কম্পিউটার ভাইরাস কি? কম্পিউটার ভাইরাস কত প্রকার ও কি কি? কম্পিউটার ভাইরাসের লক্ষণ ও প্রতিরোধ

কম্পিউটার ভাইরাস-কম্পিউটার ভাইরাস হলো কম্পিউটারের অভ্যন্তরীণ এমন একটি প্রোগ্রাম যা অন্যান্য স্বাভাবিক সকল প্রোগ্রামকে নষ্ট করে দেয়। কম্পিউটার ভাইরাস কম্পিউটারের একটি জটিল সমস্যা। কম্পিউটার ভাইরাস ব্যবহারকারীর অনুমতি ছাড়াই নিজে নিজে কম্পিউটারে কপি তৈরি করতে পারে। কম্পিউটার ভাইরাস প্রতিরোধ সম্পর্কে প্রত্যেক কম্পিউটার ব্যবহারকারীর জেনে রাখা জরুরী।

কারণ এটি যে কোন কম্পিউটার বা ল্যাপটপের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর একটি  প্রোগ্রাম। কম্পিউটার ভাইরাস কোন কম্পিউটারে থাকলে কম্পিউটার function কাজ করে না, system error দেখায় দেখায় এছাড়াও কম্পিউটারে আরো বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দেয়।

কম্পিউটার ভাইরাস কি? কত প্রকার এর লক্ষণ এবং প্রতিরোধের উপায় এই সম্পর্কে যারা বিভিন্ন ওয়েবসাইট সার্চ করেন তাদের জন্য আজকে আমাদের এই আর্টিকেলটি করার অনুরোধ রইল।আমাদের আজকের আর্টিকেলটিতে শেষ পর্যন্ত কম্পিউটার ভাইরাস ও এর প্রকারভেদ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। তাই এই সম্পর্কে জানতে শেষ পর্যন্ত আমাদের সাথে থাকবেন আশা করছি।

কম্পিউটার ভাইরাস

কম্পিউটার ভাইরাস কি

কম্পিউটার ভাইরাস হচ্ছে কম্পিউটার ের এমন এক প্রোগ্রাম যা কম্পিউটার ব্যবহারকারীর নির্দেশ ছাড়া নিজে নিজে কাজ করে। Viral Information and Resource Under Siege (VIRUS) নামকরণটি করা হয় ১৯৮৩ সালে। ফ্রেন্ড কহেন কম্পিউটার ভাইরাসের এই নামকরণ করেন। কম্পিউটার ভাইরাস কম্পিউটারে থাকা স্বাভাবিক ফাইল বা প্রোগ্রামকে নষ্ট করে দেয়।

এই কম্পিউটার ভাইরাস ব্যবহারকারীর অনুমতি বা নির্দেশ ব্যতীত নিজে নিজে কপি তৈরি করতে পারে। কম্পিউটার ভাইরাস এক কম্পিউটারে থেকে অন্য কম্পিউটারের স্থানান্তর হতে পারে কেবল যদি আক্রান্ত কম্পিউটারকে স্বাভাবিক কম্পিউটারের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়।

ডিজিটাল কম্পিউটারের প্রকারভেদ

কম্পিউটার ভাইরাস ছড়াতে পারে ফ্লপি ডিস্ক, সিডিউএসবি ড্রাইভ বা ইন্টারনেটের মাধ্যমে। কম্পিউটার ভাইরাসের মেইন কাজ হলো কম্পিউটার সিস্টেমে প্রবেশ করে অন্যান্য প্রোগ্রাম বা ফায়েল গুলোকে মডিফাই করে নিজের কিছু ক্ষতিকারক কোড সেইসব প্রোগ্রাম বা ফাইলগুলোতে লিখে দেয়।

এতে করে কম্পিউটারের অন্যান্য ফাইল গুলি সেই ক্ষতিকারক ভাইরাসটির মতোই কাজ করতে শুরু করে। যখন কোন কম্পিউটারের প্রোগ্রাম একা একাই কাজ করে সিস্টেম ফেল হয়ে যায় তখন বুঝতে হবে সেই কম্পিউটারে ভাইরাস রয়েছে।

কম্পিউটার ভাইরাস কত প্রকার কি কি

কম্পিউটার ভাইরাস অনেক প্রকারের হতে পারে। কম্পিউটার ভাইরাসের বিভিন্ন  রকমের হতে পারে। যেসব ভাইরাস গুলো কম্পিউটারের আক্রান্ত করে কম্পিউটার প্রোগ্রাম বা ফাইলগুলোকে ড্যামেজ করে তাদের মধ্যে বেশি পরিচিত ভাইরাসগুলো হলো:

Resident virus

রেসিডেন্ট ভাইরাসকে আবাসিক ভাইরাস বলা হয়। এই রেসিডেন্ট ভাইরাস কম্পিউটারের র‍্যামে বসবাসকারী একটি ভাইরাস যা কম্পিউটারের সিস্টেমকে বাধা দেয় সঠিকভাবে কাজ করতে। এই ভাইরাসটি এত বেশি ছদ্মবেশী থাকে যা অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার থেকেও নিজেকে লুকিয়ে রাখতে পারে।

Multipartite virus

Multipartite virus টিকে বলা হয় বহুদলীয় ভাইরাস। এই বহুদলীয় ভাইরাসটি কম্পিউটারের পুরো  সিস্টেমকে সংক্রমিত করে থাকে। এই ভাইরাসটি ব্যবহারকারীর অনুমতি ছাড়া বা নির্দেশ প্রদান ব্যতীত কাজ সম্পাদন করার মাধ্যমে অপারেটিং সিস্টেম ফোল্ডার ও প্রোগ্রামের বিস্তার করে।

Direct action virus

এই ভাইরাসটি মূলত কোন নির্দিষ্ট ফাইল এর ধরনকে লক্ষ্য করে সরাসরি কাজ করে। এই ভাইরাস গুলো সাধারনত এক্সিকিউটেবল ফাইল হয়। এই ফাইলগুলোর প্রতিলিপি বা কফি তৈরি করে ভাইরাসটি সংক্রমিত হয়।

Browser hijacker

এই ভাইরাসগুলো কম্পিউটারে ওয়েট ব্রাউজার কে সংক্রমিত করে। এই ভাইরাসটি কম্পিউটার ব্যবহারকারীকে নির্দেশ প্রদান ছাড়াই বিভিন্ন অনাকাঙ্ক্ষিত ওয়েবসাইটে নিয়ে যায়। এটি সহজেই শনাক্ত যোগ্য একটি ভাইরাস।

Overwrite virus

এই ভাইরাসটি সাধারণত একটি সিস্টেমের সংক্রমিত হওয়ার পরে তার নিজস্ব কোর্ট দ্বারা ফাইলের কন্টেন্টকে ওভাররাইট করে। এই ভাইরাসটি নির্দিষ্ট কোন ফাইল বা সফটওয়্যারকে টার্গেট করে সংক্রমিত হয়।এটি এমন একটি ভাইরাস যা কম্পিউটার ডিভাইজের সম্পূর্ণ ফোল্ডার ও ফাইল এর ডেটা ধ্বংস করে দিতে পারে।

Trojans

এই ভাইরাসগুলো বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই হ্যাকাররা ছড়ায় এবং ব্যবহার করে। হ্যাকাররা এই ভাইরাসগুলোর দ্বারা কম্পিউটারের ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক গুলোতে প্রবেশ করে তাতে থাকা পার্সোনাল এবং গুপ্ত তথ্য চুরি করে নেয়।

Malware

এই ভাইরাসটি বানানো হয় মূলত কম্পিউটার কে ড্যামেজ করার জন্য এবং যাতে কম্পিউটারের পুরো ফাংশনে ছড়ানো যায় সেই উদ্দেশ্যে।এই ভাইরাসটি সাধারণত অন্য কম্পিউটার থেকে ফাইল কপি করার সময় এবং ইনফেটেড ইউএসবি ডিভাইস ব্যবহার করার সময় ছড়ায়।

কম্পিউটার ভাইরাস আক্রান্তের লক্ষণ

কম্পিউটার ডিভাইসে কম্পিউটার ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার কিছু নির্দিষ্ট লক্ষণ রয়েছে। এসব লক্ষণ প্রকাশ পাওয়ার পর কম্পিউটারে ভাইরাস দূরীকরণের ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। কম্পিউটারের ভাইরাস আক্রান্তের লক্ষণগুলোর মধ্য কয়েকটি লক্ষণ তুলে ধরা হলো:

*অটোমেটিক্যালি অন্যান্য ওয়েব পেজ বা ওয়েবসাইট খুলে গেলে বোঝা যায় এটি এডওয়ার ভাইরাস।

*কম্পিউটার সিস্টেমের ভেতরে নীরবে বসে থাকা এবং আস্তে আস্তে সিস্টেম বা program file গুলোকে এডিট করে তাতে নিজের কোড বসিয়ে দেয় এমন ভাইরাস হলো সেলফ রিপ্লেকেটিং ভাইরাস।

*কম্পিউটার নিজে নিজেই রিস্টার্ট হয়।

*কম্পিউটার অত্যধিক হ্যাং হয়ে যায়।

*ইন্টারনেট স্লো হয়ে যায়।

*অবাঞ্ছিত পপ আপ উইন্ডোজ‌।

*কম্পিউটার অস্বাভাবিক ভাবে কাজ করে।

*প্রোগ্রামগুলো নিজে নিজে কাজ করে।

*হঠাৎ এক জায়গায় হ্যাং হয়ে বসে থাকে।

*সিস্টেম এরর দেখায়।

*যদি কম্পিউটারে নিজে নিজেই বিজ্ঞাপন দেখানো হয়।

*ব্রাউজারে পপ-আপ পেজ খুললে।

*হার্ডওয়্যার বা সফটওয়্যার প্রবলেম হওয়া।

এই ধরনের লক্ষণগুলো আপনি কম্পিউটারে দেখতে পেলে অবশ্যই কম্পিউটারে ভাইরাস আছে বলে অনুমান করতে পারেন। যদি এই লক্ষণগুলো আপনার কম্পিউটারে থাকে তাহলে এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার ইন্সটল করে স্ক্যান করে দেখতে পারেন। যদি ভাইরাস আসলেই থাকে তাহলে সেই স্ক্যানার এর মাধ্যমে ভাইরাস ধরা পড়ে।

কম্পিউটার ভাইরাস প্রতিরোধ

কম্পিউটার ভাইরাস প্রতিরোধের জন্য সর্বোত্তম ব্যবস্থা হল সচেতনতা বা সতর্কতা। কম্পিউটারে সবসময় অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ব্যবহার করবেন। এছাড়াও কম্পিউটার ভাইরাসের প্রতিরোধের উপায় গুলো হলো:

*অপ্রয়োজনীয় পপ আপ বিজ্ঞাপন গুলোতে ক্লিক করবেন না।

*কম্পিউটারে ইন্টারনেট ব্যবহার করলে অবশ্যই ইন্টারনেট সিকিউরিটি অ্যান্টিভাইরাস ব্যবহার করবেন।

*নিজের এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার গুলি আপ টু ডেট করে রাখবেন।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন

*সচরাচর কোন ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করবেন না। কেবল বিশ্বস্ত এবং ভরসাযোগ্য ওয়েবসাইট থেকে ফাইল ডাউনলোড করবেন।

*ফ্রি সফটওয়্যার ডাউনলোড করার আগে ভালো করে পর্যবেক্ষণ করে নিবেন।

*অন্য কারো পেনড্রাইভ হারড ড্রাইভ বা যে কোন ইউএসবি ডিভাইস থেকে ফাইল কপি করার আগে যাচাই করবেন সেখানে ভাইরাস আছে কিনা।

*কখনো নিজের ইমেইলে চলে আসা ফাইল বা অ্যাটাচমেন্ট গুলো স্ক্যান না করে খুলবেন না।

কম্পিউটার থেকে ভাইরাস দূর করার উপায়

যদি আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপে ভাইরাস থাকে তাহলে অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ডাউনলোড করে ইন্সটল করে কম্পিউটার থেকে বের করতে পারবেন। কিন্তু কোন এন্টিভাইরাস ফ্রী সফটওয়্যার দিয়ে আপনি এই ভাইরাস রিমুভ করতে পারবেন না।আপনার কম্পিউটার থেকে ভাইরাস রিমুভ করতে হলে অবশ্যই আপনাকে একটি প্রিমিয়াম বা পেইন্ট অ্যান্টিভাইরাস কিনতে হবে ‌ এটি আপনি amazon বা flipart এর মত অনলাইন সব সাইট গুলোতে পেয়ে যাবেন।

অনেক সময় অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার কম্পিউটার থেকে অনেক রকমের ভাইরাস বের করতে অসমর্ত হয় তখন কেবল সিস্টেম রিস্টোর বা ফুল সিস্টেম ফরমেট ছাড়া কোন পথ থাকে না।

FAQ

কম্পিউটার ভাইরাসের জনক কে?

১৯৮৩ সালের ১০ নভেম্বর কম্পিউটার ভাইরাসের শুরু হয়। যুক্তরাষ্ট্রের সাউদান ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক শ্রেণীর ছাত্র ফ্রেন্ড কোহেন পেন্সিলভানিয়ার লেহিগ বিশ্ববিদ্যালয়ে নিরাপত্তা বিষয়ক এক সেমিনারে প্রথম কম্পিউটার ভাইরাস দেখান।

কম্পিউটার এন্টিভাইরাস কি?

কম্পিউটার এন্টিভাইরাস হলো সাধারণভাবে কম্পিউটারের ভাইরাস রুট করার জন্য ব্যবহৃত এক ধরনের প্রোগ্রাম যা কম্পিউটারের সংরক্ষণ এলাকা বা হার্ডডিস্ক বা যে কোন রিমুভেবল ডিস্ক হতে ভাইরাস শনাক্তকরণ প্রতিরোধ ও প্রতিকার করতে পারে।

কম্পিউটার ভাইরাসের প্রভাব কি?

কম্পিউটার ভাইরাস যদি একটি কম্পিউটারকে সংক্রমিত করে তাহলে ভাইরাসটি একই নেটওয়ার্কের অন্যান্য কম্পিউটার কে সংক্রমিত করতে পারে। পাসওয়ার্ড বা যেটা চুরি ক,রা কিস্ট্রোক গুলি লগ করা, ফাইলগুলোকে দূষিত করা আপনার নিজের ইমেইল পরিচিতিগুলোকে স্প্যাম করা এমনকি আপনার মেশিনের দখল নেওয়া হলো কিছু ধ্বংসাত্মক এবং বিরক্তিকর জিনিস যা একটি ভাইরাস করতে পারে।

শেষ কথা

আমাদের ওয়েবসাইটে নিয়মিত আর্টিকেল পড়তে অবশ্যই ওয়েবসাইটটি ভিজিট করবেন এবং আমাদের লিখা সম্বন্ধে  কোনো জিজ্ঞাসা থাকলে আমাদের জানাতে ভুলবেন না।আর আমাদের লেখা ভালো লাগলে অবশ্যই আপনারা আমাদের ওয়েবসাইটটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। আজকের মতো বিদায় নিচ্ছি।

Post tags-

১০ টি কম্পিউটার ভাইরাসের নাম,৫টি কম্পিউটার ভাইরাসের নাম,কয়েকটি কম্পিউটার ভাইরাসের নাম,
কম্পিউটার ভাইরাস কি সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন,কম্পিউটার ভাইরাস কে আবিষ্কার করেন,কম্পিউটার ভাইরাস ও এন্টিভাইরাস এর তালিকা,কম্পিউটার ভাইরাস কি কি ক্ষতি করে,কম্পিউটার ভাইরাস এর কাজ কি

আপনার জন্য আরো 

আরও পড়ুন-

কম্পিউটারের হার্ডওয়ার পরিচিতি

কম্পিউটার কিবোর্ড পরিচিতি- কোন বাটনের কি কাজ 

কম্পিউটারের বেসিক নলেজ গুলো জেনে নিন

কম্পিউটার অনুচ্ছেদ বাংলা ১০ম শ্রেণি

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪৯২ other subscribers

 

প্রতিদিন আপডেট পেতে আমাদের নিচের দেয়া এই লিংক এ যুক্ত থাকুন

SS IT BARI- ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন

SS IT BARI- ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এখানে ক্লিক করুন।
SS IT BARI- ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে :এখানে ক্লিক করুন এবং দারুণ সব ভিডিও দেখুন।

SS IT BARI- টুইটার থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- লিংকদিন থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- ইনস্টাগ্রাম থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুম্বলার (Tumblr)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- পিন্টারেস্ট (Pinterest)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SANAUL BARI

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। আমি মো:সানাউল বারী।পেশায় আমি একজন চাকুরীজীবী এবং এই ওয়েবসাইটের এডমিন। চাকুরীর পাশাপাশি গত ১৪ বছর থেকে এখন পর্যন্ত নিজের ওয়েবসাইটে লেখালেখি করছি এবং নিজের ইউটিউব এবং ফেসবুকে কনটেন্ট তৈরি করি।
বিশেষ দ্রষ্টব্য -লেখার মধ্যে যদি কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে অবশ্যই ক্ষমার চোখে দেখবেন। ধন্যবাদ।