কোন খাবারে ভিটামিন এ পাওয়া যায় (গুরুত্বপূর্ণ তথ্য)

বেঁচে থাকার জন্য খাদ্যের কোন বিকল্প নেই। খাবার গ্রহণের উপরি নির্ভর করে দেহের সুস্থতা। আমাদের শরীরে যে ছয়টি অপরিহার্য উপাদানের প্রয়োজন রয়েছে তার মধ্যে ভিটামিন একটি। আর এই ভিটামিনের চাহিদা পূরণ করতে বিভিন্ন ধরনের খাবার খেতে হয়। ভিটামিন গুলোর মধ্য ভিটামিন এ শরীরের জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ খনিজ। এমন কিছু খাদ্য রয়েছে যেগুলো খাওয়ার মাধ্যমে শরীরে ভিটামিন এ এর চাহিদা পূরণ হবে। ভিটামিন এ শরীরকে সুস্থ রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাই অবশ্যই আমাদেরকে ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাবার সম্পর্কে জেনে রাখা উচিত।

আজকের আর্টিকেলটিতে আমি আলোচনা করব ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাবারগুলো সম্পর্কে। ভিটামিন এ এর অভাবজনিত কারণে শরীরে রাতকানা রোগের মত আরও জটিল সমস্যা দেখা দিতে পারে। যার কারণে ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাদ্য গ্রহণ করা খুবই জরুরী।অনেকে ভিটামিন এ এর অভাবজনিত কারণে বিভিন্ন সমস্যায় ভুগে থাকেন তারা অবশ্যই আজকের আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে শেষ পর্যন্ত পড়বেন এবং ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাবার সম্পর্কে জেনে এই খাবারগুলো খাওয়ার চেষ্টা করবেন।কোন খাবারে ভিটামিন এ পাওয়া যায়

ভিটামিন কি

ভিটামিন হলো আমাদের খাদ্যের মধ্য থাকা এমন একটি উপাদান যা স্বাস্থ্য রক্ষার জন্য অতি প্রয়োজন। ভিটামিন নামক জৈব পদার্থ গুলোকে খাদ্যপ্রাণ বলা হয়। বিশ্বের সর্বপ্রথম পোল্যান্ডের বিজ্ঞানী ক্যাসিমির ফ্রাঙ্ককে ভিটামিনের আবিষ্কার করেন। ভিটামিন দুই প্রকার। যথা-

গর্ভাবস্থায় গ্যাস্ট্রিকের ওষুধ খাওয়া যাবে কি না(গুরুত্বপূর্ণ তথ্য)

১) তেলে দ্রবণীয় ভিটামিন(এ, ডি, ই, কে)

২) পানিতে দ্রবনীয় ভিটামিন (বি কমপ্লেক্স, সি)

সবুজ শাক-সবজিতে সবচেয়ে বেশি খনিজ লবণ ও ভিটামিন থাকে। আর শাক তেল দিয়ে রান্না করতে বলা হয় কারণ হলো শাকের ভিটামিন তেলের দ্রবীভূত হয়। মানুষের শরীরে ভিটামিন ডি, বি ৩, বি ১২ এবং কে তৈরি হয়। এবং মানবদেহের অভ্যন্তরে বিটা ক্যারোটিন হতে ভিটামিন এ তৈরি হয়।

ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার

গাজর

একজন মানুষের গড় চাহিদার ৩৩৪ শতাংশ পূরণ করে এক কাপ গাজর। গাজরের মধ্য প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ পাওয়া যায়।

মিষ্টি আলু

মিষ্টি আলুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ।একটি মিষ্টি আলোয় মানুষের দৈনন্দিন ভিটামিন এ এর গড় চাহিদার ৪৩৮ শতাংশ পূরণ করতে সক্ষম।এছাড়াও মিষ্টি আলু ত্বকের কোষের জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন এ সরবরাহ করতে এবং ইনফেকশন বা সংক্রমণ ঠেকাতে সাহায্য করে। তাই ভিটামিন এ এর চাহিদা পূরণ করতে মিষ্টি আলু খাওয়া জরুরি।

সবুজ শাকসবজি

সবুজ শাকসবজিতে ভিটামিন এ এর পাশাপাশি রয়েছে ম্যাঙ্গানিজ ক্যালসিয়াম আয়রন ভিটামিন সি এবং কে। তাই ভিটামিন এ এর অভাবজনিত সমস্যায় যারা ভোগে তাদের উচিত বেশি বেশি সবুজ শাকসবজি খাওয়া।

টমেটো

টমেটো এমন একটি সবজি যাতে ক্যালরি কম থাকলেও মিনারেল কনটেন্টে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ। একটি মাঝারি আকারের টমেটো একজন মানুষের দৈনন্দিন চাহিদার ২০ শতাংশ পূরণ করতে সক্ষম।

দগ্ধজাত খাবার

প্রতিদিন এক কাপ দুধ ১০ থেকে ১৪ শতাংশ পর্যন্ত ভিটামিন এ সরবরাহ করতে পারে।আর যদি দুধের তৈরি পনির খাওয়া যায় তাহলে তা এক থেকে ছয় শতাংশ পর্যন্ত সরবরাহ করতে পারে ভিটামিন এ।

মিষ্টি কুমড়া

মিষ্টি কুমড়া ভিটামিন এ এর একটি গুরুত্বপূর্ণ উৎস। মিষ্টি কুমড়াতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ পাওয়া যায়। তাই যারা ভিটামিন এ এর চাহিদা পূরণ করতে চাচ্ছেন তাদের খাদ্য তালিকায় প্রতিদিন মিষ্টি কুমড়া রাখতে পারেন। মিষ্টি কুমড়াতে ভিটামিন এ এর সাথে পাওয়া যাবে বিটা ক্যারোটিন।

ক্যাপসিকাম

বর্তমানে বাজারে অনেক রংয়ের ক্যাপসিকাম পাওয়া যায়। আপনি কি জানেন ক্যাপসিকাম এর রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ।তাই অবশ্যই ভিটামিন এ এর চাহিদা পূরণে ক্যাপসিকাম খান।

লালমরিচ

লালমরিচ্ছে ভিটামিন এ এর পাশাপাশি থাকে কারোটেনয়েডস এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট।প্রতিদিন যদি খাদ্য তালিকায় লাল মরিচ থাকে তাহলে মানব দেহের দৈনন্দিন ভিটামিন এ এর চাহিদার ৪২ শতাংশ পূরণ করবে এই লাল মরিচ।

মাছ

মাছ ভিটামিন এ এর অন্যতম একটি উৎস। তেল যুক্ত মাছগুলো ভিটামিন এ এর চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম। টুনা মাছ ভিটামিন এ এর উন্নত মানের একটি উৎস।

মাংস

মাংস তে রয়েছে ভিটামিন এ এর প্রাণিজ উৎস। যারা মাংস ভালোবাসেন পরিমাণ মতো মাংস খেলে ভিটামিন এ এর চাহিদা পূরণ করতে তা উপকারী হবে।

ভিটামিন জাতীয় খাবার খেলে কি হয়?

ভিটামিন এ হচ্ছে এমন একটি খনিজ যা ফ্যাট বা চর্বিতে দ্রবণীয়। ভিটামিন এ এর অভাবজনিত কারণে দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে যেতে পারে, হৃদপিণ্ড ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, ফুসফুস কিডনির স্বাভাবিক কার্যক্রম বিনষ্ট হতে পারে। তাই এ সকল সমস্যা গুলো এড়িয়ে চলতে হলে অবশ্যই ভিটামিন এ এর চাহিদা পূরণ করতে হবে। ভিটামিন এ মানব দেহে প্রজননের জন্য খুবই উপকারী। ভিটামিন এ জাতীয় খাবারগুলো পর্যাপ্ত পরিমাণে খেলে এই সমস্যাগুলো আপনাকে মোকাবেলা করতে হবে না।

ভিটামিন জাতীয় খাবার কেন খাবেন?

ভিটামিন এ এর অভাব পূরণ করতেই ভিটামিন এ জাতীয় খাবার খেতে হবে। ভিটামিন এ এর অভাবজনিত যে সকল সমস্যাগুলো রয়েছে সেগুলো যাতে শরীরে কোনভাবেই জটিলতা সৃষ্টি করতে না পারে তাই ভিটামিন এ এর চাহিদা পূরণ করতে হবে। দেখে নিন ভিটামিন এ জাতীয় খাবার গুলো কেন খাবেন?

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন

১) ভিটামিন এ এর অভাবে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। তাই দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এবং দেহের আদ্রতা বজায় রাখতে দেহকে সচল রাখতে অবশ্যই ভিটামিন এ জাতীয় খাবার খেতে হবে।ভিটামিন এ শরীরের বিভিন্ন রোগ সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করে।

*যারা চোখে কম দেখে। রাতকানা রোগের মত সমস্যা যাদের রয়েছে। তাদের চোখের সুস্থতায় ভিটামিন এ এর কোন বিকল্প নেই। ভিটামিন এ এর অভাবে দৃষ্টিশক্তি কমে যায়। ভিটামিন এ এর অভাবে চোখের কর্নিয়ার ইনফেকশন হতে পারে। আর এই ইনফেকশন যদি গুরুতর হয় সেক্ষেত্রে একজন রোগী সারা জীবনের জন্য অন্ধ হয়ে যেতে পারে। তাই ভিটামিন এ এর অভাব কোনভাবেই শরীরে যাতে না হয় সেজন্য এ সমৃদ্ধ খাবারগুলো খেতে হবে।

*ত্বককে সুরক্ষিত রাখতে ভিটামিন এ জাতীয় খাবারগুলো খুবই উপকারী। ত্বকের সুরক্ষা এবং আদ্রতা যেন বজায় থাকে সেজন্য অবশ্যই ভিটামিন এ জাতীয় খাদ্য খেতে হবে।

*অকাল বাধ্যক্য ঠেকাতে ভিটামিন এ এর শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ত্বকের চামড়ায় বার্ধক্য প্রকাশের সম্ভাবনাকে কমিয়ে দেয়।

*মস্তিষ্কের পূর্ণবিকাশে ভিটামিন এ জাতীয় খাদ্য খুবই প্রয়োজনীয়। তাই একজন ক্রমবর্ধমান শিশুর ক্ষেত্রে অবশ্যই ভিটামিন এ জাতীয় খাবারগুলো খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

*একজন গর্ভবতী মায়ের গর্ভের সন্তানের সম্পূর্ণ বিকাশ সাধনে এবং যথাসময়ে জন্মগ্রহণ করাতে ভিটামিন এ জাতীয় খাবার কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

সবচেয়ে বেশি কোন খাবারে ভিটামিন পাওয়া যায়

বিশেষজ্ঞদের মতে ভিটামিন এ জাতীয় খাবার গুলোর প্রধান উৎস হলো সবুজ শাকসবজি রঙিন ফলমূল এবং মাছ-মাংস। তবে অনেকেই বলে থাকেন ভিটামিন এ সবচেয়ে বেশি পরিমাণে মজুদ রয়েছে গাজরে।এক কাপ গাজরে যে পরিমাণ ভিটামিন এ থাকে তা একজন মানুষের গড় চাহিদার ৩৩৪ শতাংশ পূরণ করতে সক্ষম। গাজর বিভিন্ন ভাবে প্রক্রিয়াকরণ করেও খেতে পারেন। নানা প্রকার খাদ্য তৈরিতে গাজর ব্যবহৃত হয় বিশেষ করে সালাদে এর ব্যবহার ব্যাপক ‌ তাই ভিটামিন এ এর অভাবজনিত সমস্যায় ভুগলে অবশ্যই বেশি বেশি গাজর খাওয়ার অভ্যাস করুন।

সকলেরই স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন থাকা উচিত। আমাদের শরীরে যে সকল ভিটামিন গুলো প্রয়োজন সেগুলোর চাহিদা পূরণ করতে স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে হবে। কোন খাবারে কোন ভিটামিন পাওয়া যাবে এই সম্পর্কেও ভালো ধারণা রাখতে হবে যাতে করে দেহে যে ভিটামিনের অভাব রয়েছে সেই ভিটামিন যেসব খাবারে পাওয়া যাবে ওই খাবারগুলো খেয়ে ভিটামিনের চাহিদার যেন পূরণ হয়। আর যদি আপনি তা না জানেন তাহলে আপনি অবশ্যই কোন পুষ্টিবিদ অথবা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে পারেন।

সচরাচর জিজ্ঞাসা

ভিটামিন এর অভাবে কি হয়?

ভিটামিন এ এর অভাবে রাতকানা রোগ হয়, এছাড়াও হৃদপিন্ডের সমস্যা, ত্বকের সমস্যা, ফুসফুস ও কিডনির স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যাহত হতে পারে।

ভিটামিন কি?

আমাদের খাদ্যে এমন কিছু জৈব পদার্থ আছে যা স্বাস্থ্য রক্ষার জন্য অতি প্রয়োজনীয়।এই প্রয়োজনীয় জৈব পদার্থগুলোকে খাদ্য প্রাণ বা ভিটামিন বলে।

সবচেয়ে বেশি ভিটামিন পাওয়া যায় কোনটিতে?

বিশেষজ্ঞ বা পুষ্টিবিদদের মতে সবচেয়ে বেশি ভিটামিন পাওয়া যায় গাজরে।

আমাদের শেষ কথা

আমাদের আজকের আর্টিকেলটিতে আলোচনা করা হয়েছে ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাবারগুলো কি কি । ইতোমধ্যেই আপনারা আজকের আর্টিকেলটি পড়ে বিষয়গুলো সম্পর্কে অবগত হয়েছেন। এ বিষয়ে কারো কোন জিজ্ঞাসা থাকলে অবশ্যই আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। আপনাদের যদি আমাদের ওয়েবসাইটের আর্টিকেল গুলো ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন আমাদের ওয়েবসাইটের কথা। আরো নতুন নতুন আর্টিকেল পেতে আমাদের ওয়েবসাইট নিয়মিত ভিজিট করবেন। আজকের মতো এ পর্যন্তই। সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন।

Post tags-

ভিটামিন d জাতীয় খাবার,ভিটামিন c যুক্ত খাবারের তালিকা,ভিটামিন বি ১২ সমৃদ্ধ ফল,ভিটামিন যুক্ত খাবারের তালিকা,ভিটামিন বি জাতীয় খাবার,ভিটামিন জাতীয় খাবার,ভিটামিন বি ১২ জাতীয় খাবার,ভিটামিন ই জাতীয় খাবার

আপনার জন্য আরো 

আপনার জন্য-

গ্যাস্ট্রিক দূর করতে মেথি খাওয়ার নিয়ম

অ্যাজমা রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা 

থাইরয়েড রোগ থেকে মুক্তি পেতে করণীয়

চর্মরোগ থেকে মুক্তি পাওয়ার কার্যকারী চিকিৎসা

যক্ষা বা টিবি রোগের লক্ষণ

ক্যান্সার রোগের যেসব লক্ষণ এড়িয়ে যাবেন না

শ্বেতী রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা সম্পর্কে জেনে নিন

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪৯২ other subscribers

 

প্রতিদিন আপডেট পেতে আমাদের নিচের দেয়া এই লিংক এ যুক্ত থাকুন

SS IT BARI- ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন

SS IT BARI- ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এখানে ক্লিক করুন।
SS IT BARI- ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে :এখানে ক্লিক করুন এবং দারুণ সব ভিডিও দেখুন।

SS IT BARI- টুইটার থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- লিংকদিন থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- ইনস্টাগ্রাম থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুম্বলার (Tumblr)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- পিন্টারেস্ট (Pinterest)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS It BARI JOB NEWS

SS IT BARI-ভালোবাসার টেক ব্লগ টিম