ডেঙ্গু জ্বর হলে কি করবেন- ডেঙ্গু জ্বর হলে করণীয়

ডেঙ্গু জ্বর হলে কি করবেন- ডেঙ্গু একটি ভাইরাস জনিত রোগ। সাধারণত জুলাই থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ডেঙ্গুর প্রকোপ বেশি লক্ষ্য করা যায়। বর্তমানে দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হলে শরীরে বিভিন্ন জটিলতার সৃষ্টি হতে পারে। তাই শুরু থেকেই সতর্ক থাকলে ডেঙ্গু জ্বরের মারাত্মক দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব।

ডেঙ্গু জ্বর হলে কি করবেন

ডেঙ্গু জ্বর ধরা পড়লে অনেকেই বুঝতে পারেন না ডেঙ্গু জ্বর হলে কি করবেন। যেকোনো জ্বরকে অবহেলা করা উচিত নয়। ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ গুলো দেখা দিলে সাথে সাথে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা শুরু করা উচিত।

ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ

ডেঙ্গু জ্বরের প্রধান লক্ষণ হলো জ্বরের তাপমাত্রা ৯৯ থেকে ১০৬ ডিগ্রি ফারেনহাইট পর্যন্ত  উঠতে পারে। ছেড়ে  ছেড়ে জ্বর আসতে পারে।শরীর ব্যথা মাথাব্যথা চোখের পেছনে ব্যথা এবং চামড়ায় লালচে দাগ বা ফুসকুড়ি দেখা যায়। তবে এইসব সিনড্রোম ছাড়াও ডেঙ্গু জ্বর হতে পারে।

ডেঙ্গু জ্বরের কারণ

এডিস মশার কামড়ে ডেঙ্গু জ্বর হয়। ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত কোনো ব্যক্তিকে এডিস মশা কামড়ালে জীবাণু বাহি মশা কোন সুস্থ ব্যক্তিকে কামড়ালে সে ব্যক্তি চার থেকে ছয় দিনের মধ্যে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়। আবার কোন ভাল মশা এই ডেঙ্গু আক্রান্ত ব্যক্তিকে কামড়ালে সেই মশারটিও ডেঙ্গু জীবাণু বাহী মশায় পরিণত হয়। এবং অন্য কোন সুস্থ ব্যক্তিকে কামড়ালে সে ব্যক্তি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয় এভাবেই একজন থেকে অন্যজন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়।

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হলে কি কি খাবার খেতে হবে

ডেঙ্গু আক্রান্ত ব্যক্তি সুস্থতায় যে সকল খাবার খাওয়া উচিত সেগুলো হলো:

কমলা

কমলায় থাকা ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ডেঙ্গুড়ে আক্রান্ত ব্যক্তি সুস্থতায় খুব ভালো কাজ করে।তাই ডেঙ্গু জ্বর আক্রান্ত ব্যক্তির বেশি বেশি কমলা খাওয়া উচিত।

ডাবের পানি

ডেঙ্গু জ্বর হলে শরীরের তরল পদার্থে ঘাটতি তৈরি হয়। সৃষ্টি হয় ডিহাইড্রেশন। এ সময় তরল পদার্থের ঘাটতি পূরণ করতে ডাবের পানি খাওয়া জরুরি। কেননা ডাবে রয়েছে ইলেকট্রোলাইটস এর মত পুষ্টি।

ডালিম

ডালিমের রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সেইসঙ্গে রয়েছে পরিমাণ মতো মিনারেল যদি আপনি নিয়ম করে ডালিম খান তাহলে বেড়ে যাবে রক্তের প্লাটিলেট।

পেঁপে পাতার জুস

দিন বছর হলে রোগীর শরীরে  রক্তের প্লাটিলেট কমে যায়। তাই এই সময় পেঁপে পাতা রস করে খেলে উপকার পাওয়া যায়। পেপে পাতা পাপাইন এবং কেমোপেইনের‌ মতো এনজাইম সমৃদ্ধ যা হজমে সহায়তা করে সেই সঙ্গে রক্তের প্লাটিলেট বৃদ্ধি করে। সেজন্য ডেঙ্গু আক্রান্ত ব্যক্তিকে নিয়ম করে প্রতিদিন ৩০ এম এল পেপে পাতার জুস খেতে হবে।

হলুদ

ডেঙ্গু জ্বরের কাজে আসতে পারে হলুদ ।  এক গ্লাস দুধের সঙ্গে এক চিমটি হলুদ মিশিয়ে খেতে হবে এটি আপনাকে অতি দ্রুত সুস্থ করে তুলবে

মেথি

ডেঙ্গু জ্বর হলে কাছে আসবে মেথি ।মেথি ঘুম বৃদ্ধি করে। সেই সাথে সহায়তা করবে অতিরিক্ত মাত্রার জ্বর কমিয়ে দিতে। তবে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে মেথি ব্যবহার করা উচিত।

ব্রকলি

ব্রকলি হল ভিটামিন কে এর একটি ভালো উৎস। আর ভিটামিন কে রক্তের প্লেটলেট বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। ব্রকলিতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং খনিজ। যদি কোন ব্যক্তি লিঙ্গতে আক্রান্ত হয় তাহলে অবশ্যই বেশি করে ব্রকলি খাওয়া উচিত।

পালং শাক

ভালোবাসা কি হয়েছে প্রচুর পরিমাণে আয়রন এবং ওমেগো ৩ ফ্যাটি এসিড। এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। পালং শাকে রক্তের‌ প্লেটলেট বৃদ্ধি পায়।

কিউই ফল

কিউই ফলটিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও পটাশিয়াম রয়েছে।এই ফলটি খাওয়ার ফলে ইলেকট্রোলাইট স্তর এবং উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে এই ফলটি খেলে লোহিত রক্ত কণিকার মাত্রা বৃদ্ধি পায়।

ডেঙ্গু জ্বরে যে খাবারগুলো এড়িয়ে চলা উচিত

মসলাযুক্ত খাবার

মসলাযুক্ত খাবার বেশি খাওয়ার ফলে পাকস্থলীতে সমস্যা হতে পারে তাই ডেঙ্গু রোগীকে এ ধরনের খাবার এড়িয়ে চলা উচিত।

তৈলাক্ত ভাজা খাবার

তৈলাক্ত ও ভাজা খাবারের উচ্চ রক্তচাপ বৃদ্ধি পায় যা ডেঙ্গু রোগীর ক্ষেত্রে মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ তাই ডেঙ্গু রোগীকে অবশ্যই তৈলাক্ত ও ভাজা খাবার এড়িয়ে চলতে হবে।

ক্যাফিন যুক্ত পানিয়

ডেঙ্গু জ্বর হলে যত বেশি সম্ভব তরল খাবার বেশি করে খাওয়া উচিত সেসঙ্গে ক্যাফিন যুক্ত পানীয় জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলতে হবে।

ডেঙ্গু রোগীকে বাড়িতেই চিকিৎসা নিন

বাড়িতে কিভাবে ডেঙ্গু রোগীকে চিকিৎসা নিবেন সে সম্পর্কে অনেকেই বুঝে উঠতে পারেন না তাদের অবগতির জন্য

গর্ভবতী মায়ের যেসব খাবার খাওয়া উচিত

*প্রচুর পরিমাণে বিশ্রামে রাখতে হবে

*ডেঙ্গু রোগীকে বেশি বেশি তরল জাতীয় খাদ্য দিতে হবে যেমন লেবুর শরবত ডাবের পানি ফলের জুস খাবার স্যালাইন।

*ডেঙ্গু রোগী কি অন্য কোন ওষুধ না দিয়ে শুধুমাত্র প্যারাসিটামল দিতে হবে। স্বাভাবিক ওজনের একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির প্রতিদিন সর্বোচ্চ আটটি প্যারাসিটামল খেতে পারবে।কিন্তু কোন ব্যক্তির যদি লিভার হার্ট এবং কিডনি সংক্রান্ত সমস্যা থাকে তাহলে প্যারাসিটামল দেওয়ার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

*ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হলে শরীরে ব্যথার জন্য অ্যাসপিরিন ক্লোফেনাক আইবুপ্রফেন এই ধরনের ওষুধ খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

বাড়িতে চিকিৎসার ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো করবেন না

*ডেঙ্গু জ্বরের ক্ষেত্রে প্ল্যাটিলেট নিয়ে অনেকেই চিন্তিত থাকেন কিন্তু এটি আর এখন ডেঙ্গু জ্বরের মূল বিষয় নয় তাই প্ল্যাটিলেট হিসাব নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কোন প্রয়োজন নেই।

*তবে প্লাটিলেট যদি ১০ হাজারের নিচে নামে বা শরীরে কোন জায়গা থেকে রক্তপাত হয় প্রয়োজন বুঝে প্লাটিলট বা ফ্রেশ রক্ত দেওয়া যেতে পারে এ ধরনের পরিস্থিতি খুব কমই দেখা যায়।

*জ্বরের শেষে রক্তচাপ কমে যেতে পারে এবং মাড়ি নাক মল দ্বার দিয়ে রক্ত আসতে পারে। তাই সময় শিরা পথে স্যালাইন লাগাতে হবে এই পর্যায়ে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী স্যালাইন লাগানো উচিত।

কখন হাসপাতালে নিতে হবে

ডেঙ্গু জ্বরে কোথায় চিকিৎসা নিতে হবে বাসায় না হসপিটালে তা নির্ভর করে ডেঙ্গু রোগের ধরণের উপর। ডেঙ্গু রোগের ক্যাটাগরি তিনটি-এ বি ও সি । এ ক্যাটাগরিতে রোগীরা স্বাভাবিক থাকে। এ সময় শুধু জ্বর থাকে। তাদের বাড়িতে বিশ্রাম নেওয়া ভালো হসপিটালে ভর্তি হওয়ার কোন প্রয়োজন নেই।

বি ক্যাটাগরীতে  হাসপাতালে ভর্তি হাওয়া লাগতে পারে। পেটে ব্যথা বমি ডায়াবেটিক্স স্থূলতা অন্তঃসত্ত্বা জন্মগত সমস্যা কিডনি বা লিভারের সমস্যা থাকলে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার প্রয়োজন আছে।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন

সি ক্যাটাগরিতে রোগীর অবস্থা বেশি খারাপ থাকে। এ অবস্থায় লিভার কিডনি মস্তিষ্ক জনিত সমস্যা হতে পারে। প্রয়োজনে আইসিও তে রাখতে হতে পারে।

স্বাভাবিকভাবে ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে মানুষের মধ্য প্রচুর উদ্বেগ তৈরি হয়। অন্য যেকোনো সময় তুলনায় ঢাকায় ডেঙ্গু জ্বরের প্রকোপ সবসময় বেশি থাকে। অনেক শিশুসহ ডাক্তার চিকিৎসকও মারা যায় এই ডেঙ্গু জ্বরে।

ডেঙ্গু জ্বর হলে কি ওষুধ নিতে হবে?

শুধুমাত্র প্যারাসিটামল। তবে অবস্থা বেশি খারাপ  হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

ডেঙ্গু জ্বর হয় কি কারনে?

এডিস মশা কামড়ালে ডেঙ্গু জ্বর হয়।

এডিস মশার কামড় থেকে বাঁচতে কি করতে হবে?

নিয়মিত মশারি টানিয়ে ঘুমাতে হবে। আশেপাশের ঝোপ যার পরিষ্কার রাখতে হবে কোথাও পানি জমে রাখা যাবে না। মশা নিধনের ব্যবস্থা করতে হবে।

পোস্ট ট্যাগ-

ডেঙ্গু জ্বর কত দিন থাকে,ডেঙ্গু জ্বর হলে কি গোসল করা যাবে,ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধ,ডেঙ্গু রোগের লক্ষণ ২০২২,ডেঙ্গু জ্বর হলে কি খেতে হবে,ডেঙ্গু জ্বর কি ছোঁয়াচে রোগ,ডেঙ্গু জ্বর কি,ডেঙ্গু কিভাবে ছড়ায় ।

আপনার জন্য-

বমি হলে কি খাওয়া উচিত

থ্যালাসেমিয়া রোগীর জন্য উপযোগী খাবার

সিজারিয়ান মায়ের খাদ্য তালিকা

সুস্থ থাকতে স্বাস্থ্যকর খাবার খাবার গ্রহণ

কিডনি পরিষ্কার রাখার ৯টি খাবার সম্পর্কে জেনে নেই

শীতে ত্বকের যত্ন নিন রুটিন মাফিক

শীতের মৌসুমে ত্বকের যত্ন নিতে মধু ব্যবহার করুন

শীতে ত্বকের যত্ন কিভাবে নিবেন

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪৯১ other subscribers

প্রতিদিন আপডেট পেতে আমাদের নিচের দেয়া এই লিংক এ যুক্ত থাকুন

SS IT BARI- ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন

SS IT BARI- ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এখানে ক্লিক করুন।
SS IT BARI- ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে :এএখানে ক্লিক করুন এবং দারুণ সব ভিডিও দেখুন।
গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে :এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন।
SS IT BARI-সাইটে বিজ্ঞাপন দিতে চাইলে যোগাযোগ করুন :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুইটার থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- লিংকদিন থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- ইনস্টাগ্রাম থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুম্বলার (Tumblr)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- পিন্টারেস্ট (Pinterest)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

কোন অভিজ্ঞতা ছাড়াই অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চাইলে এই ফেসবুক পেজটি লাইক করে সাথেই থকুন : এখানে ক্লিক করুন।

SS It BARI JOB NEWS

SS IT BARI-ভালোবাসার টেক ব্লগ টিম