যেসব খাবার ডায়াবেটিকস নিয়ন্ত্রণ করে

ডায়াবেটিকস নিয়ন্ত্রণ-বর্তমান বিশ্বে ডায়াবেটিস একটি বহুল প্রচলিত রোগ। এটি এমন একটি প্রতিকার নেই কিন্তু প্রতিরোধ আছে। অর্থাৎ ডায়াবেটিস রোগ একবার বলে যা নিরাময় হয়না কিন্তু নিয়ন্ত্রণ করে সারা জীবন সুস্থ ভাবে জীবন যাপন করা যায়। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সবচেয়ে বড় ভূমিকা হল খাবারের দিকে সতর্কতা অবলম্বন করা। নিয়মিত ব্যায়াম বা শরীরচর্চা করেও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।

গরুর দুধ খাওয়ার উপকারিতা

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আমাদের যেসব খাবার খাওয়া উচিত সেগুলো সম্পর্কে সঠিক ভাবে জানা থাকলে আমরা নিয়মিতভাবে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণকারী খাদ্যাভ্যাস তৈরি করতে পারি। যেসব খাবার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে সেই খাবার সম্পর্কে অবশ্যই জেনে রাখা উচিত। যেসব খাবার ডায়াবেটিকস নিয়ন্ত্রণ করে

আজকে‌ আমাদের আলোচনা মূল বিষয় হলো যেসব খাবার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে সেই খাবার গুলো সম্পর্কে আপনাদের অবগত করা। সঠিক খাদ্যাভ্যাস তৈরি করতে পারলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রেখে সুস্থ থাকা সম্ভব। যখন দেখে নেই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কি কি খাবার খাওয়া উচিত।

ফাইবার জাতীয় খাবার খাবেন

যেসব খাবারে শর্করার পরিমাণ কম কিন্তু ফাইবারের মাত্রা বেশি সেই সব খাওয়া ডায়বেটিস রোগীদের জন্য উপকারী। মে সকল ফল বা সবজিতে আশ আছে সে সকল ফল বা সবজি শর্করার অভাব কমিয়ে দিতে পারে। যেমন বাদাম   মটর দানা বা সিম জাতীয় খাবার ভুট্টা। ভুট্টাতে প্রচুর ফাইবার আছে আছে। এছাড়াও বান্টি তরমুজ এ সকল আঁশযুক্ত খাবার খেলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে। এবং আঁশযুক্ত খাবার পেটে অনেকক্ষণ থাকে এছাড়াও দেহের পরিপ্রাকতন্ত্র সুস্থ রাখে।

চিনি ছাড়া চা খাওয়া

ব্ল্যাক টি অথবা গ্রিন টি শরীরের জন্য বেশি উপকারী এতে আছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে। তবে হ্যাঁ এক্ষেত্রে অবশ্যই চা হতে হবে চিনিমুক্ত। ডায়াবেটিস রোগীদের চিনি ছাড়া চা খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে।

অতিরিক্ত চিনি দেহে সুগারের মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে।

প্রোটিন জাতীয় খাবার

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য প্রোটিন জাতীয় খাবার গ্রহণের কোন বাধা নেই। তবে খেয়াল রাখতে হবে মাংস খাওয়ার ক্ষেত্রে আমরা কোন মাংস খেতে পারব যেমন গরুর মাংস ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য মোটেও স্বাস্থ্যকর নয় এতে ডায়াবেটিসের মাত্রা বাড়তে পারে। কিন্তু মুরগির মাংস কোয়েলের মাংস কবুতরের মাংস খাওয়া যেতে পারে।

শীতে ছেলেদের ত্বকের যত্নে করনীয়

অতিরিক্ত চর্বি জাতীয় মাছ এড়িয়ে চলতে হবে। সিমের বিচি বিভিন্ন ধরনের ডাল বা শস্য দানাতে থাকে প্রচুর প্রোটিন যা গ্রহণ করলে ডায়াবেটিস রোগীদের ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে। এছাড়াও দুধ ও দগ্ধ জাতীয় খাবার যেমন সরাসরি এক গ্লাস দুধের সাথে দারুচিনি এড করে খেতে পারেন এছাড়া খাবারের পর টক দই খাওয়া যেতে পারে এতে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে।

সামান্য একটু চর্বি জাতীয় খাবার

ডায়াবেটিস রোগীদের ক্ষেত্রে সাধারণত চর্বি জাতীয় খাবার মোটে ও স্বাস্থ্যকর নয়। কিন্তু শরীরে অনেক সময় চর্বি প্রয়োজনীয় যার কারণে ডায়াবেটিস রোগীদের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত চর্বি জাতীয় খাবার না খেয়ে কম চর্বি জাতীয় খাবার মাঝে মাঝে গ্রহণ করা যেতে পারে। যেমন অলিভ অয়েল দিয়ে তৈরি সালাদ বা সামান্য রোস্ট করার লিনমিট খাওয়া যেতে পারে। যেসব খাবার ডায়াবেটিকস নিয়ন্ত্রণ করে

এছাড়াও যেসব খাবারে ডায়াবেটিস কে নিয়ন্ত্রিত রাখতে পারে

লেবু

লেবু লেবু জাতীয় ফল ডায়াবেটিস প্রতিরোধে কাজ করে।অনেক গবেষণায় দেখা গেছে যে শরীরের ভিটামিন সি এর অভাবে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বেশি থাকে। তবে লেবু জাতীয় ফল খেলে ভিটামিন সি এর অভাব পূরণ হয় যেমন জাম্বুরা কমলালেবু লেবু লাইমস  ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ইনসুলিনের মত কাজ করে।

টক দই

তবে একটি স্বাস্থ্যকর খাদ্য। টক দই ডায়াবেটিস প্রতিরোধে সহায়তা করে। রক্তে চিনির পরিমাণ কমাতে টক দই ‌সাহায্যকারী ভূমিকা পালন করে।

শস্য দানা

শসদেনা ও শরীরে চিনির মাত্র নিয়ন্ত্রণ করে। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় ডায়াবেটিস রোগী কোন না কোন শস্যদানা  থাকা জরুরী।

সবুজ শাকসবজি

পালং শাক পাতা কপি শালগম ফুল কপি বাঁধাকপি লেটুস পাতা এসব শাকসবজিতে ক্যালরি এবং কার্বোহাইড্রেট এর মাত্রা কম থাকে। যা ডায়াবেটিক্স নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ১৪% পর্যন্ত কাজ করে সবুজ শাকসবজি। তাই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের ডায়াবেটিস রোগীদের খাদ্য তালিকায় সবুজ শাকসবজি জরুরী।

গ্রিন টি

গ্রিন টির মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। গ্রিন টি মানুষের শরীরে ইনসুলিনের মত কাজ করে যা ডায়বেটিস প্রতিরোধ করতে সহায়তা করে থাকে।

ডায়াবেটিস রোগীদের খাদ্য তালিকায় যে সমস্ত খাবার থাকবে

*ফলমূল ও সবুজ শাকসবজি যেগুলোতে ভিটামিন সি এর পরিমাণ বেশি

*শ্বেতসার জাতীয় খাবার।  যেমন লাল চালের ভাত লাল আটার রুটি।

* প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার।যেমন কম চর্বিযুক্ত মাছ মাংস ডিম শিমবীজ বিভিন্ন ধরনের ডাল।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আরো করণীয় হলো

*বৈচিত্র্যময় খাবার খাওয়া অর্থাৎ প্রতিদিন একই রকম খাবার না খেয়ে খাবারের ফল ও শাকসবজিতে বৈচিত্রতা আনতে হবে যাতে শরীরে সব ধরনের পুষ্টিগুণ সম্পূর্ণ থাকে।

*চর্বি জাতীয় খাবার কে এড়িয়ে যেতে হবে শ্বেতসার জাতীয় খাবার বেশি পরিমাণে খাওয়া উচিত এতে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন

*ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকার আরো একটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো সময়মতো খাবার খেতে হবে অর্থাৎ সকালের নাস্তা দুপুরের খাবার বিকেলের নাস্তা রাতের খাবার প্রতিদিন একই সময় খেতে হবে। খাবারের ক্ষেত্রে সময় এদিক সেদিক হলে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য তার ক্ষতিকর।

কোন ধরনের খাবার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে এড়িয়ে যাব?

কিছু কিছু খাবারের সুগারের মাত্রা অতিরিক্ত থাকে যে সকল খাবার ডায়াবেটিক্স নিয়ন্ত্রণে তো দূরের কথা ডায়াবেটিসের মাত্রা কে বাড়িয়ে দেয় তাই সুগার জাতীয় খাবার এবং অতিরিক্ত চর্বি জাতীয় খাবার কি সবসময় এড়িয়ে যেতে হবে।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কি  কি খাব?

কোন ঔষধই চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত খাওয়া উচিত নয় ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে কোন ওষুধ আপনাকে খেতে হবে তা অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী খাবেন।

ডায়াবেটিস কেন হয়ে থাকে?

সাধারণত একটি রোগ সৃষ্টির  পেছনে কিছু কারণ থাকে।  শারীরের ওজন বেশি হলে, শারীরিক পরিশ্রম কম করলে, এছাড়া পরিবারের সদস্য যেমন মা বাবা ভাই বোন কারো ডায়াবেটিস টাইপ টু থাকলে ডায়াবেটিস হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

দিন দিন ডায়াবেটিস রোগীদের সংখ্যা বেড়েই চলছে। এই রোগ মানুষের অন্য সব রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে ধীরে ধীরে কমিয়ে দেয় যার ফলে মানুষের শারীরিক অবস্থার দিন দিন অবনতি হতে থাকে। যেহেতু এটি নিরাময় অযোগ্য রোগ তাই অবশ্যই এটি নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য আমাদের যেসব করণীয় তা নিয়ম অনুযায়ী করতে হবে যাতে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে সুস্থ ভাবে জীবন যাপন করা যায়।

আপনার জন্য-

শীতে ত্বকের যত্ন নিন রুটিন মাফিক

শীতের মৌসুমে ত্বকের যত্ন নিতে মধু ব্যবহার করুন

শীতে ত্বকের যত্ন কিভাবে নিবেন

শুষ্ক ত্বকের জন্য কোন ক্রিম ভালো

শীতে ত্বকের যত্নে অলিভ অয়েলের ব্যবহার

এবার শীতে ত্বকের যত্নে ঘরোয়া টিপস

কিভাবে শীতে ত্বকের যত্ন নিবেন

যে ভিটামিনের অভাবে বিশ্রাম নিয়েও ক্লান্ত থাকেন

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪৭৬ other subscribers

প্রতিদিন আপডেট পেতে আমাদের নিচের দেয়া এই লিংক এ যুক্ত থাকুন

SS IT BARI- ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন

SS IT BARI- ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এখানে ক্লিক করুন।
SS IT BARI- ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে :এএখানে ক্লিক করুন এবং দারুণ সব ভিডিও দেখুন।
গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে :এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন।
SS IT BARI-সাইটে বিজ্ঞাপন দিতে চাইলে যোগাযোগ করুন :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুইটার থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- লিংকদিন থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- ইনস্টাগ্রাম থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুম্বলার (Tumblr)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- পিন্টারেস্ট (Pinterest)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

কোন অভিজ্ঞতা ছাড়াই অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চাইলে এই ফেসবুক পেজটি লাইক করে সাথেই থকুন : এখানে ক্লিক করুন।