ই পাসপোর্ট ফি কত 2022 -নতুন নিয়মে পাসপোর্ট করতে কত টাকা খরচ লাগে

ই পাসপোর্ট ফি কত 2022 –ই পাসপোর্ট বাংলাদেশ পাসপোর্ট সেবা জগতে নতুন একটি অধ্যায় বা সংযোজন বলা যেতে পারে। কারণ আগে যেসব পাসপোর্ট ইস্যু করা হতো সেগুলো কে বলা হত এমআরপি পাসপোর্ট। অনেকেই আমরা এমআরপির পূর্ণ নাম কি জানিনা?

পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে ২০২২

এমআরপির পূর্ণরূপ হল মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট। কিন্তু বর্তমানে এই পাসপোর্টে সুরক্ষার দিক থেকে বেশ কিছু ঘাটতি ছিল তাই আমাদের বাংলাদেশ সরকার 2021 সালের নভেম্বর মাস থেকে পুরোদমে ই পাসপোর্ট সেবা চালু করেছে।

ই পাসপোর্ট ফি কত 2022
ই পাসপোর্ট ফি কত 2022

আমাদের বাংলাদেশ সরকার দেশের মানুষের কথা এবং দেশের মানুষের সুবিধার কথা চিন্তা করে এই ই-পাসপোর্ট সেবা নিশ্চিত করেছে প্রতিটি জেলা এবং জেলা পাসপোর্ট অফিস স্থাপন করেছে। যাতে খুব সহজেই বাংলাদেশের মানুষজন যে কেউই ই পাসপোর্ট এর আওতাভুক্ত হতে পারে।

এছাড়াও ই-পাসপোর্ট ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে করে শুধু আঞ্চলিক অফিসে জমা দিলেও পাসপোর্ট করা হয়ে যাবে।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 

এখন ই-পাসপোর্ট পেতে হলে আলাদা কোনো বিশেষায়িত পাসপোর্ট অফিসের প্রয়োজন নেই দেশের প্রত্যেকটি পাসপোর্ট অফিস এই এখনই পাসপোর্ট পাওয়া সম্ভব।

তবে অনেকের মনেই ই-পাসপোর্ট আসার পর থেকেই পাসপোর্ট করার জন্য কি পরিমাণ ফি প্রদান করতে হয় এই বিষয়টি নিয়ে অনেক সংশয় রয়েছে। তাই আমি আজকের পোষ্টে একদম সরকারি পাসপোর্ট ফিস সম্পর্কে আপনাদেরকে সঠিক তথ্য দিয়ে দিব। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক।

ই পাসপোর্ট ফি কত 2022

আমাদের মধ্যে অনেকেই পাসপোর্ট করার জন্য কত টাকা ফি প্রদান করতে হয়। এটি না জানার কারণে অনেক ক্ষেত্রে অনেক দালাল চক্রের হাতে পড়ে আমরা বিভিন্ন রকম ভাবে অর্থনৈতিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে থাকি।

এখন চলুন জেনে নিই পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে। তো পাসপোর্ট করতে আসলে কত টাকা লাগে এটি নির্ভর করে পাসপোর্ট এর মেয়াদ এবং পাসপোর্ট এর পৃঠার উপরে এবং পাসপোর্ট এর ডেলিভারির উপরে তো চলুন নিচে আমি আপনাদেরকে সম্পূর্ণ বিস্তারিত দেখে দিচ্ছি একটি পাসপোর্ট করতে কিভাবে কত টাকা আপনাকে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে জমা দিতে হয় সে বিষয়ে।

৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি

ডেলিভারি ৫ বছর মেয়াদি ৪৮ পাতা ই পাসপোর্ট ফি ৫ বছর মেয়াদি ৬৪ পাতা ই পাসপোর্ট ফি
রেগুলার 4,025 টাকা 6,325 টাকা
এক্সপ্রেস/জরুরী 6,325 টাকা 8,625 টাকা
সুপার এক্সপ্রেস 8,625 টাকা 12,075 টাকা

 

১০ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি:

ডেলিভারি ১০ বছর মেয়াদি ৪৮ পাতা ই পাসপোর্ট ফি ১০ বছর মেয়াদি ৬৪ পাতা ই পাসপোর্ট ফি
রেগুলার 5,750 টাকা 8,050 টাকা
এক্সপ্রেস/জরুরী 8,050 টাকা 10,350 টাকা
সুপার এক্সপ্রেস 10,350 টাকা 13,800 টাকা

ই পাসপোর্ট কোন কোন জেলায় চালু হয়েছে

আমরা যারা ই পাসপোর্ট করতে চাই তারা এবং তাদের মধ্যে অনেকেই জানিনা ই-পাসপোর্ট কোন কোন জেলায় চালু হয়েছে? অনেকেই গুগোল ই পাসপোর্ট কোন কোন জেলায় চালু হয়েছে এই সম্পর্কের জানতে চেয়ে সার্চ করে থাকেন এবং বিভিন্ন  ই-পাসপোর্ট আঞ্চলিক অফিসে চাকরিরত কর্মকর্তাদের  ফোন করে এই সম্পর্কে জানতে চাই।

তো আজকে আমি আপনাদেরকে এমন একটি লিংক দিয়ে দিব এই লিংকের মাধ্যমে আপনি সারাজীবন ই-পাসপোর্ট কোন কোন জেলায় চালু হয়েছে এবং কোন কোন জেলায় কবে চালু হবে এই সম্পর্কে একদম গভমেন্ট থেকে সরকারিভাবে আপনি এই আপডেটটি পেয়ে থাকবেন এই লিঙ্ক থেকে আপনি দেখে নিন ই পাসপোর্ট কোন কোন জেলায় চালু হয়েছে।

কোন কোন জেলায় চালু হয়েছে

ই পাসপোর্ট কত দিনে পাওয়া যায় ২০২২

ই পাসপোর্ট কতদিনে হয়ে থাকে বা ই পাসপোর্ট কত দিনে পাওয়া যায় এ সম্পর্কে আমরা যখনই গুগলে সার্চ করি বা বিভিন্ন দালাল চক্রের সঙ্গে কথা বলি, তখন বিভিন্ন বিভিন্ন রকম তথ্য দিয়ে থাকেন।

তবে আমি আজকে আপনাদেরকে একদম সরকারি নিয়মে ই পাসপোর্ট কত দিনে পাওয়া যায় সেটি সম্পর্কে আপনাদেরকে বিস্তারিত জানিয়ে দিচ্ছি।

  • আপনি যদি 48 পাতার 5 বছর মেয়াদী ই-পাসপোর্ট নিতে চান তাহলে আপনাকে সরকারি ফি অনুযায়ী 7500 টাকা দিতে হবে।
  • আপনি যদি 10 বছর মেয়াদী 48 পাতার ই-পাসপোর্ট নিতে চান তাহলে আপনাকে 15 দিনের পেতে ফি দিতে হবে পাঁচ হাজার টাকা।
  • এবং এই 10 বছর মেয়াদী 48 পাতার ই-পাসপোর্ট যদি আপনি জরুরী হিসেবে নেন তাহলে সাত দিন সময় লাগবে আপনাকে ফি দিতে হবে 7000 টাকা।
  • এছাড়াও আপনি যদি ই পাসপোর্ট অতি জরুরী হিসেবে নেন। তাহলে আপনাকে ফি প্রদান করতে হবে 9000 টাকা এবং এটি আপনি দুই থেকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে পেয়ে যাবেন।
  • অর্থাৎ অতি জরুরী পাসপোর্ট ফিঙ্গার দেওয়ার তারিখ থেকে দুই কার্যদিবসের মধ্যে আপনি পেয়ে যাবেন আর জরুরী পাসপোর্ট ফিঙ্গার দেওয়ার তারিখ থেকে সাত বা 10 কার্যদিবসের মধ্যে আপনি পেয়ে যাবেন আর সাধারণ পাসপোর্ট ফিঙ্গার দেওয়ার তারিখ থেকে 15 -21 কার্যদিবসের মধ্যে পেয়ে যাবেন।

আশা করছি ই-পাসপোর্ট কত দিনে পাওয়া যায় সে বিষয়ে আপনি বুঝে গিয়েছেন যদি না বোঝেন। তাহলে আমি নিচে আরো ভালোভাবে আপনাদেরকে পরিস্কার করে দিচ্ছি।

সরকারিভাবে এই ই-পাসপোর্টের তিনটি ধরনকে যে নামে বলে থাকে নিচে তা দেখুন

এক নাম্বার অতি জরুরী এটাকে সুপার এক্সপ্রেস বলা হয়। দুই নাম্বার কে জরুরি এটাকে শুধু এক্সপ্রেস বলা হয় এবং তিন নাম্বার টি হচ্ছে সাধারণ এটিকে নিয়মিত বা রেগুলার বলা হয়।

১.অতি জরুরী সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারি -বায়োমেট্রিক তালিকাভুক্তির তারিখ থেকে দুই কার্যদিবসের মধ্যে ডেলিভারি দিয়ে থাকা হয়।

২.জরুরী এক্সপ্রেস ডেলিভেরি- বায়োমেট্রিক তালিকাভুক্তির তারিখ থেকে সাত কার্যদিবসের থেকে 10 কার্যদিবসের মধ্যে ডেলিভারি দেওয়া হয়ে থাকে।

৩.সাধারণ বা নিয়মিত বা রেগুলার ডেলিভারি- বায়োমেট্রিক তালিকাভুক্তির তারিখ থেকে 15 কার্যদিবস বা 21 কার্যদিবসের মধ্যে ডেলিভারি করা হয়ে থাকে।

আশা করছি উপরের এই বিষয়গুলি থেকেই পাসপোর্ট কত দিনে পাওয়া যায় এ সম্পর্কে আর কোন প্রশ্ন থাকার কথা নয়।

পাসপোর্ট আবেদন জমা দেওয়ার নিয়ম

উপরের এই সকল নিয়ম অনুসরণ করে অনলাইনের ই-পাসপোর্ট যখন আপনি আবেদন করে ফেলবেন, তখন আবেদনপত্রের সঙ্গে আপনাকে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে যাওয়ার পূর্বে অবশ্যই ব্যাংক রশিদ, অনলাইন আবেদন পত্রের প্রিন্ট কপি, জাতীয় পরিচয় পত্র অথবা জন্ম সনদ পত্র এর ফটোকপি, বাবা ও মায়ের ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি একসাথে স্ট্যাম্প দিয়ে সংযুক্ত করে বাংলাদেশ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে গিয়ে জমা দিবেন।

প্রয়োজনেই পাসপোর্ট জমা দেওয়ার সময় আপনি আঞ্চলিক অফিসে যাওয়ার পুর্বে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের মূল কপি নিয়ে যাবেন আপনার হয়তো তারা প্রমাণ স্বরূপ আপনার মূল কপি দেখতে পারে সেক্ষেত্রে আপনার কোন ধরনের কোন সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না।

পাসপোর্ট নবায়ন করার নিয়ম

পাসপোর্ট নবায়ন আবেদন করার পূর্বে যদি পাসপোর্ট নবায়ন করার ধাপ গুলি সম্পর্কে আপনি জানেন, তাহলে আপনারই উপকারে আসবে। আমি নিচে পাসপোর্ট নবায়ন করার যে সকল ধাপ পূর্ণ করতে হয় সেই সকল বিষয় লিখে দিচ্ছি –

  • পাসপোর্ট নবায়ন আবেদন করার জন্য যে সকল কাগজপত্র প্রয়োজন পড়ে থাকবে সেগুলো আগে থেকেই রেডি করে নেয়া। কি কি কাগজপত্র প্রয়োজন হবে নিচে আমি তা বিস্তারিত জানিয়ে দিব।
  • পাসপোর্ট নবায়ন ফরম পিডিএফ(pdf) এটি ফিলাপ করা।
  • পাসপোর্ট নবায়ন ফি কত টাকা? এই বিষয়ে আমি নিচে আলোচনা করছি সেটি আপনাকে অবশ্যই প্রদান করতে হবে অর্থাৎ পাসপোর্ট নবায়নের ফি টাকা জমা দিতে হবে।
  • আপনার পাসপোর্ট নবায়নের আবেদন ফরমটি পাসপোর্ট অফিসে জমা দেওয়া ও বায়োমেট্রিক এনরোলমেন্ট সম্পন্ন করা।
  • এরপরে সবকিছু ঠিক থাকলে পাসপোর্ট স্ট্যাটাস চেক করা এবং পাসপোর্ট সংগ্রহ করা।

বিস্থারিত এখানে দেখুন

আপনার জন্য-

পাসপোর্ট দিয়ে ভ্যাকসিন নিবন্ধন করার সঠিক নিয়ম

পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে ২০২২

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪২৮ other subscribers

pp

SS IT BARI-ভালোবাসার টেক ব্লগ টিম