ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নতুন নিয়ম

ই পাসপোর্টের টাকা জমা-আজকের পোষ্টে আমার নিজের অভিজ্ঞতা থেকে ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়া কি কি উপায় আছে। কোন উপায়ে জমা দেওয়ার সবচাইতে আপনার জন্য নিরাপদ হবে এবং অনলাইনে কিভাবে ই পাসপোর্ট ফি জমা দিবেন সকল তথ্য আজকের এই পোস্ট থেকে আপনি পেয়ে যাবেন।

আশা করছি আজকের এই পোস্টটি আপনি পড়ার পর থেকেই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়া সম্পর্কিত আর কোনো প্রশ্নের জন্য আপনাকে কারো কাছ থেকে সাহায্য নিতে হবে না।

ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নতুন নিয়ম
ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নতুন নিয়ম

বর্তমান সময়ে ই পাসপোর্ট এর টাকা  জমা দেওয়ার মাধ্যম হচ্ছে এ চালান এবং সোনালী ব্যাংকের সোনালী বিল পেমেন্ট সিস্টেম। দেখুন কিভাবে অনলাইনে এ চালান এর মাধ্যমে আপনার ব্যাংক একাউন্ট ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড বিকাশ, রকেট থেকে পাসপোর্ট এর টাকা জমা দিবেন সে বিষয়ে বিস্তারিত।

পাসপোর্টের ফি জমা দেওয়ার জন্য কি কি লাগে

  • ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার জন্য প্রথমেই আপনার পাসপোর্ট এর পৃষ্ঠা সংখ্যা ও মেয়াদ দরকার হবে।
  • পাসপোর্টে ডেলিভারির ধরন আপনাকে সিলেট করতে হবে।
  • ব্যক্তিগত পরিচিতি নাম্বার হিসাবে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র বা জন্ম নিবন্ধন নাম্বার।
  • পাসপোর্ট এর আবেদন অনুসারে আপনার নাম ইংরেজিতে প্রয়োজন হবে।
  • পাসপোর্ট আবেদনের নিয়ম অনুসারে আপনার বর্তমান ঠিকানা প্রয়োজন হবে।
  • আপনার নিজের একটি অ্যাক্টিভ মোবাইল নাম্বার দরকার হবে।

পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নতুন নিয়ম

অনলাইনের মাধ্যমে পাসপোর্ট এর টাকা জমা দেওয়ার জন্য আপনাকে এ চালান ওয়েবসাইটে গিয়ে ই পাসপোর্ট ফি সিলেক্ট করতে হবে। এরপরে পাসপোর্ট এর পৃষ্ঠা সংখ্যা মেয়াদ ও ডেলিভারি ধরন বাছাই করতে হবে। তারপরে ব্যক্তিগত পরিচিতি নাম্বার আপনার নাম ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার লিখতে হবে সবশেষে সুবিধামতো ব্যাংক বাছাই করে পেমেন্ট করুন এবং চালানোর প্রিন্ট কপি সংগ্রহ করুন।

তবে অবশ্যই অনলাইনে পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার ক্ষেত্রে কিছু সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। এজন্য আমি পাসপোর্ট এর জন্য কিভাবে চালান এর মাধ্যমে পেমেন্ট করবেন সে বিষয়টি একদম প্রাক্টিক্যালি নিচের ধাপে ধাপে দেখিয়ে দিব ইনশাল্লাহ।

ধাপ -প্রথমে অনলাইনে এ চালান করার জন্য বাংলাদেশের এই ওয়েব সাইট টি ভিজিট করুন এখান থেকে

তারপরে নিচের দেওয়া এই ছবির মতো এরকম ওয়েবসাইট আপনি পেয়ে যাবেন সেখান থেকে ই-পাসপোর্ট ফ্রী অপশনটি সিলেক্ট করুন।

ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নতুন নিয়ম

ধাপ– পাসপোর্ট অফিস থেকেই পাসপোর্ট ফি তে ক্লিক করুন। আপনার সামনে নিচের মত একটি উইন্ডো আসবে।

ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নতুন নিয়ম

ধাপ– এখান থেকে প্রথমে পাসপোর্ট এর পৃষ্ঠা সংখ্যা বাছাই করুন। তারপরে পাসপোর্ট এর মেয়াদ ও ডেলিভারির ধরন বাছাইকরণ বলে অপশন রয়েছে। সেখান থেকে আপনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে টাকার পরিমাণ দেখাবে নিচে থেকে ওকে বাটনে ক্লিক করুন।ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নতুন নিয়ম

ধাপ -এইবার যে ব্যক্তি পাসপোর্ট এর জন্য ফি পরিশোধ করা হচ্ছে বা করবেন। তার জাতীয় পরিচয় পত্র বা জন্ম নিবন্ধন নাম্বার, নাম ঠিকানা এবং মোবাইল নাম্বার লিখতে হবে, ইমেইল অপশন লিখতেও পারেন না পারলে কোন অসুবিধা নাই।

এখানে আপনি আবেদনকারীর অথবা আপনার নাম লেখার ক্ষেত্রে অবশ্যই পাসপোর্ট আবেদনের সাথে মিল রেখে নাম এন্ট্রি দিবেন। এ চালানের নাম এবং পাসপোর্ট আবেদন নামের সঙ্গে কোনো ধরনের কোনো পার্থক্য হলে আপনার এই চালানটি গৃহীত হবে না।

এছাড়াও লক্ষ্য রাখবেন জাতীয় পরিচয় পত্র দ্বারা পাসপোর্ট আবেদন করা হয় অবশ্যই জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার দিবেন। আর যাদের বয়স 20 বছরের কম জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তারা জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি নাম্বার দিবেন অবশ্যই সংখ্যাগুলো শুদ্ধভাবে দিবেন।

এখানে ব্যাংক বাছাই করুন। আপনার সুবিধামতো আপনি অন্য ব্যাংক ও বাছাই করতে পারবেন। নগদ, বিকাশ, রকেট এর মাধ্যমে টাকা জমা দিতে সোনালী ব্যাংক সিলেট করতে হবে। সোনালী ব্যাংকে অনলাইনে একাউন্ট ডেবিট কার্ড ও ক্রেডিট কার্ড থেকেও পেমেন্ট আপনি খুব সহজেই করতে পারবেন।

এখানে সেভ বাটনে ক্লিক করুন। আপনার সোনালী ব্যাংকের পেমেন্ট গেটওয়ে নেওয়া হবে।ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নতুন নিয়ম

ধাপ-এখান থেকে একাউন্ট অথবা ভিসা, মাস্টার, এনএক্স অথবা মোবাইল ব্যাংকিং অপশন সিলেক্ট করে পেমেন্ট করুন।

সতর্কতা-পেমেন্ট করার সময় সতর্ক থাকবেন যাতে আপনার ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন না হয় এবং আপনার কম্পিউটার ডিভাইস অথবা মোবাইল ডিভাইস বন্ধ না হয়ে যায়।

এছাড়াও সতর্ক থাকবেন যে পেমেন্ট করার সময় কোন কারনে আপনার একাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেওয়া হয়েছে কিন্তু লেনদেন সফল হয়নি এমন মেসেজ দেখতে পেলে। আপনি এমনতো অবস্থায় কখনো সেই পেজ প্লজ করবেন না কারণ ওই পেজ থেকেই আপনার চালান নাম্বার সংগ্রহ করা এবং ডাউনলোড করার অপশনটি বা প্রক্রিয়াটি আপনি দেখতে পাবেন।

নগদ,রকেট বিকাশের মাধ্যমে পাসপোর্ট টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

নগদ, রকেট ও বিকাশ বহুল ব্যবহৃত এবং জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং সেবা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়ার জন্য চার নাম্বার ধাপ থেকে সোনালী ব্যাংক সিলেট করবেন।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এখন সেভ বাটনে ক্লিক করবেন। আপনাকে সোনালী ব্যাংকের পেমেন্ট গেটওয় এতে আপনাকে নিয়ে যাওয়া হবে সেখান থেকে আপনি মোবাইল ব্যাংকিং বাটনে ক্লিক করে পেমেন্ট করবেন।নগদ,রকেট ও বিকাশের মাধ্যমে পাসপোর্ট টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

আপনি আপনার সুবিধামতো যে মাধ্যমে টাকা পেমেন্ট করতে চান সে মাধ্যমটি বাছাই করবেন। আমি উদাহরণ স্বরূপ বিকাশ সিলেট করলাম।নগদ,রকেট ও বিকাশের মাধ্যমে পাসপোর্ট টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

এখানে পে  উইথ বিকাশ নামে একটি বাটন দেখতে পাবেন। সে বাটনটি নির্বাচন করুন। বিকাশে পেমেন্ট অপশন আসলে আপনার মোবাইল নাম্বার দিন, যে নাম্বারে আপনার বিকাশ ক্রিয়েট করা আছে, তারপরে আপনার বিকাশ মোবাইল নাম্বারে এসএমএস এর মাধ্যমে একটি ভেরিফিকেশন কোড আসবে। সেই ভেরিফিকেশন কোড ও আপনার বিকাশ পিন নাম্বার দিয়ে পেমেন্ট সম্পন্ন করুন।

মোবাইলের মাধ্যমে পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

আপনি চাইলে আপনার মোবাইল থেকেও ই পাসপোর্ট এর টাকা খুব সহজেই দিতে পারবেন। এজন্য সবচাইতে ভালো হয় আপনার মোবাইলে বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রণালয়ে এ চালান এই অ্যাপসটি ইন্সটল করে নিবেন।

তাছাড়াও আপনি চাইলে গুগল ক্রোম থেকে মোবাইলের মাধ্যমে উপরের দেখানো এই নিয়ম অনুসরণ করে আপনি এ চালান অ্যাপ থেকেও এভাবে টাকা পরিশোধ করতে পারবেন।

পাসপোর্ট ফি পরিশোধ পর চালান ডাউনলোড করতে না পারলে যা করবেন

অনেক সময় অনলাইনে পেমেন্ট করার ক্ষেত্রে আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেওয়ার পর লেনদেনটি ব্যর্থ হতে পারে এমনতো অবস্থায় আপনি যা করবেন তা নিচে আলোচনা করা হলো।

  • আপনি ওই পেজটি ভুলেও ক্রস করবেন না।
  • আপনি অবশ্যই ওই পেজের লিংক কপি করে অন্য জায়গায় রেখে দিবেন।
  • কপি করা লিংকটি নোটপ্যাড বা মেসেজের মাধ্যমে সেভ করুন।
  • লিংকের মধ্যে আপনি ভোটার আইডি কার্ডের মত এরকম কিছু সংখ্যার আপনি এ চালান এর নাম্বার খুঁজে পাবেন সেই নাম্বারটি সংরক্ষণ করুন।
  • এরপর আপনি অনলাইন চালান ভেরিফিকেশন এই ওয়েবসাইটে এই লিংক থেকে প্রবেশ করুন।
  • নিচের ছবির মত এরকম প্যানেল দেখতে পাবেন সেখানে আপনি চালান  এর নাম্বার অর্থাৎ আপনি লিংক থেকে যে চালান নাম্বার পেয়েছেন সে চালান নাম্বার দিয়ে ভেরিফিকেশন করুন।ই পাসপোর্ট ফি পরিশোধ পর চালান ডাউনলোড করতে না পারলে যা করবেন
  • এখানে আপনি প্রথম বক্সে 4 ডিজিট ওপরের বক্স 11 ডিজিট লিখে ভেরিফাই বাটনে ক্লিক করলে আপনার এ চালান এ পিডিএফ ফাইলটি পেয়ে যাবেন সেখান থেকে পিডিএফ ফাইলটি সেভ করুন এবং প্রিন্ট করে নিন।
  • এ পদ্ধতিতে আপনি যদি আপনার চালান নিতে না পারেন সে ক্ষেত্রে আপনি সোনালী ব্যাংকের ফেসবুক একাউন্টে গিয়ে মেসেঞ্জারে তাদের সাথে যোগাযোগ করুন।

চালান পাসপোর্ট ফি এডজাস্টমেন্ট করার নিয়ম

এমন হতে পারে 48 পৃষ্ঠার ই-পাসপোর্ট আপনি জমা দিয়েছেন কিন্তু এখন 64 পৃষ্ঠার  ফি জমা দিতে হবে?

অথবা সাধারণ ডেলিভারি ফি জমা দিয়েছেন কিন্তু জরুরী আবেদন করার ফি জমা দেওয়া প্রয়োজন এমনতো অবস্থায় বাড়তি ফি কিভাবে জমা দিবেন চলুন দেখে নিই।

এ চালান এর ই-পাসপোর্ট ফ্রী এডজাস্টমেন্ট আপনি ব্যাংক থেকেও করতে পারবেন এবং নিজেও অনলাইনের মাধ্যমে করতে পারবেন।

অনলাইনে এডজাস্টমেন্ট ফি জমা দেওয়ার উপায়

এ চালান ওয়েবসাইট ভিজিট করুন এখান থেকে তারপরেই ই পাসপোর্ট ফি তে ক্লিক করুন।এ চালান এ ই পাসপোর্ট ফি এডজাস্টমেন্ট করার নিয়ম

এরপরে আপনার সামনেই ই পাসপোর্ট ফি এডজাস্টমেন্ট অপশন সিলেক্ট করুন বলে একটা অপশন আসবে। অপশন এর উপরে ক্লিক করুন। এবার আগের পরিশোধ করা চালান নাম্বারটি লিখুন এবং পরবর্তীতে পাসপোর্ট এর ধরন সিলেক্ট করুন।

এরপরে উপরের এই কাজগুলি হয়ে গেলে ওকে বাটনে ক্লিক করে পুরবে দেখানো পদ্ধতিতে বাকি টাকা পরিশোধ করুন নিচের ছবি দেখুন।এ চালান এ ই পাসপোর্ট ফি এডজাস্টমেন্ট করার নিয়ম

এরপরে উপরের দেখানো পদ্ধতি অবলম্বন করে ই-পাসপোর্ট সি এডজাস্টমেন্ট করা চালান কপি ডাউনলোড এবং প্রিন্ট করে নিবেন।

ব্যাংকের মাধ্যমে চালান এর পাসপোর্ট ফি পরিশোধ করার নিয়ম

অনলাইনের মাধ্যমে ছাড়াও আপনি চাইলে ব্যাংকের মাধ্যমে সরাসরি কাউন্টারে গিয়ে চালানের মাধ্যমে ই-পাসপোর্টের এই এডজাস্টমেন্ট টাকা আপনি দিতে পারবেন।

ব্যাংক কাউন্টার থেকে পাসপোর্ট ফি জমা দিতে আপনার প্রয়োজন হবে ই পাসপোর্ট আবেদনের সামারি এবং রেজিস্ট্রেশন ফরম।

পাসপোর্ট আবেদন অনুসারে আপনার নাম, জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর, মোবাইল নাম্বার ও পাসপোর্ট এর মেয়াদ দিতে হবে যাতে কোন ভুল না হয়।

অবশ্যই চালান পরিশোধের পর ব্যাংক অফিসার থেকে চালান ফরম এর পিন কপি সংগ্রহ করতে হবে ই-পাসপোর্ট ফির চালানোর কপিটি এনরোলমেন্ট সময় আবেদনের সাথে পাসপোর্ট এর অফিসে জমা দিতে হবে এজন্য এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

পাসপোর্ট এর টাকা কোন কোন ব্যাংকে জমা দিতে পারবেন?

পাসপোর্ট এর টাকা কোন কোন ব্যাংকে জমা দিতে পারবেন?

 

বিদেশ থেকে পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়ার নিয়ম

বিদেশে অবস্থানরত বিভিন্ন মিশনে ইতিমধ্যে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে। এর মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাত, যুক্তরাষ্ট্র, সৌদিআরব ইত্যাদি রয়েছে। তাই এখানকার বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে আপনার ই-পাসপোর্ট আবেদন ও রিনিউ করতে পারবেন। বিদেশ থেকে পাসপোর্ট ফি কিভাবে জমা দিবেন তার তথ্য নিচে দেওয়া হল।

সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকেই পাসপোর্টের ফি কিভাবে জমা দিবেন ই লিংকে ভিজিট করুন

পাসপোর্ট সম্পর্কিত আরো তথ্য

অনলাইন পাসপোর্ট আবেদন করার নতুন নিয়ম

নতুন নিয়মে পাসপোর্ট করতে কত টাকা খরচ লাগে

এক নজরে বাংলাদেশ পাসপোর্ট অফিস সমূহ-নতুন আপডেট

ই পাসপোর্ট কত দিনে পাওয়া যায়-নতুন নিয়মে আপডেট

আশা করি যারা ই পাসপোর্ট নিয়ে ভাবছেন এই পোস্টটি থেকে আপনাদের হানডেট পারসেন উপকারে আসতে পারে ই পাসপোর্ট সংক্রান্ত যে কোন তথ্য জানতে আমাদের ই-পাসপোর্ট এই ক্যাটাগরি টি ভিজিট করুন।

pp

SS IT BARI-ভালোবাসার টেক ব্লগ টিম