অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করতে করণীয় ২০২৩

অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করতে করণীয়-বিআরটিএ বর্তমান সময়ে অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করার উন্মুক্ত সুযোগ করে দিয়েছে ডিজিটালাইজেশন এর যুগে অনলাইনে বিভিন্ন বিষয়ে  আবেদন করা যায় ঘরে বসেই। এতে করে স্বল্প খরচে কম সময়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ সমাধান হয়।

চাকরি থেকে শুরু করে স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি আবেদন অনলাইন হওয়ার পাশাপাশি পাসপোর্ট ড্রাইভিং লাইসেন্স সহ বিভিন্ন ধরনের কাজগুলো অনলাইন ভিত্তিক হওয়ায় সাধারণ জনগণ এতে খুবই উপকৃত হচ্ছে। এই তথ্যপ্রযুক্তির যুগে সবার ঘরেই স্মার্টফোন কম্পিউটার থাকায় অনলাইন ভিত্তিক কাজগুলো খুব সহজে ঘরে বসেই সম্পূর্ণ করা যায় হোক সেটা কোন কাজের জন্য আবেদন কিংবা অন্য কোন কাজ।অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করতে করণীয়

সুপ্রিয় পাঠক পাঠিকা বন্ধুরা যারা অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করতে চাচ্ছেন কিন্তু এর প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানেন না তাদের জন্য আজকে আমি এই আর্টিকেলের আলোচনা করব কিভাবে অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য আবেদন করবেন। এর প্রক্রিয়া গুলো জানতে আজকের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়বেন এবং এর মাধ্যমে অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদনের পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে পারবেন।

অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর আবেদন করার প্রক্রিয়া

অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করতে প্রথমেই আপনি বিআরটিএ এর http://bsp.brta.gov.bd এই ওয়েবসাইটের লিঙ্কে গিয়ে ইউজার ম্যানুয়াল ডাউনলোড করে দেখে নিন। সেখানে ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য দেওয়া আছে কিভাবে আপনি আবেদন করবেন।

১)প্রথমে http://bsp.brta.gov.bd লিখে Google এ সার্চ করবেন।

২) welcome to BRTA service portal এই লেখাটিতে ক্লিক করবেন।

৩) Register মেন্যুতে ক্লিক করবেন।

৪) জন্ম তারিখ ও জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর দিয়ে রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু করবেন।

৫)অনুসন্ধানে ক্লিক করলেই সমস্ত তথ্য এন আইডি থেকে চলে আসবে মোবাইল নম্বর এবং ইমেইল আইডি এবং পাসওয়ার্ড দুই বার দিয়ে “নিবন্ধন করুন”এই অপশনটিতে ক্লিক করবেন।

৬)ইমেইলের লিংক দিয়ে ভেরিফিকেশন করে নিতে হবে। ইমেইলে ঢুকে clickএ ক্লিক করলে ভেরিফাই করে নিবেন

৭) ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হলে মেসেজ দেখতে পারবেন যে নাম্বার থেকে আপনি রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন সেই নাম্বারে।

৮) ইমেইল বা ফোন নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে loginঅপশনে ক্লিক করলে মোবাইলে ওটিপি আসবে এবং ওটিপি দিয়ে ভেরিফাই করে প্রোফাইলে প্রবেশ করবেন। পুনরায় লগইন করবেন।

৯)বাম পাশ মেনু হতে ড্রাইভিং লাইসেন্স এ ক্লিক করে ট্যাবগুলো থেকে প্রথম শিক্ষা আনো বেশ লাইসেন্স এর জন্য আবেদন করুনএই অপশনে ক্লিক করলে ইন্সট্রাকশন দেখাবে সেখানে থেকে ডাক্তারি সার্টিফিকেট এর ফর্ম সংগ্রহ করবেন মোটকথা ইনফরমেশন গুলো ভালো করে পড়ে ফাইলগুলো ঠিকঠাক মত স্ক্যান করবেন।

১০) যদি সব ডকুমেন্ট ঠিক থাকে আমি সম্মত এই অপশনে ক্লিক করলেই আবেদন পেইজ আসবে। ব্যক্তিগত ক্ষেত্রে অপেশাদার সিলেক্ট করে ছবি আপলোড করবেন ফরম্যাট ঠিক রাখবেন।

১১) সেকশন A তে জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর দিবেন,জন্ম তারিখ দিবেন এবং অনুসন্ধানে ক্লিক করলে সকল তথ্য এন আইডির বিপরীতে অটো চলে আসবে।

১২) ইংরেজিতে পিতা মাতার নাম লিঙ্গ সিলেক্ট করবেন স্বামী বা স্ত্রীর নাম (যদি থাকে)পেশা শিক্ষাগত যোগ্যতা বৈবাহিক অবস্থা স্বামী স্ত্রীর নাম বাংলায় রক্তের গ্রুপ বর্তমান ঠিকানা স্থায়ী ঠিকানা ইত্যাদি দিয়ে দিবেন।

১৩)আবেদনকারীর যোগাযোগের বিবরণে মোবাইল নম্বর এবং জরুরি যোগাযোগের জন্য কারণ নাম মোবাইল নম্বর দিবেন।

১৪) সেকশন B তে মোটরসাইকেলের ধরন লাইট বা হেভি ইত্যাদি প্রয়োজন অনুসারে সিলেক্ট করবেন।

১৫) সংযুক্তিতে সকল ডকুমেন্ট আপলোড করতে হবে যা আপনি স্ক্যান করে রেখেছেন তারপর সংরক্ষণে ক্লিক করলে সংরক্ষণ হবে।

১৬)অনলাইন ফ্রি জমাতে ক্লিক করলে আবেদন রিভিউ দেখতে পাবেন নিচে মোট ফি দেখাবে ফি জমা দিলে ফি জমাতে ক্লিক করবেন।

১৭) তাদের সাথে যে কয়েকটি ব্যাংক রয়েছে তা দেখাবে মোবাইল নম্বর নিশ্চিত করুন এ ক্লিক করবেন।

১৮) আপনি যে ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে টাকা জমা দিবেন বিকাশ অথবা ডেবিট /ক্রেডিট কার্ড যেকোনো ব্যাংকিং এর মাধ্যমে টাকা জমা দিতে সেটি সিলেক্ট করে নিচের টার্মস এন্ড কন্ডিশন নিশ্চিত করবেনযদি আপনি বিকাশের মাধ্যমে টাকা জমা দিতে চান সে ক্ষেত্রে বিকাশ গেটওয়ে থেকে পেমেন্ট করবেন এবং otp এবং পিন দিয়ে কনফার্ম করলে বিকাশ পেমেন্ট সম্পূর্ণ হবে।

১৯) পেমেন্ট সম্পূর্ণ হয়েছে এবং আবেদনটি সম্পূর্ণ হয়েছে এবং মানি রিসিপ্ট এবং লার্নারটি ডাউনলোড করে প্রিন্ট করতে হবে লার্নার কার্ডে পরীক্ষার তারিখ এবং ইত্যাদি তথ্য থাকবে এভাবে ঘরে বসে ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করতে করণীয়

অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্সের পূর্ব শর্ত হলো লার্নার বা শিক্ষানবেস ড্রাইভিং লাইসেন্স।প্রথমে যেকোনো ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদনকারী ব্যক্তিকে লার্নার বা শিক্ষানগর ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহ আবেদন করতে হবে। এরপর বিভিন্ন ধাপ অতিক্রম করে আবেদনকারীর আবেদন প্রক্রিয়ার সফল হলে তিনি ড্রাইভিং লাইসেন্সটি হাতে পাবেন।

ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদনকারীকে তার স্থায়ী বা বর্তমান ঠিকানা অনুযায়ী বিআরটিএর যে সার্কেলের আওতাভুক্ত তাকে সেই সার্কেল অফিসের আবেদন করতে হবে।সার্কেল অফিস কর্তৃপক্ষ তাকে একটি শিক্ষানবিশ বা লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান করবে যা দিয়ে আবেদনকারী ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে পারবে।

২/৩বাস প্রশিক্ষণ গ্রহণের পর তাকে নির্ধারিত তারিখ ও সময়ের নির্ধারিত কেন্দ্রে লিখিত মৌখিক ও ফিল্ড টেস্ট এর অংশগ্রহণ করতে হবে এই সময় প্রার্থীকে তার লার্নার বা শিক্ষানবেশ ড্রাইভিং লাইসেন্সের মূল কপি ও লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য কলম সাথে আর নিতে হবে পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য বয়স ন্যূনতম ২০ বছর এবং অপেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য বয়স ন্যূনতম ১৮ বছর হতে হবে।

লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য দরকারি কাগজপত্র –

১) নির্ধারিত ফরমে আবেদন

২) রেজিস্টার ডাক্তার কর্তৃক মেডিকেল সার্টিফিকেট

৩) ন্যাশনাল আইডি কার্ড/ জন্ম সনদ/ পাসপোর্ট এর সত্যায়িত ফটোকপি

৪) নির্ধারিত ফ্রি প্রথম ক্যাটাগরি ৩৪৫ টাকা ও দ্বিতীয় ক্যাটাগরি ৫১৮ টাকা বিআরটিএর নির্ধারিত ব্যাংকে (ব্যাংকের তালিকা www.brta.gov.bd তে পাওয়া যাবে) জমাদানের রশিদ

৫) সদ্য তোলা ৩ কপি স্টাম্প ও এক কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি।লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য দরকারি কাগজপত্র

ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রাপ্তির ক্ষেত্রে পরীক্ষা

ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করার পর ড্রাইভিং লাইসেন্স টি হাতে পেতে তিন ধরনের পরীক্ষা দিতে হয় বিআরটিএ এর অধীনে। ১) লিখিত পরীক্ষা ২) মৌখিক পরীক্ষা ৩) ফিল্ড টেস্টএই তিন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর পুনরায় একটি নির্ধারিত ফরমের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও ফিপ্রদান করে স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য সংশ্লিষ্ট সার্কেল অফিসে আবেদন করতে হবে গ্রাহকের বায়োমেট্রিক্স (ডিজিটাল ছবি ডিজিটাল স্বাক্ষর ও আঙুলের ছাপ) গ্রহণপূর্বক স্মার্ট কার্ড ইস্যু করা হয় স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রিন্টিং সম্পূর্ণ হলে গ্রাহককে এসএমএস এর মাধ্যমে তার গ্রহণের বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হয়।

স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স এর ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

১) নির্ধারিত ফর্মে আবেদন করতে হবে

২) রেজিস্টার ডাক্তার কর্তৃক মেডিকেল সার্টিফিকেট

৩) ন্যাশনাল আইডি কার্ড/ জন্ম সনদ /পাসপোর্ট এর সত্যায়িত ফটোকপি

৪) নির্ধারিত ফি (পেশাদার ১৪৩৮ টাকা ও অপেশাদার ২৩০০ টাকা )বিআরটিএ নির্ধারিত ব্যাংকে জমা দানের রশিদ

৫) পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য পুলিশি তদন্ত প্রতিবেদন

৬) সদ্য তোলা এক কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি

ডুপ্লিকেট ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরির প্রক্রিয়া

ড্রাইভিং লাইসেন্স হারিয়ে গেলে বা নষ্ট হয়ে গেলে যদি ডুপ্লিকেট ড্রাইভিং লাইসেন্স সংগ্রহ করতে চান এক্ষেত্রে আপনাকে কিছু প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র দাখিল এবং প্রয়োজনীয় ফি পরিশোধ করতে হবে।

ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরির ক্ষেত্রে BRTA এর লিখিত পরীক্ষার সম্ভাব্য প্রশ্ন ও উত্তর

ডুপ্লিকেট ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

১) নির্ধারিত ফর্মে আবেদন

২) জিডি কপিও ট্রফিক ক্লিয়ারেন্স

৩) নির্ধারিত ফি (হাই সিকিউরিটি ড্রাইভিং লাইসেন্স এর ক্ষেত্রে ৬৩৩ টাকা)  বিআরটিএর নির্ধারিত ব্যাংক এ জমাদানের রশিদ

৪) সদ্য তোলা ১ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি

ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন ফি পরিশোধ

অনলাইনে অর্থাৎ আপনি মোবাইল ব্যাংকিং এবং ই চালান ছাড়াও বিভিন্ন মাধ্যমে অনলাইনেই নির্ধারিত ফি জমা দিতে পারবেন। ফি জমা দিতে ব্যাংকে যেতে হবে না। তবে আপনি চাইলে ব্যাংকেও জমা দিয়ে অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। অনলাইনে আবেদন সম্পূর্ণ করলেও আবেদনকারীকে ফিজিক্যালি লিখিত পরীক্ষা ব্যবহারিক পরীক্ষা এবং মৌখিক পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হবে।

ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রাপ্তিতে বিভিন্ন ধাপ অতিক্রম

ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রাপ্তির ক্ষেত্রে আপনাকে বিভিন্ন ধাপ অতিক্রম করে ড্রাইভিং লাইসেন্স টি হাতে পেতে হবে।

লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম ২০২৩

*প্রথমে অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য আবেদন করবেন

*দ্বিতীয়তঃ লিখিত পরীক্ষা দিতে হবে কেন্দ্রে গিয়ে নির্ধারিত তারিখে ভাইবা দিবেন এবং ব্যবহারিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য অপেক্ষা করতে হবে

*যদিও ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য দেওয়া পরীক্ষা পাসের ফরম বা সনদ দিয়ে রাস্তায় ছয় মাস পর্যন্ত ড্রাইভিং এর অনুমতি রয়েছে বিআরটিএ কর্তৃক।

বিআরটিএ এর সাথে যোগাযোগ

ড্রাইভিং লাইসেন্স রেজিস্ট্রেশন বা আবেদনে কোন ধরনের সমস্যায় পড়লে বিআরটিএ এর সেবা পেতে যোগাযোগ করতে হবে ১৬১০৭

০৯৯৬১০৯৯০৯৯৮ এই নম্বরে কল করে সাহায্য নিতে পারবেন।

গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 

অবশ্যই রবি থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫ঃ০০ টা এই সময়ের মধ্যে কল করতে হবে।

সুতরাং যারা অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর আবেদন করতে কনফিউশন এ ভুগছেন অথবা ভয় পাচ্ছেন অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করার তাদেরকে বলব নির্ভয়ে অনলাইনে আপনি ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করতে পারেন অল্প সময়ে এবং স্বল্প খরচে।

সচরাচর জিজ্ঞাসা

প্রশ্ন: অনলাইনে আবেদন পরীক্ষার দিলেই ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া যায় কিনা?

উত্তর: জি পাওয়া যায়। আমরা সবাই জানি ৯০% ড্রাইভিং লাইসেন্স পরীক্ষা এবং কার্ড প্রাপ্তি পর্যন্ত উৎকজ দিতে হয় ,দালাল ধরতে হয় এই কুপন্থা থেকে রক্ষা পেতে আপনি নিজেই অনলাইনে আবেদন করবেন এবং সময়মতো পরীক্ষা দিয়ে ঘুষ ছাড়া লিখিত পরীক্ষা ভাইভা ও প্র্যাকটিক্যাল টেস্ট দিয়ে পাস করে ড্রাইভিং লাইসেন্স গ্রহণ করবেন।

প্রশ্ন: ড্রাইভিং সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য জানতে কোন ওয়েবসাইটটি ভিজিট করতে হবে?

উত্তর: ড্রাইভিং সম্পর্কিত বিভিন্ন ধরনের তথ্য জানতে আপনাকে বিআরটিএ এর ওয়েবসাইট http://bsp.brta.gov.bd এ ভিজিট করতে হবে।

প্রশ্ন:লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়ে কি রাস্তায় গাড়ি চালানো সম্ভব?

উত্তর: জি না। লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়ে আপনি রাস্তায় গাড়ি চালাতে পারবেন না এটি শুধু মাত্র প্রশিক্ষকের মাধ্যমে ড্রাইভিং শেখার অনুমতি মাত্র।

শেষ কথা-

বন্ধুরা আজকে যারা কনটেন্টটি শেষ পর্যন্ত পড়েছেন অবশ্যই তারা ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করার ক্ষেত্রে খুঁটিনাটি বিষয় সম্পর্কে জানতে পেরেছেন আশা করছি। তবে এরপরেও যদি কারো কোথাও বুঝতে অসুবিধা হয় তবে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাবেন আমরা চেষ্টা করব যথাসাধ্য আপনাদের কমেন্টের উত্তর দিয়ে আপনাদের সহযোগিতা করার। আজকের মত এখানেই শেষ করছি।সবার সুস্থতা কামনা করছি।

পোস্ট ট্যাগ-

লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক,লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স ডাউনলোড,লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়ে কি গাড়ি চালানো যায়,লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন,লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স ফরম পূরণ অনলাইন,অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন,লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন।

স্বাস্থ্যকর খাবার সম্পর্কে জানতে ভিজিট করুন –  www.usitbari.com

অনলাইনে স্বপ্নপূরণ এবং টাকা আয় করতে ভিজিট করুন –  www.workupplace.com

ব্লগিং থেকে আর্নিং সম্পর্কিত টিপস পেতে ভিজিট করুন  https://www.youtube.com/@ssitbari2832

আরও আপনার জন্য

অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার নিয়ম

লাল সবুজ পরিবহনের অনলাইন টিকিট কাটার নিয়ম

পিজি হাসপাতাল অনলাইন টিকেট বুকিং করুন ঘরে বসে ২ মিনিটে

বাংলাদেশ রেলওয়ে অনলাইন টিকিট করার নতুন নিয়ম

শ্যামলী পরিবহন অনলাইন টিকেট করার নিয়ম। ২ মিনিটে

জাতীয় জাদুঘর অনলাইন টিকেট করার সঠিক নিয়ম।২ মিনিটে

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট করার সহজ নিয়ম 

ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নতুন নিয়ম ২০২২।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করুন ৫ মিনিটে

নতুন উপায়ে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট করার সহজ নিয়ম

SS IT BARI– ভালোবাসার টেক ব্লগের যেকোন ধরনের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত আপডেট পেতে আমাদের মেইল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join ৪৯২ other subscribers

প্রতিদিন আপডেট পেতে আমাদের নিচের দেয়া এই লিংক এ যুক্ত থাকুন

SS IT BARI- ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন

SS IT BARI- ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এখানে ক্লিক করুন।
SS IT BARI- ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে :এএখানে ক্লিক করুন এবং দারুণ সব ভিডিও দেখুন।
গুগল নিউজে SS IT BARI সাইট ফলো করতে :এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন।
SS IT BARI-সাইটে বিজ্ঞাপন দিতে চাইলে যোগাযোগ করুন :< strong>এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুইটার থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- লিংকদিন থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- ইনস্টাগ্রাম থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- টুম্বলার (Tumblr)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে :এখানে ক্লিক করুন।

SS IT BARI- পিন্টারেস্ট (Pinterest)থেকে আমাদের খবর সবার আগে পেতে : এখানে ক্লিক করুন।

কোন অভিজ্ঞতা ছাড়াই অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চাইলে সাথেই থকুন : এখানে ক্লিক করুন।

SS It BARI JOB NEWS

SS IT BARI-ভালোবাসার টেক ব্লগ টিম