ পোস্ট লিখবেন, তখন এই ব্লগ পোস্ট রিলেটেড আরো আপনার সাইটে যে ধরনের পোস্ট করা রয়েছে সেগুলি ইন্টারনাল লিংক যুক্ত করে দিবেন।

Keyword Research কি? কিওয়ার্ড রিসার্চ কেন এত গুরুত্বপূর্ণ?

এবং এক্সটার্নাল লিংক হিসাবে আপনি বাহিরের কোন একটি ওয়েবসাইটের লিংক রিলেটিভ পোস্ট এর সঙ্গে যুক্ত করে দিবেন।

টেবিল অফ কনটেন্ট যুক্ত করার নিয়ম

টেবিল অফ কন্টেন যুক্ত করা, এটি আপনি যখন আপনার পোষ্টের মধ্যে যুক্ত করবেন তখন যে কোন ভিজিটর খুব সহজেই আপনার পোষ্টের সামারি গুলো উপরে থেকেই জানতে পারবে, এবং সেই ভিজিটরের প্রয়োজনীয় হেড লাইনটি সেখান থেকে সিলেক্ট করে তার প্রয়োজন অনুযায়ী পড়ে নেবে, এমন হতে পারে যে আপনার পোস্টটি অনেক বড় হয়েছে, তার প্রয়োজন শুধু একটি বিষয়। যেমন “ইমেজ এসইও”করা শুধু ইমেজ এসইও হেডলাইনে ক্লিক করলেই সেটা বিস্তারিত পেয়ে যাবে।

তবে অবশ্যই লক্ষ্য রাখবেন আপনার পোস্টের টেবিল অফ কনটেন্টে যাতে h1,h2 মানে আপনার মূল হেডলাইন গুলো শুধু যুক্ত থাকে।

আর্টিকেল লেখার নিয়ম

আর্টিকেল লিখার সময় অবশ্যই কিছু বিষয় লক্ষ্য রাখতে হবে যাতে আর্টিকাল এর মধ্যেও এসইও থাকে এবং গুগল রোবট খুব সহজে আপনার এই আর্টিকেলটি গুগলে Rank করে।

একটি পোষ্টের আর্টিকেলের ভিতরে যে সকল বিষয়ে লক্ষ্য রাখবেন

আপনার আর্টিকেল লিখার সময় আপনার লেখাগুলি যাতে খুব সহজ বাংলা অথবা যে ভাষাই হোক না কেনো, আপনার লেখাগুলি যাতে ভাষাগত দিক অনেক সুন্দর বা ভালো হয় সেদিক লক্ষ্য রাখবেন।যাতে যে কোন ভিজিটর আপনার লেখাগুলি পড়ে খুব সহজেই বুঝতে পারে।কঠিন কোন শব্দ ব্যবহার করার দরকার নেই।

কারণ আপনি লক্ষ্য করলে বুঝতে পারবেন যে, আপনি দেখবেন গুগলের যতগুলি লেখা আছে, সব গুলো অনেক সহজ ভাষায়। সব শ্রেণীর লোক তাদের ভাষাগুলি খুব সহজে পড়তে পারে এবং বুঝতে পারে।

দ্বিতীয়তঃ আপনার পোষ্টের আর্টিকেল এর প্যারাগ্রাফ গুলি অবশ্যই চার থেকে পাঁচ লাইনের মধ্যে হতে হবে। পাঁচ লাইনের বেশি আপনি কোন প্যারাগ্রাফ রাখবেন না।আপনি দেখবেন আপনি যদি একটি রচনা লিখেন, সেক্ষেত্রে আপনার লেখা গুলির মধ্যে যদি চার পাঁচ লাইনের একটি করে প্যারা থাকে, তাহলে আপনার সেই লেখাগুলি দেখতে এবং পড়তে অনেক সুন্দর লাগে ।আর গুগোল এটাকে অনেক পছন্দ করে।

Image এসইও: সহজ ভাবে Image Optimization করার নিয়ম

তাই আপনি চেষ্টা করবেন আপনার পোষ্টের আর্টিকাল যাতে 4/5 লাইনে প্যারা প্যারা আকারে হয়।

তৃতীয়তঃ আপনার পোষ্টের আর্টিকেল এর মধ্যে কিওয়ার্ড যুক্ত করার চেষ্টা করবেন। অবশ্যই আপনি যে গুলো কিওয়ার্ড রিসার্চ করেছেন,এই পোষ্টের জন্য। সে আট-দশটি “কিওয়ার্ড” আপনার এ আর্টিকেল এর মধ্যে অবশ্যই আপনি বিভিন্ন জায়গায় যুক্ত করার চেষ্টা করবেন এবং আপনার হেডলাইন গুলিতে অবশ্যই কিওয়ার্ড আকারে হেডলাইন তৈরি করবেন, সেটি হোক সাব হেডলাইন বা h1,h2, h3 হেডলাইনস।

তবে অবশ্যই চেষ্টা করবেন আপনার আর্টিকেল পোস্ট এর মধ্যে যাতে ০৫ থেকে ০৭ টিরও বেশি কিওয়ার্ড না ব্যবহার হয়।কারণ গুগলের একটি লিমিটেশন রয়েছে এই কিওয়ার্ড যুক্ত  করার ক্ষেতেরে।

FAQ পেজ যুক্ত করার নিয়ম

FAQ পেজ যুক্ত করা এই বিষয়টি সচরাচর অনেকেই নাম শুনে নাই বা জানা নাই,আর জানা না থাকাটাই স্বাভাবিক, কারণ এটি একটি অ্যাডভান্স লেভেলের এসইও।এটি আপনার পোষ্টের মধ্যে কিভাবে যুক্ত করবেন এবং এটা উপকার কি ?সে বিষয়ে নিচে বিস্তারিত দেখুন।

FAQ পেজ কি?

আপনি গুগলে যে কিছু লিখে সার্চ করলে দেখবেন নিচের দিকে আসলে ঐ লিখা রিলেটিভ কিছু প্রশ্ন উত্তর (People also ask) নিচের ছবির মত একটা অপশন দেকতে পাবেন এটা কেই FAQ পেজ বলে।FAQ পেজ যুক্ত করার নিয়ম

FAQ পেজ এর উপকার কি?

এই পেজ আপনি আপনার পোষ্টে যুক্ত করলে আপনি বাড়তি গুগলে থেকে আরও অনেক ভিজিটর পাবেন।নিচের ছবিতে প্রমান দেখুন।

FAQ পেজ কিভাবে যুক্ত করবেন?

প্রথমে এই লিংকে ক্লিক করুন ।

আপনার সামনে নিচের ছবির মত একটা পেজ আসবে ।FAQ পেজ যুক্ত করার নিয়ম

সেখান থেকে প্রথমে আপনি নিচের ছবির মত হাতের ডান দিক থেকে ক্লিক করে FAQ PAGE নির্বাচন করুন।FAQ পেজ যুক্ত করার নিয়ম

এখন নিচের দিকে FAQ PAGE এ আপনার পোস্ট রিলেটিভ কিছু প্রশ্ন উত্তর যুক্ত করুন এবং HTML কোড টি কপি করে নেন ।নিচের ছবির দেখুন।FAQ পেজ যুক্ত করার নিয়ম

এরপর আপনার HTML কোড টি কপি করে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের এই পোস্টের HTML কোড এর নিচে Paste করে দিবেন। ব্যাস আপনার কাজ শেষ ।FAQ পেজ যুক্ত করার নিয়ম

এখন আপনি চাইলে এই লিংক থেকে ক্লিক করে আপনার এই পোস্টটিতে FAQ PAGE যুক্ত হয়েছে কিনা তা দেখে নিন।

FAQ পেজ যুক্ত করার নিয়ম

উপরের দেওয়া এ সকল নিয়ম অনুসরণ করে, যদি আপনি আপনার ব্লগ সাইটে কোন পোস্ট বা আর্টিক্যাল পাবলিস্ট করেন, তাহলে আমরা সিওর আপনার পোস্টটি গুগলের প্রথম পেজে Rank করবে ইনশাল্লাহ।

আরও পরুন-

গুগল এডসেন্স থেকে টাকা উত্তোলন করার জন্য বাংলাদেশের কোন ব্যাংক ব্যবহার করা দরকার?

আপনার ব্লগে ভিজিটর বাড়ানোর 100% কার্যকরী উপায়।প্রমাণ সহ বিস্তারিত

Blogging Tips । গুগল এডসেন্স অ্যাপ্রুভ না পাওয়ার কারণ-2022

Blogging Tips। এসইও টুলস এর সঠিক ব্যবহার এবং গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়ার উপায়-2022

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ২৬৩ other subscribers

এছাড়াও আমাদের প্রতিদিন আপডেট পেতে আমাদের নিচের দেয়া এই লিংক এ যুক্ত থাকুন

SS IT BARI- ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন

SS IT BARI- ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এই পেজ ভিজিট করুন
SS IT BARI- ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে এএখানে ক্লিক করুন এবং দারুণ সব ভিডিও দেখুন।
গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন।
SS IT BARI-সাইটে বিজ্ঞাপন দিতে চাইলে যোগাযোগ করুন এই লিংকে

স্বাস্থ্যকর খাবার সম্পর্কিত ইংলিশে সকল সঠিক তথ্য জানতে আমাদের SS IT BARI- ভালোবাসার টেক ব্লকের আরেকটি সংস্করণ, US IT BARI- All About Healthy Foods ওয়েব সাইট টি ভিজিট করতে পারেন।
বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন –www.usitbari.com

pp

তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক লেখালিখি করি। এর আগে বিভিন্ন পোর্টালের সাথে যুক্ত থাকলেও, SS IT BARI-আমার হাতেখড়ি। তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিশ্লেষণ বাংলায় জানতে ভিজিট করুন http://ssitbari.com

Leave a Reply

Your email address will not be published.